'সাকিবের পরামর্শেই' এমন বোলিং মিরাজের

ক্যারিবিয়ানরা স্পিন আক্রমণে দুর্বল। এটা নতুন কোনো আবিষ্কৃত ঘটনা নয়। স্পিন দিয়ে তাদের বিপক্ষে বহু যুদ্ধে জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। সেই দলটির বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে বিশেষজ্ঞ স্পিনার হিসেবে খেলেও আহামরি কিছুই করতে পারেননি মেহেদী হাসান মিরাজ। তবে দ্বিতীয় ম্যাচেই জ্বলে উঠেছেন তিনি। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের পরামর্শেই নিজেকে ফিরে পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন এ স্পিনার।
ছবি: ফিরোজ আহমেদ

ক্যারিবিয়ানরা স্পিন আক্রমণে দুর্বল। এটা নতুন কোনো আবিষ্কৃত ঘটনা নয়। স্পিন দিয়ে তাদের বিপক্ষে বহু যুদ্ধে জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। সেই দলটির বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে বিশেষজ্ঞ স্পিনার হিসেবে খেলেও আহামরি কিছুই করতে পারেননি মেহেদী হাসান মিরাজ। তবে দ্বিতীয় ম্যাচেই জ্বলে উঠেছেন তিনি। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের পরামর্শেই নিজেকে ফিরে পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন এ স্পিনার।

উইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে বাংলাদেশের সব বোলারই দারুণ বোলিং করেছেন। সেখানে ব্যতিক্রম ছিলেন মিরাজ। ২৯ রানের খরচায় পান ১টি উইকেট। তাতে হতাশ ছিলেন এ তরুণ। তবে দ্বিতীয় ম্যাচেই সাকিবের পরামর্শে নিজেকে ফিরে পাওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন। ২৫ রানে ৪ উইকেট পেয়ে হয়েছে ম্যাচসেরা। আর এমন বোলিংয়ের কৃতিত্ব সাকিবকে দিয়েছেন এ তরুণ, 'আমি জুনিয়র খেলোয়াড় হিসেবে অনেক কিছু শিখি সাকিব ভাইয়ের কাছে থেকে। তিনি আমাকে বিভিন্ন রকম টিপস দেন এবং পরিস্থিতি অনুযায়ী বিভিন্ন কথা বলেন।'

কী ধরণের পরামর্শ দিয়েছেন তার উদাহরণও দিয়েছেন মিরাজ, 'প্রথম ম্যাচে আমি কিন্তু ওই রকম স্বাচ্ছন্দ্যে ছিলাম না। সাকিব ভাই দুইটা কথা বলেছে ওই দুইটা কথাই আমার অনেক কাজে লেগেছে। যেমন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান যখন ব্যাটিং করছিল আমাকে স্বাচ্ছন্দ্যে ব্যাটিং করছিল। আমাকে বলছিল যে, তুই লেগ মিডলে বল করলে ভালো হবে। তখন কিন্তু হঠাৎ করে আমার চিন্তা হয়ে গেছে যে না আমি ওইখানে বল করলে হয়ত ট্রাভেল করবে, কিছুক্ষণ এক ওভার বোলিং করার পর একটা মেইডেনও নিয়েছি। ছোট ছোট চিন্তা এবং পরিবর্তনগুলো কিন্তু অনেক উপকার করে।'

এদিন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদও তাকে মাঠে অনেক সাহায্য করেছেন বলে জানান মিরাজ। এছাড়া ব্যক্তিগত কোচ সোহেল ইসলামের পরামর্শও কাজে লেগেছে বলে জানান তিনি, 'আমার যে কোচ ছিল সোহেল ইসলাম তার সাথে আমি কথা বলেছি। তিনি বলেছেন কীভাবে বল করতে হবে এবং ওভার স্পিন বল করতে হবে বেশি বেশি এবং লাইন-লেংথটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। ওটা বাস্তবায়ন করতে পেরেছি বলেই হয়ত আজকে ভালো বোলিং হয়েছে।'

সবমিলিয়ে এদিন বোলিং ভালো হওয়ায় দারুণ খুশি মিরাজ, 'আমি অনেক খুশি। আজকের বোলিংটা নিয়ে খুবই ভালো লাগছে, প্রথম ম্যাচের পর আমি নিজের ভেতর একটু আপসেট ছিলাম, হতাশ ছিলাম, তবে আজকে বোলিং দেখে নিজের ভেতরেই অনেক ভালো লেগেছে। বিশেষ করে সবাই অনেক সমর্থনও করেছে। আমি অনেক খুশি আজকে আমার বোলিং নিয়ে।'

আর খুশি হওয়ার কথা মিরাজের। অনেক দিন থেকেই সময়টা ভালো যাচ্ছিল না তার। বল হাতে কিছুই করতে পারছিলেন না স্পিনার। সবশেষ ২০১৮ সালে সিলেটের মাঠে এই উইন্ডিজের বিপক্ষেই চার উইকেট পেয়েছিলেন তিনি। এরপর ২০টি ওয়ানডে ম্যাচে খেলে মাত্র ১৭ উইকেট পেয়েছেন তিনি। পিটুনিও খেয়েছেন বেদম।

Comments

The Daily Star  | English
Will the Buet protesters’ campaign see success?

Ban on student politics: Will Buet protesters’ campaign see success?

One cannot help but note the irony of a united campaign protesting against student politics when it is obvious that student politics is very much alive on the Buet campus

8h ago