বিপিএলের পরের আসর কবে, বলতে পারছে না বিসিবি

বিপিএলের পরবর্তী আসরের রূপরেখা কি হবে, খেলাইবা কবে? তার কোন কিছুই নিয়েই পরিষ্কার ধারণা দিতে পারলেন না বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান।
Nazmul Hasan

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) আয়োজন নিয়ে বছরের কোন একটা নির্দিষ্ট সময় আগেও ঠিক করতে পারেনি বিসিবি। একেক বছর একেক সময়ে হওয়া দেশের একমাত্র ফ্রেঞ্চাইজি টি-২০ আসরে বারবারই বদলেছে দলও। সব শেষ আসরে আগের ফ্র্যাঞ্চাইজির সঙ্গে সম্পর্ক চুকিয়ে নিজেরাই দল চালিয়েছিল বিসিবি। বিপিএলের পরবর্তী আসরের রূপরেখা কি হবে, খেলাইবা কবে? তার কোন কিছুই নিয়েই পরিষ্কার ধারণা দিতে পারলেন না বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান।

রোববার বিসিবি প্রেসিডেন্ট’স কাপের মধ্য দিয়ে মিরপুর শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ফিরেছে দেশের ক্রিকেট। প্রস্তুতিমূলক আসর হলেও প্রতিযোগিতার ঝাঁজ রাখতে আয়োজনের কমতি রাখেনি বোর্ড। অনলাইনে সম্প্রচারের পাশাপাশি রাখা হয়েছে ১১ ক্যাটাগরির প্রাইজমানি।

শ্রীলঙ্কা সফর ভেস্তে যাওয়ায় ঘরোয়া ক্রিকেট ফেরাতে মরিয়া বিসিবি এরপর আয়োজন করবে একটি কর্পোরেট লিগ টি-টোয়েন্টিও। প্রাসঙ্গিকভাবেই দেশের একমাত্র টি-২০ আসরের আগামী মৌসুম কবে হবে তা জানতে চাওয়া হয়েছিল তার কাছে। তিনি জানালেন দিতে পারেননি আশার খবর,  ‘এবছর তো হচ্ছে না বিপিএল। সামনের বছর দেখা যাবে। অবস্থা এবং পরিস্থিতির উপর নির্ভর করবে সবকিছু। কোনো খেলাই আমরা বাদ দিতে চাচ্ছি না। আমরা সব খেলাই ফেরাতে চাচ্ছি। তবে অবশ্যই সবকিছু পরিস্থিতির উপরে।’

‘কারণ বিপিএলের কথা যখনই আসবে তখন বিদেশি ক্রিকেটার অবশ্যই থাকবে। একই সঙ্গে প্রোডাকশনের ব্যাপার আছে। এখন সেগুলো যদি আমরা করতে পারি বাংলাদেশে তাহলে ভালো, আমাদের কোনো আপত্তি নেই। তবে ওখানে তো আরেকটু বড়। সেখানে খেলোয়াড় সংখ্যা, টিম ম্যানেজমেন্ট সবই অনেক বেশি। সেটা হ্যান্ডেল করতে পারবো কিনা জানি না।’

আগের বছরের শেষ দিকে শুরু হয়ে চলতি বছরের শুরুর দিকে শেষ হয়েছিল বিপিএলের সপ্তম আসরে। এই আসরে আগের সবগুলো ফ্র্যাঞ্চাইজির সঙ্গে চুক্তি বাতিল করেছিল বিসিবি। আলাদা স্পন্সর নিয়ে নিজেরাই ছিল দল পরিচালনায়।

পরের আসরে বিপিএলের ফ্র্যাঞ্চাইজি কারা, এখনো ঠিক করতে পারেনি বিসিবি। তবে এসব কিছুর চেয়ে খেলা মাঠে নামানোর পরিবেশের দিকেই বেশি মন বোর্ড প্রধানের, ‘ বিপিএলের কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজি এখনও আমাদের যোগাযোগের মধ্যে নেই। আমাদের প্রথম কথা হচ্ছে কবে আমরা বিপিএল আয়োজন করতে পারবো। করছি কিনা এবং করলে কবে শুরু করতে পারছি এটা আমাদের প্রথম বিষয়। যখন পারবো তখন ভাববো যে নতুন ফ্র্যাঞ্চাইজি দিব নাকি এভাবেই এবারো চালিয়ে দেব সেটি ঠিক করবো। মানে এগুলো আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ নয়, খেলাটি আমাদের কাছে বেশি গুরুত্বপূর্ণ।’

বিপিএল নিয়ে অনিশ্চয়রার বড় কারণ করোনাভাইরাস পরিস্থিতি। তা সামলেই আইপিএল চলছে সংযুক্ত আরব আমিরাতে। তবে বাংলাদেশের পক্ষে দেশের বাইরে গিয়ে এমন লিগ আয়োজন একেবারেই অসম্ভব বলে জানিয়েছেন বিসিবি প্রধান, ‘আমার মনে হয় এটা সহজ হবে না (বাইরে আয়োজন করা)। বাংলাদেশে চালাতে (বিপিএল) গিয়েই আমাদের একটি দুটি ফ্র্যাঞ্চাইজি ছাড়া বাকিদের কিন্তু বেশ কষ্ট হয়। আর যেখানে জৈব সুরক্ষা বলয় যেটি তৈরি করতে হচ্ছে বাইরে, ইংল্যান্ডে এমনকি দুবাইয়ে আইপিএলের জন্য...আজকেও শুনলাম যেমনটা, সেটা শুনলে কারো পক্ষে সম্ভব বলে আমার মনে হয় না। আমাদের যে স্কেল এতে করে এত টাকা খরচ করা সেই নিরাপত্তা নিয়ে এটা প্রায় অসম্ভব।‘

Comments

The Daily Star  | English

Don't pay anyone for visas, or work permits: Italian envoy

Italian Ambassador to Bangladesh Antonio Alessandro has advised visa-seekers not to pay anyone for visas, emphasising that the embassy only charges small taxes and processing fees

8m ago