অপসারণের আদেশ পাওয়া রাবি রেজিস্ট্রার অধ্যাপক আব্দুল বারীর পদত্যাগ

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) রেজিস্ট্রার পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন অধ্যাপক আব্দুল বারী। উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহানের উপস্থিতিতে গতকাল বিশ্ববিদ্যালয়ের জরুরি সিন্ডিকেট সভায় তিনি পদত্যাগপত্র জমা দেন। আজ তার পদত্যাগপত্র গৃহীত হয়েছে।
ফাইল ফটো

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) রেজিস্ট্রার পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন অধ্যাপক আব্দুল বারী। উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহানের উপস্থিতিতে গতকাল বিশ্ববিদ্যালয়ের জরুরি সিন্ডিকেট সভায় তিনি পদত্যাগপত্র জমা দেন। আজ তার পদত্যাগপত্র গৃহীত হয়েছে।

রাবি সিন্ডিকেট সদস্য অধ্যাপক হাবিবুর রহমান দ্য ডেইলি স্টারকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে, গত ১৩ ডিসেম্বর সরকারের এক আদেশে রাবি উপাচার্যের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ অনুসন্ধানে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের কমিটিকে যথাযথভাবে সহযোগিতা না করার জন্য অধ্যাপক বারীকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল।

চলতি বছরের গত ৪ জানুয়ারি ৬২ জন শিক্ষক এবং দুজন চাকরিপ্রার্থী বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের দুর্নীতির তথ্য-উপাত্ত সম্বলিত ৩০০ পৃষ্ঠার একটি অভিযোগপত্র প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, শিক্ষা মন্ত্রণালয়, দুর্নীতি দমন কমিশন এবং ইউজিসিতে দাখিল করেন। তাদের বিরুদ্ধে দুর্নীতি, স্বজনপ্রীতি, অবৈধ নিয়োগের অভিযোগ তোলা হয়েছিল।

পরে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে অভিযোগ তদন্তে ইউজিসির সদস্য অধ্যাপক দিল আফরোজা বেগমকে প্রধান করে, ইউজিসি একটি কমিটি গঠন করে।

তদন্তে উপাচার্যসহ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের অন্যদের বিরুদ্ধে ২৫টি অনিয়ম-দুর্নীতির প্রমাণ পাওয়া যায়। এর মধ্যে স্বেচ্ছায় অবসর গ্রহণে রাষ্ট্রপতিকে (আচার্য) অসত্য তথ্য দেওয়া, শিক্ষক নিয়োগে স্বজনপ্রীতি, নিয়ম ভেঙে বিভিন্ন বিভাগের চেয়ারম্যান নিয়োগ এবং অর্থ লেনদেনের মতো গুরুতর অভিযোগ রয়েছে।

এই তদন্তে সহযোগিতা না করার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার অধ্যাপক আব্দুল বারীকে অপসারণের সুপারিশ করা হয়েছিল।

আরও পড়ুন:

রাবি উপাচার্য, উপ-উপাচার্য, শীর্ষ কর্মকর্তাদের দুর্নীতির প্রমাণ পেয়েছে ইউজিসি

Comments

The Daily Star  | English

Dhaka stares down the barrel of water

Once widely abundant, the freshwater for Dhaka dwellers continues to deplete at a dramatic rate and may disappear far below the ground.

6h ago