বরগুনা

বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের হামলায় নৌকার ৩ কর্মী আহত, গ্রেপ্তার ৩

আসন্ন বরগুনা পৌরসভা নির্বাচনে পোস্টার ছেড়াকে কেন্দ্র করে সহিংসতার ঘটনায় তিন জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে তিন জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল রাত ১২টার দিকে বরগুনা শহরের স্টেডিয়াম সংলগ্ন আশ্রয়ণে এ ঘটনা ঘটে।
স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

আসন্ন বরগুনা পৌরসভা নির্বাচনে পোস্টার ছেড়াকে কেন্দ্র করে সহিংসতার ঘটনায় তিন জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে তিন জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল রাত ১২টার দিকে বরগুনা শহরের স্টেডিয়াম সংলগ্ন আশ্রয়ণে এ ঘটনা ঘটে।

আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রার্থীর সমর্থকদের ওপর আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীর কর্মীরা এ হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় নৌকা প্রতীকের আহত তিন কর্মী হলেন- মো. জাহাঙ্গীর (৩০), আসলাম (৩২), এবং হুমায়ুন (২৮)। তাদের বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

গ্রেপ্তার তিন জন হলেন- বাপ্পি (২৭), রাসেল (৩৫), ইশতি (২০)। তাদের বিরুদ্ধে বরগুনা থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ তিন জনকে আজ সকালে বরগুনা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হয়।

বরগুনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. শহিদুল ইসলাম এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, ‘খবর পেয়ে ওই তিন জনকে আটক করে বরগুনা থানা পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃতদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের পর আদালতে পাঠানো হয়েছে।’

জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং বরগুনা জেলা যুবলীগের সভাপতি কামরুল আহসান মহারাজ আওয়াম লীগের দলীয় প্রার্থী এবং বরগুনা সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত (সদ্য বহিষ্কৃত) হোসেন বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনের মাঠে আছেন।

এ বিষয়ে নৌকা প্রতীকের প্রধান এজেন্ট অ্যাডভোকেট মো. শাহজাহান বলেন, ‘বরগুনা পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মো. শাহাদাত হোসেনের কর্মী ও সমর্থকরা নৌকা প্রতীকের কর্মী ও সমর্থকদের বাড়িঘর ভাঙচুর করে এবং মারধর করে। এতে আমাদের তিনি কর্মী ও সমর্থক আহত হন। তাদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।’

এ বিষয়ে আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী প্রার্থী মো. শাহাদাত হোসেন বলেন, ‘মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে আমার তিন কর্মী ও সমর্থককে আটক করা হয়েছে। আমার কর্মীদের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ দেওয়া হয়েছে তা সত্য নয়।’

Comments