থামতে বললেই থেমে যাবেন গার্দিওলা

আবারও করোনাভাইরাস ভয়াবহ রূপ ধারণ করছে ইউরোপে। যে কারণে দ্বিতীয় দফায় লকডাউনের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে ইংল্যান্ডে। যদিও বন্ধ দরজায় দর্শকহীন মাঠে চলছে দেশটির ফুটবল। তবে যদি আবারও ফুটবল স্থগিত করার ঘোষণা দেওয়া হয়, তাহলে তা মেনে নেওয়ার জন্য মানসিক প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছেন ম্যানচেস্টার সিটির কোচ পেপ গার্দিওলা।
pep guardiola
ছবি: এএফপি

আবারও করোনাভাইরাস ভয়াবহ রূপ ধারণ করছে ইউরোপে। যে কারণে দ্বিতীয় দফায় লকডাউনের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে ইংল্যান্ডে। যদিও বন্ধ দরজায় দর্শকহীন মাঠে চলছে দেশটির ফুটবল। তবে যদি আবারও ফুটবল স্থগিত করার ঘোষণা দেওয়া হয়, তাহলে তা মেনে নেওয়ার জন্য মানসিক প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছেন ম্যানচেস্টার সিটির কোচ পেপ গার্দিওলা।

নতুন করে চার সপ্তাহের লকডাউনের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে ইংল্যান্ডে। খুব জরুরী কিছু দোকান ছাড়া বাকী সব বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে এর আওতায় ফুটবলকে রাখা হয়নি। কিন্তু পরিস্থিতি যেভাবে আগাচ্ছে তাতে যে কোনো সময় নিষেধাজ্ঞা আস্তে পারে ফুটবল অঙ্গনেও।

শেফিল্ড ইউনাইটেডের বিপক্ষে ম্যাচে শেষে নিজের প্রতিক্রিয়া জানান সিটি কোচ, 'যদি আমাদের খেলতে হয় আমরা খেলবে। তবে সমাজের বাইরে আমরা ভিন্ন কিছু হতে চাই না যখন তারা রেস্তোরা ও অন্যান্য কিছু বন্ধ করে দিচ্ছে। এ পরিস্থিতির জন্য আমি জড়িত নই। আমি নিরাপদ থাকতে চাই। আমি আমাকে, আমার পরিবার, আমার বন্ধু এবং গোটা ইংল্যান্ডের নিরাপত্তা চাই। তবে কি হবে আমি জানি না।'

'এটা কোনো মজা নয়, এটা অনেক সিরিয়াস ব্যাপার। আমাদের ঘরে বসে থাকতে হলে ঘরে বসে থাকব। যদি আমাদের বলা হয় এটা করা যাবে না আমরা করব না। এটা ঠিক না অর্ধেক লোক ঘরে বসে থাকবে আর বাকী অর্ধেক যা ইচ্ছা তাই করবে। আমাদের সাবধান থাকতে হবে। এটা অনেক কঠিন। আমরা থামতে যাচ্ছি।' - যোগ করে আরও বলেন গার্দিওলা।

তবে সবমিলিয়ে আবারও লকডাউনে ফুটবল বন্ধ হয়ে গেলে তা মেনে নেওয়া কঠিন হবে সবার জন্য। তারপরও সার্বিক বিবেচনায় তা মেনে নিবেন এ স্প্যানিশ কোচ, 'এটা খুব কঠিন। প্রধানমন্ত্রী এ (লকডাউনের) সিদ্ধান্ত নিয়েছেন কারণ পরিস্থিতি দিন দিন খারাপ হচ্ছে। এটা স্পেন, জার্মানি ও ফ্রান্সেও হচ্ছে। ভাইরাস এখানে এখনও আছে। লোকজন বলছে এটা শক্তিশালী। আমার মনে হয় সমাজে যা হচ্ছে ফুটবল বিশ্ব এর বাইরে নয়। '

Comments

The Daily Star  | English

Home minister says it's a planned murder

Three Bangladeshis arrested; police yet to find his body

9m ago