সীমান্তে যেভাবে আটক হলেন আকবর

সিলেটের বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে পুলিশি নির্যাতনের শিকার হয়ে মৃত্যুবরণ করা রায়হান আহমদ হত্যা মামলার প্রধান সন্দেহভাজন আসামি ওই ফাঁড়ির ইনচার্জ ও বরখাস্তকৃত উপ-পরিদর্শক (এসআই) আকবর হোসেন ভুইয়াকে আটক করেছে পুলিশ।
এসআই আকবর হোসেন ভুইয়া। ছবি: ফেসবুক থেকে নেওয়া

সিলেটের বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে পুলিশি নির্যাতনের শিকার হয়ে মৃত্যুবরণ করা রায়হান আহমদ হত্যা মামলার প্রধান সন্দেহভাজন আসামি ওই ফাঁড়ির ইনচার্জ ও বরখাস্তকৃত উপ-পরিদর্শক (এসআই) আকবর হোসেন ভুইয়াকে আটক করেছে পুলিশ।

আজ সোমবার সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার লক্ষ্মীপ্রসাদ ইউনিয়নের ভারত সীমান্ত থেকে তাকে আটক করা হয় বলে দ্য ডেইলি স্টারকে জানান সিলেট জেলা পুলিশের সহকারি পুলিশ সুপার (কানাইঘাট সার্কেল) আব্দুল করিম।

ভারতে পালিয়ে যাওয়ার সময় তাকে আটক করা হয় বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা। তবে, এরই মধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিওতে দেখা যায়, সাধারণ কিছু মানুষই তাকে আটক করেছিলেন।

এ ভিডিওতে কিছু খাসিয়া ভাষাভাষী ও কিছু বাংলাভাষী মানুষকে দেখা যায় আকবরকে বেঁধে রাখতে। আকবর সেসময় তাদের কাছে ‘তিনি রায়হানকে খুন করেননি’ বলে কাঁন্নাজড়িত কণ্ঠে অনুনয় করতে থাকেন।

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ও মামলার তদন্তকারী প্রতিষ্ঠান পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) কর্মকর্তারা জানিয়েছেন যে, আকবরকে ভারত সীমান্তের অভ্যন্তরে খাসিয়া পল্লির সাধারণ মানুষরাই আটক করেন।

পিবিআই সিলেটের বিশেষ পুলিশ সুপার মুহাম্মদ খালেদ-উজ-জামান দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘আকবরকে ভারতের অভ্যন্তরের খাসিয়া পল্লির স্থানীয়রা আটক করে পরে বাংলাদেশের পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে। তবে, কীভাবে হস্তান্তর হয়েছে তা এখনো জানি না।’

বিজিবি’র ১৯ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল সাঈদ হোসেন দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘আকবরকে ভারত সীমান্তের অভ্যন্তরে খাসিয়ারা আটক করেন। পরে তারা সীমান্ত এলাকার আব্দুর রহিম নামের এক বাসিন্দার সঙ্গে যোগাযোগ করে সীমান্তেই আকবরকে তার হাতে তুলে দেন। আব্দুর রহিমই পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করে আকবরকে পুলিশে হস্তান্তর করে।’

তিনি বলেন, ‘এটি সীমান্তের একটু দুর্গম এলাকা। আর বিএসএফ বা আমরা বিষয়টি জানার আগে স্থানীয়রাই হস্তান্তর করে ফেলেছেন।’

আকবরকে আটকের বিষয়ে বিস্তারিত জানাতে আজ বিকেল ৫টায় সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করা হয়েছে।

আরও পড়ুন:

রায়হান হত্যা: এসআই আকবর আটক

আকবরনামা: এক অসৎ পুলিশের আখ্যান

পুলিশের নির্যাতনে মৃত্যুর অভিযোগ: অজ্ঞাত আসামিদের বিরুদ্ধে মামলা

রায়হান হত্যা: সিসি ক্যামেরার ফুটেজে গণপিটুনির প্রমাণ নেই

রায়হান হত্যা: দ্বিতীয় ময়নাতদন্তের প্রাথমিক প্রতিবেদন হস্তান্তর

রায়হান হত্যা: গ্রেপ্তার পুলিশ কনস্টেবল ৫ দিনের রিমান্ডে

রায়হান হত্যায় পুলিশ কনস্টেবল গ্রেপ্তার

রায়হান হত্যা: পুলিশ সদর দপ্তরের তদন্ত কমিটি গঠন

রায়হান হত্যা: বরখাস্তকৃত আরেক কনস্টেবল গ্রেপ্তার

রায়হান হত্যা: গ্রেপ্তার আরও ১, আবার রিমান্ডে কনস্টেবল টিটু

Comments

The Daily Star  | English

Ushering Baishakh with mishty

Most Dhakaites have a sweet tooth. We just cannot do without a sweet end to our meals, be it licking your fingers on Kashmiri mango achar, tomato chutney, or slurping up the daal (lentil soup) mixed with sweet, jujube and tamarind pickle.

1h ago