ম্যারাডোনার নামে নাপোলির স্টেডিয়াম

নাপোলিতে সাত মৌসুম খেলে দুটি সিরি আ ও একটি উয়েফা কাপসহ পাঁচটি শিরোপা জিতেছিলেন ম্যারাডোনা।
san paolo
ছবি: টুইটার

ইতালিয়ান ক্লাব নাপোলির সান পাওলো স্টেডিয়ামকে দিয়েগো ম্যারাডোনার নামে নামকরণের আনুষ্ঠানিক প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার নেপলস শহরের মেয়র লুইগি দি ম্যাজিস্ত্রিসের বরাতে এই খবর জানিয়েছে বার্তা সংস্থা এপি।

১৯৮৪ সালে ট্রান্সফার ফিতে নাপোলিতে যোগ দেওয়ার আগে-পরে বোকা জুনিয়র্স ও বার্সেলোনার মতো দলেও খেলেছেন ম্যারাডোনা। কিন্তু তার সবকিছু উজাড় করে দিয়েছিলেন ইতালিয়ান দলটির জন্য।

লুইগি বলেছেন, ‘নেপলসের স্টেডিয়ামকে ম্যারাডোনার নামে উৎসর্গ করার বিষয়ে আমরা একাত্ম হয়ে কাজ শুরু করেছি। এটা একটা প্রক্রিয়ার অংশ। কিন্তু প্রক্রিয়াটি দ্রুত সম্পন্ন হবে। কারণ, যখন কোনো ব্যাপারে আমাদের তীব্র আকাঙ্ক্ষা থাকে, তখন কিছুই আমাদের আটকাতে পারে না।’

নাপোলিতে সাত মৌসুম খেলে দুটি সিরি আ ও একটি উয়েফা কাপসহ পাঁচটি শিরোপা জিতেছিলেন ম্যারাডোনা। প্রায় তিন যুগ পেরিয়ে গেলেও সেই সাফল্যের পুনরাবৃত্তি ঘটাতে পারেনি দলটি। সেকারণে জাতীয় দলের হয়ে ১৯৮৬ বিশ্বকাপ জেতা ‘ফুটবল ঈশ্বর’ খ্যাত সাবেক ফুটবলার যতটা আর্জেন্টিনার, ঠিক ততটাই নাপোলির।

এর আগে নাপোলির মালিক ও সভাপতি অরেলিও দে লরেন্তিস বলেছিলেন, ‘গত ১৭ বছর ধরে আমি এই বিষয় নিয়ে স্থানীয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে আসছি। আমি সবসময় বলেছি, স্টেডিয়ামটির নামকরণ করা হোক “দিয়েগো আরমান্দো ম্যারাডোনা”। ঐতিহ্যের কারণে যদি “সান পাওলো” ও “ম্যারাডোনা” দুটোই বলতে হয়, তবে তাই হোক।’

উল্লেখ্য, গত বুধবার স্থানীয় সময় বিকালে ম্যারাডোনার মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে বিশ্বজুড়ে শুরু হয় তোলপাড়। স্তব্ধ হয়ে যায় গোটা ক্রীড়াজগৎ। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬০ বছর। তিগ্রেতে নিজ বাসায় হার্ট অ্যাটাক হয়েছিল তার।

Comments

The Daily Star  | English

PM's quota remark: Students gather at TSC for protest rally

Students started gathering in front of the Raju sculpture near Dhaka University's TSC around 12:20pm today to hold a rally protesting Prime Minister Sheikh Hasina's comments during yesterday's speech

1h ago