৯২ মাস ধরে ত্বকী হত্যার বিচার চেয়ে আসছি: রফিউর রাব্বী

সন্ত্রাস নির্মূল ত্বকী মঞ্চের আহ্বায়ক ও নিহত ত্বকীর বাবা রফিউর রাব্বী বলেছেন, ‘৯২ মাস ধরে বিচার চেয়ে আসছি। যারা বিচার চেয়ে এসেছেন তাদের অনেকে এই করোনার মধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন। কিন্তু এর বিচার হচ্ছে না। হচ্ছে না কেন বিষয়টি আমরা জানি। যেহেতু সরকার অলিখিত নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে সেহেতু এই বিচার বন্ধ রয়েছে।’
নারায়ণগঞ্জের চাষাঢ়ায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। ছবি: সনদ সাহা

সন্ত্রাস নির্মূল ত্বকী মঞ্চের আহ্বায়ক ও নিহত ত্বকীর বাবা রফিউর রাব্বী বলেছেন, ‘৯২ মাস ধরে বিচার চেয়ে আসছি। যারা বিচার চেয়ে এসেছেন তাদের অনেকে এই করোনার মধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন। কিন্তু এর বিচার হচ্ছে না। হচ্ছে না কেন বিষয়টি আমরা জানি। যেহেতু সরকার অলিখিত নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে সেহেতু এই বিচার বন্ধ রয়েছে।’ 

রফিউর রাব্বী বলেন, ‘ত্বকী হত্যার বিচার এই জন্য হচ্ছে না যে, ত্বকীর ঘাতকরা সরকারের সাথে বিভিন্ন পর্যায়ে জড়িত। হত্যাকারী অভিযুক্ত পরিবারকে সরকারের এত প্রয়োজন যে তারা ঘাতক হোক, হত্যাকারী হোক, ছিনতাইকারী হোক, চাঁদাবাজ হোক, যাই হোক তাদের রক্ষা করতে হবে। তাদের পাশে দাঁড়াতে হবে। এটি সরকারের জন্য প্রয়োজন হলেও জনগন এটিকে অত্যন্ত খারাপভাবে গ্রহণ করেছে।’

রোববার বিকেলে শহরের চাষাঢ়ায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন।

নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি ভবানী শংকর রায়ের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন সন্ত্রাস নির্মূল ত্বকী মঞ্চের সদস্য সচিব কবি ও সাংবাদিক হালিম আজাদ, নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সভাপতি মাহবুবুর রহমান মাসুম, সিপিবি নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি হাফিজুল ইসলামসহ অনেকে। 

২০১৩ সালের ৬ মার্চ ত্বকী অপহৃত হয়। দুই দিন পর ৮ মার্চ শীতলক্ষ্যা নদীর খালের পাড় থেকে পুলিশ ত্বকীর মরদেহ উদ্ধার করে। ত্বকী হত্যা মামলার আসামিদের মধ্যে ৮ জনই পলাতক। ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে ৫ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের মধ্যে আসামি ইউসুফ হোসেন লিটন ও সুলতান শওকত ভ্রমর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। হত্যাকাণ্ডের ৭ বছর পার হলেও মামলার অভিযোগপত্র দেয়া হয়নি।

Comments

The Daily Star  | English

Heatwave: icddr,b, DGHS issue health guidelines

The DGHS has urged to call 16263 to take telemedicine service within 24 hours if anyone experiences any symptoms

23m ago