খেলা

দুর্দান্ত বল করেও অস্বস্তির কাঁটা আকিলের মনে

অনুশীলনে ভালো কিছুর আভাস দেওয়ার পর মূল ম্যাচে নেমে তিনি বুঝিয়ে দিয়েছেন তার মান। অভিষেকে কেড়েছেন আলো।
Akeal Hosein
ছবি: ফিরোজ আহমেদ

সিরিজ শুরুর আগে বাঁহাতি স্পিনার আকিল হোসেনকে নিয়েই সবচেয়ে আশাবাদী ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সেরা তারকাদের ছাড়া খেলতে আসায় সিপিএলের নৈপুণ্যের কারণে তার দিকেই নজর ছিল বেশি। বাংলাদেশে এসে অনুশীলনে ভালো কিছুর আভাস দেওয়ার পর মূল ম্যাচে নেমে তিনি বুঝিয়ে দিয়েছেন তার মান। অভিষেকে কেড়েছেন আলো। তবে নিজে দারুণ করেও পরাজিত দলে থাকার অস্বস্তি মাথা থেকে সরাতে পারছেন না তিনি।

বুধবার মিরপুর শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আগে ব্যাটিং পেয়ে সাকিব আল হাসানের ঘূর্ণিতে মাত্র ১২২ রানে গুটিয়ে যায় উইন্ডিজ।

অল্প এই পুঁজি নিয়েও দারুণ লড়াই করে ক্যারিবিয়ান বোলার। যার অগ্রভাগে ছিলেন আকিল। ১০ ওভার বল করে মাত্র ২৬ রান দিয়ে নেন ৩ উইকেট। অভিষেকে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কোনো স্পিনারের পক্ষে যা সেরা বোলিং।

এর মধ্যে চোখ ধাঁধানো এক ডেলিভারিতে বোকা বানিয়ে বোল্ড করেন লিটন দাসকে। নাজমুল হোসেন শান্ত তার টার্ন-বাউন্সে হন কাবু। তার বলে বোল্ড হন সাকিবও।

এতকিছু করেও অল্প পুঁজি থাকায় পেরে ওঠেনি তার দল। ম্যাচ শেষে ব্যক্তিগত আনন্দের মাঝেও দলের হারে স্বস্তি পাচ্ছেন না তিনি, ‘এটা ভালো অভিজ্ঞতা। আমরা আমাদের সর্বোচ্চটা করেছি। দুর্ভাগ্যজনকভাবে ফল পাইনি। আশা করি, পরের ম্যাচে দারুণভাবে ফিরতে পারব।’

‘আমার মনে হয়, আমাদের বড় রান দরকার। আমরা ভালো বল করেছি। বড় রান হলে বোলারদের কিছু করার থাকে। আশা করি, পরের ম্যাচে তা হবে।’

‘নিজের পারফরম্যান্সে খুশি কিন্তু দলকে তা দিয়ে জেতাতে পারলাম না। এটাই মনের মধ্যে খালি ঘুরবে।’

Comments

The Daily Star  | English

Mirpur-10 intersection: Who will control unruly bus drivers?

A visit there is enough to know why people suffer daily from the gridlock: a mindless completion of busses to get more passengers

14m ago