এ সরকারের আমলে সুষ্ঠু নির্বাচন অচেনা রয়ে গেছে: রিজভী

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, এই নির্বাচন (চসিক নির্বাচন) ভোটের নামে চূড়ান্ত পর্যায়ের তামাশা ও প্রহসন ছাড়া কিছু নয়। এ সরকারের আমলে সুষ্ঠু নির্বাচন মানুষের কাছে অচেনা রয়ে গেছে।
ছবি: ইউএনবি

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, এই নির্বাচন (চসিক নির্বাচন) ভোটের নামে চূড়ান্ত পর্যায়ের তামাশা ও প্রহসন ছাড়া কিছু নয়। এ সরকারের আমলে সুষ্ঠু নির্বাচন মানুষের কাছে অচেনা রয়ে গেছে।

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) নির্বাচনে ‘নজিরবিহীন ভোট ডাকাতি ও সন্ত্রাস’ হয়েছে বলে বুধবার অভিযোগ করেছে বিএনপি।

এছাড়া, প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদাকে গণতন্ত্র ও সুষ্ঠু নির্বাচনের ‘ঘাতক’ বলেও আখ্যা দেয় দলটি।

চসিক নির্বাচনের বিভিন্ন অনিয়ম নিয়ে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) কাছে বিভিন্ন অভিযোগ করার পর সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব মন্তব্য করেন।

বিএনপির এই নেতার অভিযোগ, সকালে ভোটগ্রহণ শুরুর পরপরই তাদের দলের মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের এজেন্টদের বেশিরভাগ ভোটকেন্দ্র থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে।

রিজভী জানান, তারা চসিক নির্বাচনে ভোটের ৩ ঘণ্টার সংক্ষিপ্ত চিত্র তুলে ধরে ইসির কাছে স্মারকলিপি জমা দিয়েছেন।

‘এটি একটি নজিরবিহীন নির্বাচন,’ বলেন তিনি।

তিনি জানান, বিভিন্ন অনিয়ম ও ভোট ‘জালিয়াতি’ নিয়ে তারা প্রায় ২০টি লিখিত অভিযোগ করেছেন।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন, ‘আমাদের এজেন্টদের কেন্দ্র থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে এবং দু’জন নিহত হয়েছেন। এটি সহিংসতার একটি নির্বাচন। সরকার কী ধরনের শান্তিপূর্ণ নির্বাচন চায় এটি তার একটি উদাহরণ। ভোটগ্রহণ শুরুর দুই-তিন ঘন্টার মধ্যেই এটি পরিষ্কার হয়ে গেছে। নগরীর নির্বাচনী এলাকায় চরম সহিংস পরিবেশ বিরাজ করছে।’

চট্টগ্রামে নির্বাচনী সহিংসতায় বিএনপির অন্তত অর্ধশতাধিক নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন বলে দাবি করেন তিনি।

‘ভোটারদের ভোটকেন্দ্রে যেতেও বাধা দেওয়া হয়েছে,’ বলেন রিজভী।

এছাড়া নির্বাচনের উপযুক্ত পরিবেশ ও ভোটারদের সুরক্ষার জন্য আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কোনো উদ্যোগ নেয়নি বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

Comments

The Daily Star  | English

AL govt closed down routes used for arms smuggling thru Bangladesh: PM

As a result, peace prevails in the seven sister states of India, she says

11m ago