চার দেয়ালের ভেতরে বই পড়ে সময় কাটছে প্রবীর মিত্রের

এক সময়ের ব্যস্ত ও জনপ্রিয় চলচ্চিত্র অভিনেতা প্রবীর মিত্র ভালো নেই। চার দেয়ালের ভেতরেই সময় কাটছে তার। ঘর থেকে বের হন না অনেকদিন।
প্রবীর মিত্র। ছবি: স্টার

এক সময়ের ব্যস্ত ও জনপ্রিয় চলচ্চিত্র অভিনেতা প্রবীর মিত্র ভালো নেই। চার দেয়ালের ভেতরেই সময় কাটছে তার। ঘর থেকে বের হন না অনেকদিন।

এছাড়া তিনি কথাও কম বলেন, কানেও কম শুনছেন। হাঁটুর ব্যথার কারণে ঠিক মতো হাঁটাচলাও করতে পারেন না তিনি। শুয়েই কাটে দিনের বেশিরভাগ সময়।

তারপরও নিজেকে ভালো রাখার এবং সময় কাটানোর জন্য বইয়ের সঙ্গে মিতালি গড়েছেন প্রবীর মিত্র। দিন কাটে তার বই পড়ে। নানা ধরণের বই পড়েন তিনি।

অসুস্থ প্রবীর মিত্র সম্পর্কে দ্য ডেইলি স্টারকে এসব তথ্য দিয়েছেন তার পুত্রবধূ সোনিয়া ইসলাম। তিনি বলেন, ‘বাবার হাঁটুতে অনেকদিন ধরে সমস্যা। এ সমস্যা আসলে ঠিক হবে না। সামান্য হাঁটতে গেলেও লাঠির সাহায্য নিতে হয়। খুব একটা ভালো নেই বাবা। মন ভালো রাখার জন্য এবং সময় কাটানোর জন্য প্রচুর বই পড়েন তিনি।’

প্রবীর মিত্রর কোনো চাওয়া বা ইচ্ছের প্রসঙ্গ তুলতেই সোনিয়া ইসলাম বলেন, ‘বাবা খুব কম কথা বলেন, কানে কম শুনেন। ওইরকম কোনো ইচ্ছের কথা কখনো বলেননি। তবে আমরা চাই বাবা সুস্থ হয়ে উঠুক।’

১৯৬৯ সালে ‘জলছবি’ সিনেমা দিয়ে ঢাকাই সিনেমায় আগমন ঘটে প্রবীর মিত্রর। ৫০০-এর বেশি সিনেমায় তিনি অভিনয় করেছেন।

অভিনয় জীবনে কখনো নায়ক, কখনো খলনায়ক, কখনো বাবা, কখনো ভাইয়ের চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। সব ধরণের চরিত্রে অভিনয় করে শিল্পী জীবনকে করেছেন সমৃদ্ধ। সবচেয়ে বেশি অভিনয় করেছেন সামাজিক সিনেমায়।

প্রবীর মিত্র রঙিন নবাব সিরাজ-উদ-দৌলা সিনেমায় অভিনয় করে ব্যাপক সাড়া পান। অভিনয়ের স্বীকৃতি হিসেবে পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের আজীবন সম্মাননা।

তার উল্লেখ্য সিনেমার মধ্যে রয়েছে– তিতাস একটি নদীর নাম, দুই পয়সার আলতা, জীবন তৃষ্ণা, নয়নের আলো, রাজলক্ষ্মী শ্রীকান্ত, জন্ম থেকে জ্বলছি, পুত্রবধূ, দহন ইত্যাদি।

১৯৪৩ সালের ১৯ আগস্ট চাঁদপুর জেলার নতুন বাজারে জন্মগ্রহণ করলেও তিনি বড় হয়েছেন পুরনো ঢাকায়। পড়ালেখা করেছেন পোগজ স্কুলে। এরপর জগন্নাথ কলেজ থেকে স্নাতক করেন।

স্কুল জীবন থেকেই অভিনয় শুরু করেন প্রবীর মিত্র। মঞ্চ নাটক ‘ডাকঘর’ তার প্রথম অভিনীত নাটক। এতে প্রহরীর চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন প্রবীর মিত্র।

৫০ বছরের অভিনয় জীবনে অভিনয় ছাড়া আর কিছুই করেননি প্রবীর মিত্র। অভিনয়কে ভালোবেসে বছরের পর বছর ধরে কেবল অভিনয়ই করে গেছেন।

একসময়ের তুমুল ব্যস্ত এই শিল্পী অভিনয় থেকে দূরে রয়েছেন দীর্ঘদিন ধরে।

Comments

The Daily Star  | English

Maritime ports asked to hoist signal 3

Maritime ports of Chattogram, Cox's Bazar, Mongla, and Payra have been advised to hoist local cautionary signal number three lowering distant cautionary signal number in the wake of the deep depression over the North Bay, said a special weather bulletin.

1h ago