মাদারীপুরে ছাত্রলীগ নেতাকে গ্রেপ্তারের দাবিতে মানববন্ধন

মাদারীপুরে এক গৃহবধূকে নির্যাতনের ঘটনায় অভিযুক্ত এক ছাত্রলীগ নেতার বিচার ও গ্রেপ্তারের দাবিতে মানববন্ধন করেছেন এলাকাবাসী।
সোমবার দুপুরে মাদারীপুরের জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন করেন এলাকাবাসী। ছবি: সংগৃহীত

মাদারীপুরে এক গৃহবধূকে নির্যাতনের ঘটনায় অভিযুক্ত এক ছাত্রলীগ নেতার বিচার ও গ্রেপ্তারের দাবিতে মানববন্ধন করেছেন এলাকাবাসী।

আজ সোমবার দুপুরে মাদারীপুরের জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন তারা।

ঘণ্টাব্যাপী চলা মানববন্ধনে অংশ নেন সদরের রাস্তি ইউনিয়নের কয়েকশ মানুষ। মানববন্ধন শেষে জেলা প্রশাসকের কাছে অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতার বিচার ও গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়ে স্মারকলিপিও দেওয়া হয়।

মামলার এজাহার ও স্থানীয় সূত্র জানায়, গত ২৭ নভেম্বর রাস্তি ইউনিয়নের এক গৃহবধূর ঘরে প্রবেশ করে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ফয়সাল হাওলাদার ওরফে মিঠু (৩০)। পরে ওই গৃহবধূর হাত-পা বেঁধে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এ সময় গৃহবধূর চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এলে মিঠু ও তার সহযোগীরা পালিয়ে যান। পরে গত ১ ডিসেম্বর ধর্ষণচেষ্টার ঘটনায় মাদারীপুর সদর মডেল থানায় ফয়সাল আহম্মেদ মিঠু হাওলাদারসহ দুজনকে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন ভুক্তভোগী।

তবে, এ ঘটনায় এক সপ্তাহ কেটে গেলেও অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতা গ্রেপ্তার না হওয়ায় ওই মানববন্ধনের আয়োজন করেন এলাকাবাসী।

ভুক্তভোগীর ভাই বলেন, ‘মিঠু হাওলাদার এলাকায় প্রভাবশালী হওয়ার মামলা তুলে নিতে আমাদের হুমকি-ধমকি দিয়েই চলেছে। আমাকে হত্যারও হুমকি দিয়েছে মিঠু। আমি পুলিশের কাছে আসামি মিঠুর গ্রেপ্তারে দাবি জানাচ্ছি।’

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে অভিযুক্ত মিঠু মুঠোফোনে বলেন, ‘আমি একজন ব্যবসায়ী। আমার বিরুদ্ধে মানুষ ষড়যন্ত্র করত এমন অভিযোগ দায়ের করে মামলা করেছে। আমি কোনো অন্যায়ের সঙ্গে জড়িত নই।’

একই প্রসঙ্গে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক বায়েজিদ হাওলাদার বলেন, ‘মিঠু জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক। তবে, তিনি কোনো অন্যায় করলে তার দায় ছাত্রলীগ নেবে না। তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ প্রমাণিত হলে তাকে ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার করা হবে।’

মাদারীপুর সদর মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শহিদুল ইসলাম বলেন, ‘মামলার পর থেকে অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতা ও তার সহযোগীরা পালিয়ে আছেন। তাকে গ্রেপ্তারে পুলিশের একটি টিম অভিযান অব্যাহত রেখেছে। আশা করছি খুব শিগগির মিঠুকে গ্রেপ্তার করা হবে।

Comments

The Daily Star  | English

Record job vacancies hurt govt services

More than a quarter of the 19 lakh posts in the civil administration are now vacant mainly due to the authorities’ reluctance to initiate the recruitment process.

10h ago