শীর্ষ খবর

টঙ্গীতে তাবলিগ জামাতের দুপক্ষের সংঘর্ষে আহত ১০

গাজীপুরের টঙ্গীতে তাবলীগ জামাতের মাওলানা সা’দ ও মাওলানা জুবায়েরের অনুসারীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় ১০ জন আহত হয়েছেন।
টঙ্গীতে মসজিদে তাবলিগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত একজন। ছবি: সংগৃহীত

গাজীপুরের টঙ্গীতে তাবলীগ জামাতের মাওলানা সা’দ ও মাওলানা জুবায়েরের অনুসারীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় ১০ জন আহত হয়েছেন।

সোমবার রাত ১০টার দিকে টঙ্গীর দত্তপাড়া এলাকার বাইতুস সালাম জামে মসজিদে এ ঘটনা ঘটে।

সা’দপন্থী গ্রুপের মাওলানা হাজী মনির হোসেন জানান, সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বিশ্ব ইজতেমা দুই গ্রুপে আয়োজন করা হয়। এর জন্য মসজিদগুলোতেও পৃথকভাবে তাবলীগের দাওয়াত দেওয়া হয়। সোমবার রাতে এশার নামাজের পর সা’দপন্থী ২০ থেকে ২৫ জন মসজিদের বারান্দায় তালিম করছিল।

সা’দপন্থীদের অভিযোগ, তালিমের সময় জুবায়েরপন্থী কয়েক শ লোক অতর্কিতে মসজিদ ঘেরাও করে হামলা চালায়। তারা মুসল্লিদের মারধর করে মসজিদ থেকে বের করে দেয়। হামলায় তালিমের আমীর মাসুদ পাটোয়ারি ও হাজী জহিরুল ইসলামসহ কমপক্ষে ১০ জন আহত হন। গুরুতর আহত দুই জনকে রাতেই টঙ্গী শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

এ ঘটনায় মুরুব্বিদের সঙ্গে পরামর্শ করে পরবর্তী করণীয় নির্ধারণ করা হবে বলে জানান সা’দপন্থী গ্রুপের মাওলানা হাজী মনির হোসেন।

হামলায় অভিযুক্ত জুবায়েরপন্থী মজিবুর রহমান বলেন, নিষেধ করার পরও সা’দপন্থীরা মসজিদে তালিম করছিল। তাই তাদেরকে আবার নিষেধ করতে গিয়েছিলাম।

টঙ্গী পূর্ব থানার ওসি আমিনুল ইসলাম বলেন, তাবলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে কোনো ঘটনা ঘটেনি। যারা মসজিদের ভেতর তালিম করছিল তাদের মধ্যেই কথা কাটাকাটি ও বাগবিতণ্ডা হয়েছে। বড় ধরনের হামলা বা মারধোরের ঘটনা ঘটেনি। খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক পুলিশ ঘটানস্থলে গিয়ে তাদের সমঝোতা করিয়ে দিয়েছে। এ ঘটনায় কোনো অভিযোগ বা মামলা মোকদ্দমার প্রয়োজন পড়েনি।

Comments

The Daily Star  | English

Personal data up for sale online!

Some government employees are selling citizens’ NID card and phone call details through hundreds of Facebook, Telegram, and WhatsApp groups, the National Telecommunication Monitoring Centre has found.

3h ago