সিরিয়ায় ইসরায়েলের বিমান হামলা, নিহত ৩

সিরিয়া দেশটির সেনাবাহিনী ও মোতায়েন করা ইরানি কুদস বাহিনীর ঘাঁটিতে বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল। এতে অন্তত তিন সেনা নিহত ও একজন আহত হয়েছেন।
সিরিয়া-ইসরায়েল সীমান্তে ইসরায়েল নিয়ন্ত্রিত গোলান হাইটে গত ৪ আগস্ট, ২০২০ এ ইসরায়েলের সেনারা। ছবি: রয়টার্স

সিরিয়া দেশটির সেনাবাহিনী ও মোতায়েন করা ইরানি কুদস বাহিনীর ঘাঁটিতে বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল। এতে অন্তত তিন সেনা নিহত ও একজন আহত হয়েছেন।

আল জাজিরা জানায়, ইসরায়েলের উত্তর সীমান্তে বিস্ফোরক ডিভাইস পাওয়ার পর দেশটির সেনাবাহিনী ‘প্রতিশোধমূলক’ এ হামলা চালিয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

বুধবার এক বিবৃতিতে ইসরায়েলের সামরিক বাহিনী জানায়, রাতে ইরানের কুদস বাহিনী ও সিরিয়ার সশস্ত্র বাহিনীর সামরিক স্থাপনাগুলোকে লক্ষ্য করে তারা বিমান হামলা চালায়। বুধবার ভোরে তাদের বিমানগুলো সিরিয়ার সেনাবাহিনী ও কুদস বাহিনীর গুদাম, সামরিক স্থাপনা ও সিরিয়ার ভূমি থেকে আকাশে নিক্ষেপযোগ্য ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থার ওপর আঘাত হেনেছে।

সিরিয়ার রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা এসএএনএ জানায়, দামেস্কে ‘ইসরায়েলি আগ্রাসনে’ সামরিক বাহিনীর তিন সদস্য নিহত ও একজন আহত হয়েছেন।

এর আগে মঙ্গলবার ইসরায়েল সেনাবাহিনী জানায়, গোলান মালভূমির ইসরায়েলি অংশে তারা আইইডি (বিস্ফোরক ডিভাইস) পেয়েছে যেগুলো ইরানি বাহিনীগুলোর নেতৃত্বে সিরীয়দের একটি ছোট দল পেতে রেখেছিল।

এই ঘটনাকে ‘সিরিয়ায় ইরানের হস্তক্ষেপের আরও সুস্পষ্ট প্রমাণ’ বলে উল্লেখ করে ইসরায়েল।

ইসরায়েলের প্রতিরক্ষামন্ত্রী বেনি গ্যান্টজ মঙ্গলবার উত্তরের সীমান্ত সফরকালে এক বক্তব্যে জানান, ১৯৬৭ সালে মধ্যপ্রাচ্যের যুদ্ধে সিরিয়া থেকে দখল করা গোলান অঞ্চলে বিস্ফোরক ডিভাইস পেতে রাখা সহ্য করা হবে না।

সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘আমরা এ ব্যাপারে চোখ বন্ধ করে রাখতে পারি না।’

ইসরায়েলের সেনাবাহিনী জানায়, দেশটি সিরিয়ায় সম্পন্ন হওয়া সব ক্রিয়াকলাপের দায় সিরিয়া সরকারের বলে মনে করে এবং সিরিয়ায় ইরানিদের নিয়ন্ত্রণের বিরুদ্ধে ইসরায়েল প্রয়োজনীয় কার্যক্রম চালিয়ে যাবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

২০১১ সালে গৃহযুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকে ইসরায়েল সিরিয়ায় কয়েকশো বিমান ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে। ইরান ও লেবাননের হিজবুল্লাহ বাহিনী ও সরকারি সেনাদের লক্ষ্য করেই মূলত হামলা চালানো হয়।

এদিকে, আগামী জানুয়ারিতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প অফিস ছাড়ার আগে শেষবারের মতো ইসরায়েল সফর করবেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও।

ট্রাম্পকে ‘হোয়াইট হাউসে থাকা ইসরায়েলের সবচেয়ে শক্তিশালী বন্ধু’ হিসেবে উল্লেখ করেন ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। ইরানের প্রতি কঠোর মনোভাবের জন্য ট্রাম্প প্রশাসনের প্রশংসাও করেন তিনি।

Comments

The Daily Star  | English

Change Maker: A carpenter’s literary paradise

Right in the heart of Jhalakathi lies a library stocked with over 8,000 books of various genres -- history, culture, poetry, and more.

1h ago