‘নিখোঁজ’ শিক্ষার্থী তিথী সরকারকে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে গ্রেপ্তার করেছে সাইবার পুলিশ

ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেওয়ার অভিযোগে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাময়িক বহিষ্কৃত ও ‘নিখোজ’ শিক্ষার্থী তিথী সরকারকে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে সাইবার পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে বলে জানিয়েছে সিআইডি।
রাজধানীর সিআইডি কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন সাইবার পুলিশ সেন্টারের ডিআইজি জামিল আহমেদ। ১২ নভেম্বর ২০২০। ছবি: স্টার

ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেওয়ার অভিযোগে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাময়িক বহিষ্কৃত ও ‘নিখোজ’ শিক্ষার্থী তিথী সরকারকে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে সাইবার পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে বলে জানিয়েছে সিআইডি।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে সাইবার পুলিশ সেন্টারের এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সংবাদ ব্রিফিংয়ে বলা হয়েছে, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিজ্ঞান বিভাগের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী তিথী সরকার তার ফেসবুক আইডি ব্যবহার করে বিভিন্ন সময় ধর্মীয় উস্কানিমূলক পোস্ট, কমেন্ট ও তথ্য শেয়ার করেন। যার ফলশ্রুতিতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা তার বিরুদ্ধে আন্দোলন ও সমাবেশ করে।

গত ২৬ অক্টোবর জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তিথী সরকারকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করে। এর আগে, ২৩ অক্টোবর তিনি তার ফেসবুক আইডি হ্যাকড হয়েছে জানিয়ে পল্লবী থানায় জিডি করেন (জিডি নং- ২৩৫৫)।

এরপর গত ২৭ অক্টোবর তিথীর বড় বোন স্মৃতি রাণী সরকার পল্লবী থানায় তিথী সরকার নিখোঁজ উল্লেখ করে জিডি করেন। তিথী ২৫ অক্টোবর সকাল ৯টায় নিখোঁজ হন বলে জিডিতে বলা হয়েছে।

সাইবার পুলিশের একটি বিশেষ দল গতকাল বুধবার বিকাল আনুমানিক পৌনে ৪টার দিকে নরসিংদীর মাধবদী থেকে তিথী সরকারকে আটক করে।

ব্রিফিংয়ে আরও বলা হয়, জিজ্ঞাসাবাদে তিথী জানিয়েছেন যে তিনি ২৫ অক্টোবর রাজধানীর পল্লবীর বাসা থেকে বের হয়ে তার প্রেমিক শিপলু মল্লিকের সঙ্গে যোগাযোগ করে বাগেরহাটে যান। সেখানে তিনি শিপলুকে বিয়ে করেন এবং বাগেরহাটে অবস্থান করেন। এরপর তিনি ৯ নভেম্বর ঢাকায় আসেন।

নরসিংদীতে শিপলুর দূর-সম্পর্কীয় চাচা দেবাশীষ রায়ের বাসায় থাকার সময় সিআইডি সাইবার পুলিশের দল তার অবস্থান নিশ্চিত হয়ে তাকে সেখান থেকে গতকাল তাকে আটক করে।

এর আগে, সেই দিন বেলা পৌনে ১২টায় গুলিস্তানের কাপ্তানবাজার ইলেক্ট্রনিকস মার্কেট থেকে শিপলুকে আটক করা হয় বলেও ব্রিফিংয়ে জানানো হয়েছে।

Comments