এম্বুলদেনিয়ার ৭ উইকেট, রুটের আক্ষেপের দিন

রোববার রুটের সাফল্য আর আক্ষেপমাখা দিনে দল হিসেবেও কিছুটা অস্বস্তিতে আছে ইংল্যান্ড। ৯ উইকেটে ৩৩৯ রান তুলে শ্রীলঙ্কা থেকে তারা পিছিয়ে আছে আরও ৪২ রানে।
joe root
ছবি: সংগৃহীত

প্রথম টেস্টে ডাবল সেঞ্চুরি করে দলকে একাই টেনে নিয়েছিলেন জো রুট। দ্বিতীয় টেস্টেও একই পরিস্থিতিতে একই পথে হাঁটছিলেন তিনি। টানা দ্বিতীয় ডাবল সেঞ্চুরির খুব কাছে গিয়েও আক্ষেপে পুড়তে হলো ইংল্যান্ড অধিনায়ককে। কোন বোলারের হাতে নয়, তার সমাপ্তি হয়েছে রানআউটে। অন্যদিকে ইংল্যান্ডকে শুরু থেকেই চেপে রাখা লঙ্কান বাঁহাতি স্পিনার লাসিথ এম্বুলদেনিয়া পেয়েছেন ৭ উইকেট।

রোববার রুটের সাফল্য আর আক্ষেপমাখা দিনে দল হিসেবেও কিছুটা অস্বস্তিতে আছে ইংল্যান্ড। ৯ উইকেটে ৩৩৯ রান তুলে শ্রীলঙ্কা থেকে তারা পিছিয়ে আছে আরও ৪২ রানে। যার মধ্যে ১৮৬ রানই এসেছে রুটের ব্যাট থেকে। ৪১ ওভার বল করে ১৩২ রানে ৭ উইকেট নিয়েছেন এম্বুলদেনিয়া।

২ উইকেটে ৯৮ রান নিয়ে গল টেস্টের তৃতীয় দিন শুরু করেছিল সফরকারীরা। ৬৭ রানে অপরাজিত ছিলেন রুট। আরেক পাশে ২৪ রান নিয়ে ছিলেন জনি বেয়ারস্টো।

তৃতীয় দিন খুব বেশি এগোয়নি তাদের জুটি। আর মাত্র ৪ রান করে এম্বুলদেনিয়ার তৃতীয় শিকার হন বেয়ারস্টো। রুট রান বাড়াতে থাকলেও তাকে সঙ্গ দিতে পারেননি পাঁচে নামা ড্যান লরেন্স। তাকেও ছাঁটেন এম্বুলদেনিয়া।

এরপরই জস বাটলারের সঙ্গে জমে উঠে অধিনায়কের জুটি। পঞ্চম উইকেটে দুজনে আনেন ৯৭ রান। ফিফটি করা বাটলারকে  ফিরিয়ে এই জুটি ভাঙ্গেন রমেশ মেন্ডিস। স্যাম কারান না পারলেও ডম বেসকে নিয়ে ভালো জুটি পান রুট। সপ্তম উইকেটে তারা যোগ করেন আরও ৮১ রান। যাতে বেসের অবদান ৩২।

এম্বুলদেনিয়া কারান, বেসদের ফিরিয়ে দেওয়ার পর  রুট একাই দলের রান বাড়িয়ে এগুচ্ছিলেন ডাবল সেঞ্চুরির দিকে। কিন্তু নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে রুট দুর্ভাগ্যজনক রানআউটের শিকার হলে শেষ হয়ে যায় দিনের খেলা। 

Comments