শীর্ষ খবর
ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন

করোনা ভ্যাকসিন দেওয়ার প্রশিক্ষণ নিলেন ৮৪ চিকিৎসক, নার্স

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি) এলাকায় করোনা ভ্যাকসিন দিতে ৮৪ জন চিকিৎসক ও নার্সকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। আজ সোমবার সকাল ১০টা থেকে নগর ভবনের মেয়র হানিফ অডিটোরিয়ামে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন প্রদান সংক্রান্ত প্রশিক্ষণের আয়োজন করে ডিএসসিসি।
নগর ভবনের মেয়র হানিফ অডিটোরিয়ামে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন দেওয়ার প্রশিক্ষণের আয়োজন করে ডিএসসিসি। ছবি: সংগৃহীত

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি) এলাকায় করোনা ভ্যাকসিন দিতে ৮৪ জন চিকিৎসক ও নার্সকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। আজ সোমবার সকাল ১০টা থেকে নগর ভবনের মেয়র হানিফ অডিটোরিয়ামে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন প্রদান সংক্রান্ত প্রশিক্ষণের আয়োজন করে ডিএসসিসি।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা মেডিকেল কলেজ এবং মুগদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের ৩০ জন চিকিৎসক ও ৫৪ জন নার্স এই প্রশিক্ষণ পান। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের জাতীয় প্রশিক্ষক হিসেবে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ডিএসসিসির চিকিৎসক ডা. ফজলে শামসুল কবির ও ডা. নিশাত পারভীন এতে প্রশিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ডিএসসিসির প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগ্রেডিয়ার জেনারেল ডা. শরীফ আহমেদ বলেন, 'সব ভ্যাকসিনের ছোটখাটো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থাকতে পারে। সবার শরীরে টিকার পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া সমানও হয় না, কারও কারও হতে পারে। টিকা নেওয়ার পর কারও যদি পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হয়, সে বিষয়ে আমাদের পরবর্তী ব্যবস্থাপনা কী হবে, সে বিষয়ে আমরা আজকে প্রশিক্ষণ দিচ্ছি।'

ভ্যাকসিন কার্যক্রমে সিটি করপোরেশনের ভূমিকা কী, কারা প্রশিক্ষণ দিচ্ছেন, একদিনের প্রশিক্ষণ পর্যাপ্ত কিনা, এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, 'সিটি করপোরেশন এলাকায় যে সব ভ্যাকসিন টিম হবে, সেগুলোকে প্রশিক্ষণ দিতে আমাদের দুজন চিকিৎসক স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেছেন। এটা বড় কোনো জটিল কোন বিষয় না। তাই এ বিষয়ে একদিনের প্রশিক্ষণই আমি মনে করি যথেস্ট।'

'এই ভ্যাকসিন জটিল কোন পদ্ধতিতে প্রয়োগ করা হচ্ছে না। ইতোমধ্যে ইপিআই ভ্যাকসিন দিয়ে বিশ্বে আমরা নজির স্থাপন করেছি, আমাদের ডাক্তার-নার্সদের এ বিষয়ে যথেষ্ট জ্ঞান এবং অভিজ্ঞতা আছে। আশা করি, এর মাধ্যমেই আমরা সফলকাম হবো,' বলেন তিনি।

তিনি বলেন, 'আপনারা জনগণকে উদ্বুদ্ধ করুন। জনসাধারণ যাতে পর্যায়ক্রমে এই ভ্যাকসিন নিতে পারেন এবং কোভিড-১৯ এর বিরুদ্ধে যেন আমরা জয়ী হতে পারি।'

ভ্যাকসিনের বিরুদ্ধে গুজব প্রতিরোধ করা সবার দায়িত্ব এবং এ বিষয়ে গণমাধ্যমকর্মীদের সহযোগিতা কামনা করে তিনি আরও বলেন, 'ভ্যাকসিন নিয়ে গুজব প্রতিরোধ করার দায়িত্ব আপনাদের, আমাদের, সবার। কারণ, এটা একটা ভ্যাকসিন। মানুষের ভালোর জন্য ভ্যাকসিন প্রয়োগের লক্ষ্যে‌ আমরা দিনব্যাপী এই প্রশিক্ষণ কর্মসূচি গ্রহণ করেছি।'

আগামী ২৭ জানুয়ারি দেশে করোনা ভ্যাকসিন কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ২৮ জানুয়ারি থেকে ঢাকা মহানগরীর পাঁচটি মেডিকেল কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে করোনা ভ্যাকসিন প্রয়োগ শুরু হবে। এর মধ্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা মেডিকেল কলেজ এবং মুগদা মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হসপিটাল ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের আওতাভুক্ত এলাকায়।

প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে বেলা ৩টা পর্যন্ত এই ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হবে। এই ভ্যাকসিন দুটি ডোজে দেওয়া হবে।

Comments

The Daily Star  | English

Extreme heat sears the nation

The scorching heat continues to disrupt lives in different parts of the country, forcing the authorities to close down all schools and colleges till April 27.

2h ago