স্বস্তি আর আক্ষেপের সেশনে সমান-সমান লড়াই

ব্যাট করার জন্য বেশ ভালো উইকেটে তামিম ইকবাল আর নাজমুল হাসান শান্তকে হারানোর আক্ষেপে পুড়ছে বাংলাদেশ।
Tamim Iqbal
ছবি: ফিরোজ আহমেদ

উইন্ডিজের পেসাররা শুরুতে এলোমেলো থাকলেও পরে পেলেন ছন্দ। শার্প টার্নে ভোগালেন রাহকিম কর্নওয়াল। তাদের সামলে বেশ ভালোভাবেই টিকে গেছেন সাদমান ইসলাম। তবে ব্যাট করার জন্য বেশ ভালো উইকেটে তামিম ইকবাল আর নাজমুল হাসান শান্তকে হারানোর আক্ষেপে পুড়ছে বাংলাদেশ।

বুধবার চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে প্রথম দিনের প্রথম সেশন শেষে কাউকেই এগিয়ে রাখা যাচ্ছে না। ২৯ ওভারে বাংলাদেশ করেছে ৬৯ রান। ২ উইকেট তুলে নিয়েছে উইন্ডিজ। ৩৩ রানে ব্যাট করা ওপেনার সাদমানের সঙ্গে ২ রান নিয়ে খেলছেন অধিনায়ক মুমিনুল হক।

শুষ্ক উইকেটে শুরুতে ব্যাটিং পাওয়া ছিল ভীষণ দরকারি। গুরুত্বপূর্ণ টস জিতে তা পেয়েও গেল বাংলাদেশ। বল করতে নেমে উইন্ডিজের দুই পেসার প্রথম দিকে থাকলেন বেশ অগোছালো। তাতেও দিনের শুরুটা দিচ্ছিল ভালো কিছুর আভাস।

ব্যাটের সামনে পাওয়া প্রথম বলেই চার মেরে শুরু করেছিলেন সাদমান। এমন বল তিনি পেলেন আরও। শ্যানন গ্যাব্রিয়েল প্রথম দুই ওভারে লেগ স্টাম্পের বাইরে ছাড়া যেন বলই করতে পারছিলেন না।

বাংলাদেশের ওপেনারদের থিতু হওয়ার বেশ ভালো মঞ্চ তখন তৈরি। সাদমান তা কাজে লাগালেও তামিম গড়বড় করে ফেললেন। রাউন্ড দ্য উইকেট বল করতে এসে অ্যঙ্গেল তৈরি করতে থাকা কেমার রোচ পঞ্চম ওভারে পেলেন সাফল্য। তার বল ভেতরে ঢুকছিল। তামিম তার ব্যাট-প্যাডে ফাঁক রেখে দিলেন অনেকটা। সামলাতে পারলেন না। বল গিয়ে ভেঙে দিলো তার স্টাম্প। শান্ত নামতেই তাকে দারুণ এক বাউন্সারে স্বাগত জানান রোচ।

এরপর গ্যাব্রিয়েলও যেন ছন্দ পেলেন। গতি, বাউন্স মিলিয়ে অপূর্ব বেশ কয়েকটি ডেলিভারি এলো তার কাছ থেকে। সাদমান-শান্ত সতর্ক হয়ে ওসব গোলা এড়ালেন।

প্রথম ঘন্টায় ১৪ ওভার খেলে বাংলাদেশ করল ১ উইকেটে ৪২ রান। ম্যাচের নবম ওভারে বল করতে আসেন আলোচিত কর্নওয়াল। প্রথম বলেই শার্প টান দেখিয়ে জানান দেন নিজের স্কিলের। তবে উইন্ডিজের এই স্পিনারকে ভীষণ সতর্ক হয়ে খেলেন বাংলাদেশের দুই ব্যাটসম্যান।

দুজনেই থিতু হয়ে খেলছিলেন বেশ সাবলীলভাবে। তাদের আরও থিতু করেন অভিষিক্ত কাইল মেয়ার্স। এই মিডিয়াম পেসারের বলে দেখা যায়নি তেমন কোনো বিষ। একপাশে রাহকিম মাঝে মাঝেই ভোগাচ্ছিলেন, আরেক পাশে মেয়ার্সের ঢিলেঢালা বোলিংয়ে সেই চাপ আলগা হয়ে ছুটছিল বাংলাদেশ। কিন্তু নিজেদের ভুলে ফিরে গেলে কার করার থাকে কী!

মেয়ার্সের বল ফাইন লেগে ঠেলে দিয়েছিলেন সাদমান। এক রান নিলেই চলত। সাদমান আচমকা ছুটলেন দুই রানের জন্য। শান্ত প্রস্তুত ছিলেন না। সাদমান তার কাছে চলে আসতে সাবলীল ব্যাট করতে থাকা শান্ত নিজের উইকেট উৎসর্গ করে দেন।

ভেঙে যায় দ্বিতীয় উইকেটে ১১২ বলে ৪৩ রানের জুটি। দলীয় ৬৬ রানে দ্বিতীয় উইকেট হারায় বাংলাদেশ। লাঞ্চের আগে নেমে বেশ কাঁপাকাঁপি অবস্থা হয় অধিনায়ক মুমিনুলের। গ্যাব্রিয়েলের বলে শর্ট লেগে বার দুয়েক ক্যাচ দিয়ে অল্পের জন্য রক্ষা পান তিনি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর: 

(প্রথম দিনের প্রথম সেশন শেষে)

বাংলাদেশ প্রথম ইনিংস: ২৯ ওভারে ৬৯/২ (সাদমান ৩৩*, তামিম ৯, শান্ত ২৫, মুমিনুল ২*; রোচ ১/১৫, গ্যাব্রিয়েল ০/২০, কর্নওয়াল ০/২৫, মেয়ার্স ০/৭, ওয়ারিকান ০/২ )।

Comments

The Daily Star  | English
biman flyers

Biman does a 180 to buy Airbus planes

In January this year, Biman found that it would be making massive losses if it bought two Airbus A350 planes.

13m ago