শান্তর ঝড়ো সেঞ্চুরি, আনিসুলের তাণ্ডব, রাজশাহীর রানের পাহাড়

মিরপুর শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার এক ইনিংসেই দেখা গেল অনেক ঘটনা।
nazmul hossain shanto
ছবি: ফিরোজ আহমেদ

চার-ছক্কার ঝড়ে নাজমুল হোসেন শান্ত হয়ে উঠলেন অশান্ত। তার সঙ্গে মিলে উত্তাল হয়ে উঠল তরুণ আনিসুল ইসলাম ইমনের ব্যাট। বরিশাল বোলারদের পিটিয়ে রানের চূড়ায় উঠল মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহী।

মিরপুর শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার এক ইনিংসেই দেখা গেল অনেক ঘটনা। আগে ব্যাটিং পেয়ে ৭ উইকেটে ২২০ রান করেছে রাজশাহী। ১১ ছক্কার তামিমের রেকর্ড স্পর্শ করে শান্ত করেন ৫৫ বলে ১০৯ রান। আনিসুল করেন ৩৯ বলে ৬৯। শেষ ওভারে হ্যাটট্রিকসহ চার উইকেট নিয়ে নেন কামরুল ইসলাম রাব্বি। ক্রাম্প মাশলের চোটে নবম ওভারে মাঠ ছাড়তে হয় আরেক পেসার আবু জায়েদ রাহিকে।

টস জিতে আর সব ম্যাচের মতই আগে ফিল্ডিং নিয়েছিলেন তামিম ইকবাল। উইকেটে কিছুটা মরা ঘাস থাকায় এদিন বল ব্যাটে আসল দারুণভাবে। যার ফায়দা পুরোপুরো কাজে লাগালো রাজশাহীর ব্যাটসম্যানরা।

দুই ওপেনার শান্ত আর আনিসুল মিলেই প্রথম ৭৪ বলে তুলে ফেলেন ১৩১ রান। চার-ছক্কার ঝড় বইয়ে দেন তারা। তাদের ঝড় থামাতে ভড়কে যায় বরিশাল। আবু জায়েদ কিছুটা ভাল বল করছিলেন। নিজের তৃতীয় ওভারে মাশল ক্রাম্প করে মাঠ ছাড়তে হয় তাকে। এক বোলারের অভাব পূরণ অফ স্পিনার আফিফকে কাজে লাগিয়ে ফল আসেনি। 

উপায়হীন পরিস্থিতিতে তামিমকে সমাধান দেন সুমন। আগ্রাসী আনিসুলকে ফিরিয়ে ব্রেক থ্রো আনেন তিনি।  সুমনের বলে আনিসুল আউটও হয়েছেন মারতে গিয়েই। টুর্নামেন্টে নিজেকে চেনানো এই তরুণ ৩৯ বলে ৭ চার, ৩ ছক্কায় করেন ৬৯।  টুর্নামেন্ট সেরা উদ্বধোনী জুটির পরও একটুই ধাক্কা খায়নি রাজশাহী। আনিসুলের রেখে যাওয়া আগ্রাসী সুর ধরেই শুরু রনি তালুকদারের। শান্তর সঙ্গে মিলে পরের ২৩ বলেই তিনি আনেন আরও ৪৯ রান।

১২ বলে ২ ছক্কায় ১৮ করা রনিকে দারুণ রিফ্লেক্স ক্যাচে থামান সুমন। পরের বলে শেখ মেহেদীকে অসাধারণ নৈপুণ্যে রান আউট করে দলকে এক ওভারে জোড়া সাফল্য পাইয়ে দেন তিনি।

খানিকটা সময় থমকে যায় রাজশাহীর চাকা। দেশের ব্যাটসম্যানদের মধ্যে দ্রুততম টি-টোয়েন্টি সেঞ্চুরির সম্ভাবনা জাগিয়েও অল্পের জন্য তা পাননি শান্ত। তবে ৫২ বলে ছক্কা মেরেই পৌঁছান তিন অঙ্কে। এই টুর্নামেন্টে প্রথমবার কোন দল পেরিয়ে যায় দুশো।

শেষ ওভারে কামরুলের বলে থামেন শান্ত। ওই ওভারে হ্যাটট্রিকও করে বসেন এই পেসার। নুরুল হাসান, সাইফুদ্দিন, ফরহাদ রেজাদের ফিরিয়ে এক ওভারেই নেন ৪ উইকেট। তবে শেষ বলে ছক্কা মেরে ইনিংস শেষ করেন ফজলে মাহমুদ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহী:   ২০ ওভারে ২২০/৭  (শান্ত ১০৯  , আনিসুল ৬৯,  রনি ১৮ , শেখ মেহেদী ০, সোহান ১২, সাইফুদ্দিন ৪ , ফরহাদ ০, ফজলে ৬*, মুকিদুল ০*     ; তাসকিন ০/৪৯, মিরাজ ০/৩৫, সুমন ২/৪৩ , রাহি ০/১১, কামরুল ৪/৪৯, আফিফ ০/৩২  )

Comments

The Daily Star  | English
fire incident in dhaka bailey road

Fire Safety in High-Rise: Owners exploit legal loopholes

Many building owners do not comply with fire safety regulations, taking advantage of conflicting legal definitions of high-rise buildings, according to urban experts.

3h ago