ফরিদপুরে উপজেলা আ. লীগ নেতা গ্রেপ্তার

ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. রাজ্জাক ফকিরকে (৪৮) গ্রেপ্তার করে জেলহাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ।
স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. রাজ্জাক ফকিরকে (৪৮) গ্রেপ্তার করে জেলহাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

গত রোববার রাত ১১টার দিকে উপজেলার মানিকদহ ইউনিয়নের নাজিরপুর গ্রাম থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে আজ সোমবার দুপুরে তাকে জেলার মুখ্য বিচারিক হাকিমের আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়।

ভাঙ্গা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বিকাশ মণ্ডল বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘পুলিশের দায়ের করা মামলার আসামি হিসেবে রাজ্জাক ফকিরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে ভাঙ্গা থানায় মারামারি, দাঙ্গা-হাঙ্গামা, লুটপাটসহ নানান অভিযোগে আরও নয়টি মামলা আছে।’

ভাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আকরামুজ্জামান রাজা দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘নানান অনিয়মের অভিযোগে মো. রাজ্জাক ফকিরকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পদ থেকে স্থানীয়ভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে। ওই বহিষ্কারের নোটিশ কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে। তবে, কেন্দ্র এখনো কিছু জানায়নি।’

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বহুদিন ধরে স্থানীয় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে গজারিয়া গ্রামে দুটি দলের দ্বন্দ্ব আছে। এর একটি দলের নেতৃত্বে ছিলেন রাজ্জাক ফকির। তাদের মধ্যে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে প্রায়ই সংঘর্ষ বাড় ভাংচুর, লুটপাটের ঘটনা ঘটে। এসব কারণে আব্দুর রাজ্জাকের বিরুদ্ধে উল্লেখিত মামলাগুলো করা হয়েছে।

রাজ্জাকের প্রতিদ্বন্দ্বী এমদাদুল হক বলেন, ‘রাজ্জাক ও তার লোকেরা আমার ছেলেকে হত্যার উদ্দেশ্যে ছাব্বিশটি কোপ দিয়েছে। আমার ছেলে মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করে পঙ্গু হয়ে কোনো রকমে বেঁচে আছে।’

Comments

The Daily Star  | English

US supports a prosperous, democratic Bangladesh

Says US embassy in Dhaka after its delegation holds a series of meetings with govt officials, opposition and civil groups

4h ago