ব্যাংকের ভেতরে পাওয়া গেল নিরাপত্তাকর্মীর রক্তাক্ত মরদেহ

বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক লিমিটেডের (বিডিবিএল) ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ শাখার নিরাপত্তাকর্মী রাজেশ বিশ্বাসের (২৩) মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ রোববার দুপুরে আশুগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাবেদ মাহমুদ দ্য ডেইলি স্টারকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
BDBL_BBaria_27Sep20.jpg
ছবি: সংগৃহীত

বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক লিমিটেডের (বিডিবিএল) ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ শাখার নিরাপত্তাকর্মী রাজেশ বিশ্বাসের (২৩) মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ রোববার দুপুরে আশুগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাবেদ মাহমুদ দ্য ডেইলি স্টারকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘শনিবার রাতে উপজেলার গোল চত্বর সংলগ্ন নজরুল ডাক্তারের বিল্ডিংয়ের দ্বিতীয় তলায় অবস্থিত ব্যাংকটির ভেতর থেকে রাজেশ বিশ্বাস (২৩) নামে ওই নিরাপত্তকর্মীর রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তার হাত-পা বাঁধা ছিল। ধারণা করা হচ্ছে, বৃহস্পতিবার রাত থেকে শনিবার রাতের মধ্যে যে কোনো দুর্বৃত্তরা তাকে হত্যা করেছে।’

রাজেশ বিশ্বাস সিলেটের জকিগঞ্জ উপজেলার চাঁন্দপুর গ্রামের ক্ষীরুদ বিশ্বাসের ছেলে।

বিডিবিএল’র আশুগঞ্জ শাখার ব্যবস্থাপক মো. মোবাশ্বের হোসেন দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘বৃহস্পতিবার ব্যাংকের কাজ শেষে রাতে ব্যাংকের ভেতরেই নিরাপত্তার দায়িত্বে ছিল রাজেশ। গতকাল রাতে ব্যাংকের এক কর্মকর্তা এসে ভেতরে প্রবেশের জন্য ডাকাডাকি করেও রাজেশের সাড়া পায়নি। থানায় জানানো হলে পুলিশ এসে দরজা ভেঙে রাজেশের হাত-পা বাঁধা রক্তাক্ত মরদেহ মেঝেতে পড়ে থাকতে দেখে। ব্যাংকের ভল্টের হাতল ভাঙা ছিল। এ ছাড়া, আলমিরা ও ড্রয়ারও ভাঙা ছিল। ধারণা করা হচ্ছে, দুর্বৃত্তরা ভবনের পেছনের দিকের একটি জানালার গ্রিল কেটে ভেতরে প্রবেশ করে এবং হত্যকাণ্ড ঘটায়।’

জাবেদ মাহমুদ আরও বলেন, ‘এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ব্যাংকের অন্য দুই নিরাপত্তাকর্মীকে আটক করেছে ডিবি। মরদেহের ময়নাতদন্তের জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।’

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা পুলিশ সুপার মো. আনিসুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, ব্যাংকের পেছনের জানালার গ্রিল কেটেই দুর্বৃত্তরা হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে। পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে। এই ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত আইনের আওতায় আনা হবে।

Comments

The Daily Star  | English

Cyclone Remal: PDB cuts power production by half

PDB switched off many power plants in the coastal areas as a safety measure due to Cyclone Rema

1h ago