বাভুমা, এলগারকে অধিনায়ক বানাল দক্ষিণ আফ্রিকা

কুইন্টন ডি কককে তিন সংস্করণের অধিনায়কের দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা।
bavuma and elgar
ছবি: টুইটার

কুইন্টন ডি কককে তিন সংস্করণের অধিনায়কের দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। টেস্টের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে অভিজ্ঞ টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান ডিন এলগারকে। ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টির দায়িত্ব পেয়েছেন মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান টেম্বা বাভুমা।

টুইটারে নিজেদের স্বীকৃত পেজে নতুন অধিনায়ক বেছে নেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকা (সিএসএ)। বাভুমা ও এলগার দুজনকেই দীর্ঘমেয়াদী দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। ২০২১ ও ২০২২ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পাশাপাশি ২০২৩ ওয়ানডে বিশ্বকাপে প্রোটিয়াদের নেতৃত্ব দেবেন বাভুমা। বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের পরের চক্রে দায়িত্ব সামলাবেন এলগার।

ফ্যাফ ডু প্লেসি সরে দাঁড়ানোর পর সংকটময় পরিস্থিতিতে দক্ষিণ আফ্রিকার নেতৃত্ব বুঝে নিয়েছিলেন ডি কক। সেজন্য এই উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যানকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন দেশটির বোর্ডের ক্রিকেট পরিচালক গ্রায়েম স্মিথ। সাবেক এই ক্রিকেটার বলেছেন, ‘সীমিত ওভারের সংস্করণে এতদিন দলের অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করায় আমরা কুইন্টনের প্রতি কৃতজ্ঞ। জাতীয় নির্বাচক প্যানেল টেস্ট অধিনায়ক খোঁজার সময়ে সে সামনে এগিয়ে আসায় তার কাছে আমরা ঋণী।’

গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে ডু প্লেসি টেস্ট অধিনায়কত্ব ছাড়েন। এরপর উপযুক্ত কাউকে না পেয়ে গত ডিসেম্বরে অস্থায়ীভাবে ডি কককে দেওয়া হয় দায়িত্ব। সীমিত ওভারের দুটি সংস্করণে অবশ্য আগে থেকেই দলনেতার ভূমিকায় ছিলেন তিনি।

তবে টেস্ট অধিনায়ক হওয়ার পর থেকে ডি ককের পারফরম্যান্সের গ্রাফ ছিল নিম্নমুখী। ব্যাট হাতে ব্যর্থ হওয়ার পাশাপাশি দলকেও উজ্জীবিত করতে পারছিলেন না। ফলে করোনাভাইরাসের ধাক্কা সামলে ক্রিকেট ফেরার পর শ্রীলঙ্কাকে ২-০ ব্যবধানে টেস্ট হারালেও পাকিস্তানের মাটিতে একই ব্যবধানে হার মানে দক্ষিণ আফ্রিকা। নিজেদের মাঠে ইংল্যান্ডের কাছেও ৩-০ ব্যবধানে টি-টোয়েন্টি সিরিজ হেরেছিল তারা।

অভিজ্ঞ এলগার ৬৭ টেস্টে ৩৯.৮১ গড়ে করেছেন চার হাজার ২৬০ রান। তার নামের পাশে সেঞ্চুরি আছে ১৩টি। ৩০ বছর বয়সী বাভুমা জাতীয় দলের জার্সিতে ৪৪ টেস্ট, ছয় ওয়ানডে ও আট টি-টোয়েন্টি খেলেছেন। অতীতে ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক হিসেবে এলগার দুটি টেস্টে নেতৃত্ব দিলেও বাভুমার আন্তর্জাতিক মঞ্চে এমন কিছুর অভিজ্ঞতা নেই।

নতুন দুই অধিনায়কের প্রতি শুভকামনা জানিয়ে স্মিথ বলেছেন, ‘টেম্বা ও ডিনকে দায়িত্ব দিয়ে আমরা খুশি। আমার বিশ্বাস, তারা প্রোটিয়াদের জয়ের পথে ফিরিয়ে আনবে।’

Comments