লন্ডন থেকে আসা ৪২ যাত্রী প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে

করোনার নতুন স্ট্রেইন নিয়ন্ত্রণে সরকারের নেওয়া নতুন সিদ্ধান্তের পর আজ সোমবার লন্ডন থেকে আসা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ফ্লাইটটির সিলেটে নামা ৪২ যাত্রীকে কঠোর নিরাপত্তায় প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে নেওয়া হয়েছে।
লন্ডন থেকে আসা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ফ্লাইটের সিলেটে নামা ৪২ যাত্রীকে কঠোর নিরাপত্তায় প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে নেওয়া হয়। ৪ জানুয়ারি ২০২১। ছবি: স্টার

করোনার নতুন স্ট্রেইন নিয়ন্ত্রণে সরকারের নেওয়া নতুন সিদ্ধান্তের পর আজ সোমবার লন্ডন থেকে আসা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ফ্লাইটটির সিলেটে নামা ৪২ যাত্রীকে কঠোর নিরাপত্তায় প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে নেওয়া হয়েছে।

বিমান ৪৮ যাত্রী নিয়ে সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করার পর সিলেটে নামা যাত্রীদের (এক শিশু যাত্রী তালিকাভুক্ত নয়) প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে নেওয়া হয়েছে। বাকিরা সিলেট থেকে ঢাকায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নামবেন বলে জানিয়েছেন বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের সংশ্লিষ্টরা।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বিজি-২০২ ফ্লাইটটটি দুপুর ১২টা ২৫ মিনিটের দিকে সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে। পরে তাদের প্রাথমিক স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে বিমানবন্দর গেটে থাকা বিআরটিসি বাসে করে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়।

সিলেট জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার (কোভিড-১৯ ও মিডিয়া সেল) শামমা লাবিবা অর্ণব দ্য ডেইলি স্টারকে বলেছেন, ‘নতুন আদেশ অনুযায়ী যুক্তরাজ্য ফেরত সব যাত্রীকে বাধ্যতামূলক প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে নেওয়া হবে। সে অনুযায়ী যুক্তরাজ্য থেকে আসা সবাইকে কোয়ারেন্টিনে নেওয়া হয়েছে।’

‘যাত্রীদের নিজ খরচে কোয়ারেন্টিনে থাকতে হচ্ছে’ উল্লেখ করে তিনি আরও বলেছেন, ‘প্রথমে তাদেরকে কোয়ারেন্টিনের জন্য নির্ধারিত হোটেল হলি গেইটে নেওয়া হয়েছে। তাদের কেউ যদি সে হোটেলের ব্যবস্থাপনায় সন্তুষ্ট না হন, তাহলে নির্ধারিত উন্নতমানের হোটেল স্টার প্যাসিফিকে নেওয়া হবে।’

কোয়ারেন্টিনে থাকা অবস্থায় কোন যাত্রী যাতে বের না হতে পারেন বা আত্মীয়স্বজনের সঙ্গে দেখা না করেন, সে জন্য এ হোটেলগুলোতে কঠোর নিরাপত্তার ব্যবস্থাও নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

যুক্তরাজ্যে করোনাভাইরাসের নতুন স্ট্রেইনের বিস্তার লাভের পর সেদেশের সঙ্গে বাংলাদেশের বিমান যোগাযোগ বন্ধের দাবি উঠেছিল। তবে বিমান যোগাযোগ বন্ধ না করে যাত্রীদের জন্য বাধ্যতামূলক ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনের সিদ্ধান্ত নেয় সরকার, যা গত ১ জানুয়ারি থেকে কার্যকর করা হয়েছে।

আজ যুক্তরাজ্য থেকে আসা এই ফ্লাইটে মোট ২০০ জন যাত্রী আসার কথা থাকলেও বাধ্যতমূলক কোয়ারেন্টিন আদেশ জারির পর ১৫২ জন যাত্রী তাদের টিকেট বাতিল করেছেন বলে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স সূত্রে জানা গেছে।

যুক্তরাজ্যে ধরা পড়া করোনাভাইরাসের নতুন স্ট্রেইন নিয়ে গত মাসের প্রথম থেকেই বিশ্বব্যাপী আলোচনা শুরু হয়। এরপর এই স্ট্রেইনটি বাংলাদেশেও পাওয়া যাওয়ায় যুক্তরাজ্যের সঙ্গে উড়োজাহাজ যোগাযোগ বন্ধের দাবি উঠে। পরে সরকার বাধ্যতামূলক প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনের আদেশ জারি করে।

১ জানুয়ারি থেকে এ আদেশ কার্যকর হওয়ার আগেই গত ২৪ ডিসেম্বর থেকে ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে যুক্তরাজ্য থেকে তিনটি ফ্লাইটে ৬৪১ জন যাত্রী বাংলাদেশে এসেছেন। তাদেরকে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে না রেখে বাড়িতে যেতে দেওয়া হয়েছে। এই তিন ফ্লাইটে আসা যাত্রীদের মধ্যে ৫১১ জন সিলেট বিমানবন্দরে নামেন এবং বাকিরা নামেন ঢাকায়।

Comments

The Daily Star  | English

Cyclones fewer but fiercer since the 90s

Though the number of cyclones in general has come down in Bangladesh over the years, the intensity of the cyclones has increased, meaning the number of super cyclones has gone up, posing a greater threat to people in coastal areas, a recent study found

3h ago