করোনাভাইরাস

ভারতে ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত ২২০৬৫, মৃত্যু ৩৫৪

ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত আরও ২২ হাজার ৬৫ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। গত পাঁচ মাসের মধ্যে এটিই দেশটিতে একদিনে সর্বনিম্ন শনাক্ত রোগীর সংখ্যা। এ নিয়ে ভারতে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে ৯৯ লাখ ছয় হাজার ১৬৫ জনে দাঁড়াল। সংক্রমণের দিক থেকে বিশ্বের মধ্যে ভারতের অবস্থান বর্তমানে দ্বিতীয়তে।
দিল্লিতে করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছে। ১৪ ডিসেম্বর ২০২০। ছবি: স্টার

ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত আরও ২২ হাজার ৬৫ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। গত পাঁচ মাসের মধ্যে এটিই দেশটিতে একদিনে সর্বনিম্ন শনাক্ত রোগীর সংখ্যা। এ নিয়ে ভারতে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে ৯৯ লাখ ছয় হাজার ১৬৫ জনে দাঁড়াল। সংক্রমণের দিক থেকে বিশ্বের মধ্যে ভারতের অবস্থান বর্তমানে দ্বিতীয়তে।

একই সময়ে মারা গেছেন আরও ৩৫৪ জন। করোনায় আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত দেশটিতে মৃত্যুবরণ করেছেন এক লাখ ৪৩ হাজার ৭০৯ জন। আর গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৩৪ হাজার ৪৭৭ জন। মোট সুস্থ হয়েছেন ৯৪ লাখ ২২ হাজার ৬৩৬ জন। ভারতে মোট শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯৫ দশমিক ১২ শতাংশ।

আজ মঙ্গলবার ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে দেশটির সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সবচেয়ে বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছে মহারাষ্ট্রে। এরপর রয়েছে কর্ণাটক, অন্ধ্র প্রদেশ, তামিল নাড়ু, কেরালা, দিল্লি ও উত্তর প্রদেশে। দেশটিতে মোট শনাক্ত ৯৯ লাখ ছয় হাজার ১৬৫ জনের মধ্যে বর্তমানে আক্রান্ত রয়েছেন তিন লাখ ৩৯ হাজার ৮২০ জন।

ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিকেল রিসার্চের তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে নয় লাখ ৯৩ হাজার ৬৬৫টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। আর এখন পর্যন্ত পরীক্ষা করা হয়েছে ১৫ কোটি ৫৫ লাখ ৬০ হাজার ৬৫৫টি নমুনা।

উল্লেখ্য, গত ৩০ জানুয়ারি ভারতে প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির করোনাভাইরাস রিসোর্স সেন্টারের তথ্য অনুযায়ী, সংক্রমণের দিক থেকে বর্তমানে বিশ্বে ভারতের অবস্থান দুই নম্বরে। ভারতের আগে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও পরে ব্রাজিল।

জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন সাত কোটি ২৮ লাখ ৫০ হাজার ৯৯৪ জন এবং মারা গেছেন ১৬ লাখ ২১ হাজার ১৫৯ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন চার কোটি ৭২ লাখ ৪৯ হাজার ৩৩২ জন।

Comments

The Daily Star  | English