শীর্ষ খবর

লেখক মুশতাক আহমেদের ময়না তদন্ত সম্পন্ন

গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে লেখক মুশতাক আহমেদের (৫৩) ময়না তদন্ত শেষ হয়েছে।
গাজীপুরে শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে লেখক মুশতাক আহমেদের (৫৩) ময়না তদন্তের পর তার মরদেহ ঢাকায় নেওয়ার প্রস্তুতি চলছে। ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১। ছবি: স্টার

গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে লেখক মুশতাক আহমেদের (৫৩) ময়না তদন্ত শেষ হয়েছে।

আজ শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ময়না তদন্ত শেষ হয়।

মুশতাকের সুরতহাল প্রতিবেদন প্রস্তুতকারী গাজীপুর জেলার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. ওয়াসিউজ্জামান চৌধুরী দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরির ক্ষেত্রে মুশতাক আহমেদের শরীরে দৃশ্যমান মেনশনবেল কিছু পাওয়া যায়নি। ময়না তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর বিস্তারিত জানা যাবে।

গাজীপুর মহানগর পুলিশের (জিএমপি) জয়দেবপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সৈয়দ মো. বায়েজীদ গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, কারাগারের পক্ষ থেকে মুশতাকের মৃত্যুর ব্যাপারে জিএমপির’র জয়দেবপুর থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা (মামলা নং ১৩) রুজু করা হয়েছে।

গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের প্রধান ডা. শাফী মোহাইমেন গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, মুশতাককে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়েছে। নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। সেগুলো ঢাকায় পাঠানো হবে। ময়না তদন্ত প্রতিবেদন তৈরির পর বিস্তারিত বলা যাবে।

হাসপাতাল মর্গে মরদেহের জন্যে আসা মুশতাক আহমেদের চাচাতো ভাই ডা. নাফিছুর রহমান ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘মুশতাকের ময়না তদন্ত হয়েছে। প্রতিবেদন ছাড়া আমি এ ব্যাপারে কী বলব? আমাদের কোনো অভিযোগ নাই। আমরা কোনো মামলাও করব না।’

‘দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মুশতাকের মরদেহ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ আমাদের কাছে বুঝিয়ে দিয়েছেন,’ যোগ করেন তিনি।

তিনি জানিয়েছেন, আজ বাদ মাগরিব লালমাটিয়া সি ব্লকের মিনার মসজিদে মুশতাকের জানাজা নামাজ অনুষ্ঠিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

মরদেহ আজিমপুর কবরস্থানে দাফন করা হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

মুশতাক আহমেদের সঙ্গে একই মামলায় অভিযুক্ত বর্তমানে জামিনে থাকা দিদারুল ভুঁইয়া সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, লেখক মুশতাক ও কিশোরসহ তারা তিন জন প্রথমে কেরানীগঞ্জ জেলখানায় ছিলেন। ২০২০ সালের আগস্টে তাদেরকে কাশিমপুর কারাগারে নিয়ে আসা হয়। সেখানে তাদের প্রত্যেককেই আলাদা করে রাখা হয়। ফলে মুশতাকের সঙ্গে তার দেখা হয়নি।

বলেন, ‘মুশতাককে মৃত অবস্থায় দেখতে হবে তা কোনোদিনও ভাবিনি।’

গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কারাগারের ভেতরেই মুশতাক আহমেদ হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন। কারা হাসপাতালে নেওয়ার পর তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক রাত ৮টা ২০ মিনিটে তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মুশতাক আহমেদ নারায়ণগঞ্জের আড়াই হাজার থানার ছোট বালাপুর এলাকার মো. আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে।

তিনি ঢাকা মহানগর পুলিশের রমনা মডেল থানার ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় অভিযুক্ত। ২০২০ সালের ৬ মে ঢাকা জেলে ও পরে ২৪ আগস্ট থেকে তিনি কাশিমপুর হাই-সিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি ছিলেন।

Comments

The Daily Star  | English

When the system develops rust, police can see even dead men running

The dead are thought to be free from mortal matters. But are they? Consider Amin Uddin Mollah. The Gazipur man has long since died, on January 25, 2021, to be precise, and yet he “took part” in attacking police personnel with a bomb on the night of October 28, 2023

1h ago