বগুড়ায় মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে বাবা গ্রেপ্তার

বগুড়ার শেরপুর উপজেলায় তৃতীয় শ্রেণিতে পড়ুয়া মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে ৫৫ বছর বয়সী এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আজ শনিবার দুপুরে জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (শেরপুর সার্কেল) গাজীউর রহমান দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘গতকাল রাতে পুলিশ আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি অপরাধ স্বীকার করেছেন।’
স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

বগুড়ার শেরপুর উপজেলায় তৃতীয় শ্রেণিতে পড়ুয়া মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে ৫ বছর বয়সী এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আজ শনিবার দুপুরে জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (শেরপুর সার্কেল) গাজীউর রহমান দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘গতকাল রাতে পুলিশ আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি অপরাধ স্বীকার করেছেন।’

ভুক্তভোগী শিশু ও স্থানীয় বাসিন্দাদের বরাত দিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘গত রাতে ভুক্তভোগী শিশুর মা (আসামির দ্বিতীয় স্ত্রী) বাদী হয়ে তার স্বামীর নামে মামলা দায়ের করেন। শিশুটি তার বাবা ও সৎ মায়ের (আসামির তৃতীয় স্ত্রী) সঙ্গে ভাড়া বাসায় বসবাস করতো। গত ২১ অক্টোবর সকাল সাড়ে ৪টার দিকে অন্যান্য দিনের মতো শিশুটির সৎ মা স্থানীয় চাতালে ধান সেদ্ধ করতে চলে যান। সে সময় আসামি তার মেয়েকে ধর্ষণ করেন। সেই সঙ্গে ঘটনাটি গোপন রাখতে হুমকি দেন।’

‘এই ঘটনার পরে শিশুটির আচরণে পরিবর্তন আসে। সে বাড়ির কাজ করা বন্ধ করে দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে সৎ মা তাকে মারধর করতে থাকে। এক পর্যায়ে শিশুটি তার সৎ মাকে ঘটনাটি জানায়। স্বামীর বিরুদ্ধে এই অভিযোগ বিশ্বাস না করে তিনি অত্যাচারের মাত্রা আরও বাড়িয়ে দেন। অত্যাচার থেকে মুক্তি পেতে শিশুটি তার দুই সহপাঠীকে ঘটনাটি জানায়। তাদের মাধ্যমে জেনে গ্রামের বাসিন্দারা থানায় অভিযোগ করে। মেয়েটির মা গতকাল মামলা দায়ের করার পরে পুলিশ আসামিকে গ্রেপ্তার করে। আজ মেডিকেল টেস্টের জন্য শিশুটিকে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে এবং আসামিকে আদালতে পাঠানো হয়েছে’— বলেন গাজীউর রহমান।

Comments

The Daily Star  | English