খেলা

কনওয়ের ১ রানের আক্ষেপ, অজিদের উড়িয়ে দিলো নিউজিল্যান্ড

বাঁহাতি কনওয়ে চারে নেমে অপরাজিত থাকেন ৫৯ বলে ৯৯ রানে। সাত ম্যাচের টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের পঞ্চম ইনিংসে এটি তার তৃতীয় হাফসেঞ্চুরি।
conway
ছবি: টুইটার

টপ অর্ডারের ব্যাটসম্যানদের হারিয়ে দিশেহারা হয়ে পড়া নিউজিল্যান্ডকে টানলেন ডেভন কনওয়ে। মাত্র ১ রানের জন্য ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি পাওয়া হলো না তার। অস্ট্রেলিয়ার ইনিংসের শুরুতেও দেখা মিলল একই চিত্রের। কিন্তু কনওয়ের মতো বুক চিতিয়ে লড়াই করতে পারেননি দলটির কেউ। ইশ সোধি, টিম সাউদি ও ট্রেন্ট বোল্টদের দুর্দান্ত বোলিংয়ের জবাব তাদের ছিল অজানা। ফলে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথমটিতে সফরকারীদের সঙ্গী হলো বড় হার।

সোমবার ক্রাইস্টচার্চে ৫৩ রানে জিতেছে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড। টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৪ উইকেটে ১৮৫ রানের বড় স্কোর গড়ে তারা। জবাবে ১৫ বল বাকি থাকতে ১৩১ রানে গুটিয়ে যায় অজিরা।

বাঁহাতি কনওয়ে চারে নেমে অপরাজিত থাকেন ৫৯ বলে ৯৯ রানে। সাত ম্যাচের টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের পঞ্চম ইনিংসে এটি তার তৃতীয় হাফসেঞ্চুরি। পেসার কেন রিচার্ডসনের করা ইনিংসের শেষ ওভারে টানা ছক্কা ও চার মেরে ৯৮ রানে পৌঁছে যান কনওয়ে। সেঞ্চুরি ছুঁতে শেষ ডেলিভারিতে ২ রান লাগত তার। কিন্তু ডিপ পয়েন্টে সজোরে হাঁকিয়েও সিঙ্গেলের বেশি নিতে পারেননি তিনি।

কনওয়ে ক্রিজে যান তৃতীয় ওভারে। তখন ১১ রানে ২ উইকেট হারিয়ে ধুঁকছিল ব্ল্যাকক্যাপসরা। পরের ওভারে অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনও ফিরলে জেঁকে বসে চাপ। তাতে ঘাবড়ে যাননি কনওয়ে। সময় নিয়ে থিতু হয়ে পরে আগ্রাসী ব্যাটিং করেন তিনি। তাতে শেষ ১১ ওভারে ১২৯ রান তোলে কিউইরা। চতুর্থ উইকেটে গ্লেন ফিলিপসের সঙ্গে ৫১ বলে ৭৪ রানের জুটিতে প্রাথমিক চাপ সামাল দেন তিনি। এরপর ওই ভিতের ওপর দাঁড়িয়ে পঞ্চম উইকেটে জিমি নিশামকে নিয়ে ২৯ বলে ৪৭ ও মিচেল স্যান্টনারের সঙ্গে ২০ বলে অবিচ্ছিন্ন ৪৪ রান যোগ করেন তিনি। ফলে বড় পুঁজি পেয়ে যায় নিউজিল্যান্ড।

new zealand vs australia
ছবি: টুইটার

বোল্ট ও সাউদির তোপে ১৯ রানের মধ্যে ৪ উইকেট খোয়ায় অস্ট্রেলিয়া। পঞ্চম ওভারের মধ্যেই বিদায় নেন দলনেতা অ্যারন ফিঞ্চ, জোস ফিলিপি, ম্যাথু ওয়েড ও গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। মিচেল মার্শ কিছুটা প্রতিরোধের চেষ্টা করলেও তার আউটের পর মড়ক লাগে অজিদের ইনিংসে। ৩৩ রানের মধ্যে শেষ ৫ উইকেট খুইয়ে অলআউট হয়ে যায় তারা।

মার্শ ৩৩ বলে করেন ৪৫ রান। এছাড়া, অ্যাশটন অ্যাগারের ব্যাট থেকে আসে ১৩ বলে ২৩ রান। প্রতিপক্ষের লোয়ার অর্ডার গুঁড়িয়ে দিয়ে স্পিনার সোধি ৪ উইকেট নেন ২৮ রানে। দুই অভিজ্ঞ পেসার সাউদি ও বোল্ট পান ২টি করে উইকেট।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

নিউজিল্যান্ড: ২০ ওভারে ১৮৪/৫ (উইলিয়ামসন ১২, কনওয়ে ৯৯*, ফিলিপস ৩০, নিশাম ২৬; স্যামস ২/৪০, জাই রিচার্ডসন ২/৩১, স্টয়নিস ১/১৭)

অস্ট্রেলিয়া: ১৭.৩ ওভারে ১৩১ (ওয়েড ১২, মার্শ ৪৫, অ্যাগার ২৩, জাই রিচার্ডসন ১১, জ্যাম্পা ১৩*; সাউদি ২/১০, বোল্ট ২/২২, জেমিসন ১/৩২, সোধি ৪/২৮, স্যান্টনার ১/২৯)

ফল: নিউজিল্যান্ড ৫৩ রানে জয়ী।

Comments

The Daily Star  | English

Youth killed falling into canal in Ctg

A young man was killed falling into a canal in the Asadganj area of port city this afternoon

1h ago