টাইমের বর্ষসেরা ব্যক্তিত্ব বাইডেন-হ্যারিস

যুক্তরাষ্ট্রের সদ্য নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসকে ২০২০ সালের ‘পারসন অব দ্য ইয়ার’ হিসেবে বেছে নিয়েছে বিখ্যাত টাইম ম্যাগাজিন।
Time.jpg
টাইম ম্যাগাজিন। ছবি: সংগৃহীত

যুক্তরাষ্ট্রের সদ্য নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসকে ২০২০ সালের ‘পারসন অব দ্য ইয়ার’ হিসেবে বেছে নিয়েছে বিখ্যাত টাইম ম্যাগাজিন।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন জানায়, স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ২০২০ সালের সেরা ব্যক্তিত্ব হিসেবে যৌথভাবে এ দুজনের নাম ঘোষণা করে টাইম ম্যাগাজিন।

এ বছর টাইমের ‘বিজনেসপারসন অব দ্য ইয়ার’ হয়েছেন অনলাইন প্ল্যাটফর্ম জুমের প্রধান নির্বাহী ইরিক ইউয়ান। করোনাভাইরাস মহামারিতে স্বাস্থ্য সংকটের মধ্যে জুমের ভিডিও চ্যাটিং পরিষেবা বেশ জনপ্রিয় হয়। বাড়ি থেকে কাজ ও পড়াশোনা করতে এটি ব্যাপক ভূমিকা রাখে।

এ বছর ‘পারসন অব দ্য ইয়ার’ ঘোষণা করতে গিয়ে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সাময়িকীটির প্রধান সম্পাদক এডওয়ার্ড ফেলসেনথাল বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের কাহিনী পাল্টে দিয়ে, সহমর্মিতার শক্তি যে বিভাজনের উন্মত্ততা থেকে শক্তিশালী সেটি দেখিয়ে, আঘাতে জর্জরিত পৃথিবীকে সারিয়ে তোলার স্বপ্ন হাজির করে ২০২০ সালে টাইমের “পারসন অব দ্য ইয়ার” হয়েছেন জো বাইডেন ও কমলা হ্যারিস।’

বাইডেন-হ্যারিস ছাড়াও এ বছর ‘পারসন অব দ্য ইয়ার’ হওয়ার দৌড়ে ছিলেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প, যুক্তরাষ্ট্রের সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ ও হোয়াইট হাউসের করোনা টাস্কফোর্সের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য অ্যান্থনি ফাউচি ও তার সঙ্গে করোনাভাইরাস মোকাবিলায় লড়া সম্মুখসারির স্বাস্থ্যসেবা কর্মীরা এবং বর্ণবাদবিরোধী ‘দ্য মুভমেন্ট ফর রেসিয়াল জাস্টিস’ আন্দোলন।

ড. অ্যান্থনি ফাউচি ও সম্মুখসারির স্বাস্থ্যকর্মীরা টাইমের ‘গার্ডিয়ান অব দ্য ইয়ার’ খেতাব পেয়েছেন। পাশাপাশি আশা ট্রায়োরে, পোরশে বেনেট-বে ও বর্ণবাদবিরোধী কয়েকটি সংগঠনও ‘গার্ডিয়ান অব দ্য ইয়ার’ স্বীকৃতি পেয়েছে।

এ বছর ‘এন্টারটেইনমেন্ট অব দ্য ইয়ার’ স্বীকৃতি পেয়েছে কে-পপ ব্যান্ড বিটিএস। ‘অ্যাথলেট অব দ্য ইয়ার’ নির্বাচিত হয়েছেন বাস্কেটবল তারকা লেব্রন জেমস।

১৯২৭ সাল থেকেই ‘পারসন অব দ্য ইয়ার’ খেতাব দিয়ে আসছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সাময়িকী টাইম। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের চার্লস লিন্ডবার্গ সর্বপ্রথম এ স্বীকৃতি লাভ করেন। তিনি ছিলেন একজন বিমান চালক, প্রকৌশলী ও পুলিৎজার পুরস্কার বিজয়ী ব্যক্তি।

প্রথমদিকে এটি ‘ম্যান অব দ্য ইয়ার’ থাকলেও পরে নাম বদলে যায়। ব্যক্তির পাশাপাশি বিভিন্ন গোষ্ঠী, আন্দোলন এমনকি ধারণাও বিগত বছরগুলোতে এ খেতাব পেয়েছে।

গত বছর পৃথিবী রক্ষায় স্কুল ছেড়ে জলবায়ু আন্দোলনে শামিল হওয়া সুইডিশ কিশোরী গ্রেটা থানবার্গকে ‘পারসন অব দ্য ইয়ার’ ঘোষণা করেছিল টাইম।

Comments

The Daily Star  | English
Land Minister Saifuzzaman Chowdhury

Ex-land minister admits to having properties abroad

Former land minister Saifuzzaman Chowdhury admitted today to having businesses and assets abroad but denied any involvement in corrupt practices related to acquiring those properties

5h ago