শীর্ষ খবর

লালমনিরহাটে পুলিশ কর্মকর্তার বাড়ি থেকে গুলিভর্তি পিস্তল চুরি

লালমনিরহাট ট্রাফিক পুলিশের উপ-পরিদর্শক (টিএসআই) আইয়ুব আলীর ভাড়াটে বাসা থেকে তার গুলিভর্তি পিস্তল ও নগদ টাকাসহ স্বর্ণালংকার চুরি হয়েছে। এ ঘটনায় আইয়ুব আলী বাদী হয়ে লালমনিরহাট সদর থানায় গতকাল বুধবার রাতে একটি চুরির মামলা দায়ের করেছেন।
স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

লালমনিরহাট ট্রাফিক পুলিশের উপ-পরিদর্শক (টিএসআই) আইয়ুব আলীর ভাড়াটে বাসা থেকে তার গুলিভর্তি পিস্তল ও নগদ টাকাসহ স্বর্ণালংকার চুরি হয়েছে। এ ঘটনায় আইয়ুব আলী বাদী হয়ে লালমনিরহাট সদর থানায় গতকাল বুধবার রাতে একটি চুরির মামলা দায়ের করেছেন।

গত মঙ্গলবার রাতে শহরের বালাটারি এলাকায় ওই পুলিশ কর্মকর্তার ভাড়াটে বাসায় এ চুরির ঘটনা সংঘটিত হয় বলে দ্য ডেইলি স্টারকে নিশ্চিত করেছেন লালমনিরহাট সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহা আলম। ছুটি কাটাতে ওই রাতে পুলিশ কর্মকর্তা আইয়ুব আলী তার পরিবারের লোকজনসহ গ্রামের বাড়ি গাইবান্ধার পলাবাড়িতে ছিলেন বলে ওসি জানান।

পুলিশ কর্মকর্তার বাসায় চুরি সংঘটিত ও গুলিভর্তি পিস্তল চুরির ঘটনায় বুধবার রাতে বিষয়টি নিয়ে জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের কয়েক দফা বৈঠক হয়। বৈঠক শেষে এ ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়।

পুলিশ জানায়, লালমনিরহাট শহরের বালাটারি এলাকায় একটি বাসার নিচতলায় ভাড়া থাকেন লালমনিরহাট ট্রাফিক পুলিশের টিএসআই আইয়ুব আলী। ছুটি নিয়ে সপরিবারে গাইবান্ধার পলাশবাড়ি গ্রামের বাড়ি যান তিনি। ছুটিতে গেলেও তার পিস্তলটি ভাড়াটে বাসায় রেখে যান। মঙ্গলবার রাতে সংঘবদ্ধ চোর বাসায় ঢুকে পিস্তল ও নগদ টাকাসহ স্বর্ণালংকার চুরি করে।

পুলিশ ও বাসার মালিকের মাধ্যমে খবর পেয়ে আইয়ুব আলী বাসায় এসে জানতে পারেন বাসার সব কিছু অক্ষত থাকলেও বেড রুমে থাকা ট্রাংক ভেঙে গুলিসহ পিস্তল, নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার চুরি হয়েছে।

বাসার মালিক হাবিবুর রহমান জানান, মঙ্গলবার রাতে বাসার অন্যসব ভাড়াটিয়াদের শোরগোলে জানতে পারেন বাসার নিচতলার ভাড়াটিয়া পুলিশের টিএসআই আইয়ুব আলীর বাসায় চুরি হয়েছে। তাৎক্ষণিক বিষয়টি টেলিফোনে ভাড়াটিয়া আইয়ুব আলী ও সদর থানার ওসিকে জানান তিনি।

ওসি শাহ আলম দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘সিনিয়র অফিসারদের উপস্থিতিতে টিএসআই আইয়ুব আলীকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। চুরি যাওয়া গুলিভর্তি পিস্তল ও অন্যন্য মালামাল উদ্ধার করতে পুলিশ ও গোয়েন্দারা মাঠে কাজ করছেন। তবে, এখনো কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি।’

Comments

The Daily Star  | English

Personal data up for sale online!

A section of government officials are selling citizens’ NID card and phone call details through hundreds of Facebook, Telegram, and WhatsApp groups, the National Telecommunication Monitoring Center has found.

1h ago