প্রবাসে

জাপানে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন

শ্রদ্ধা, ভালোবাসা এবং রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপিত হয়েছে জাপানে।
টোকিও’র বাংলাদেশ দূতাবাসে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস-২০২১ পালিত হয়। ছবি: সংগৃহীত

শ্রদ্ধা, ভালোবাসা এবং রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপিত হয়েছে জাপানে।

আজ বুধবার ১৭ মার্চ টোকিও’র বাংলাদেশ দূতাবাসে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস-২০২১ উদযাপন করা হয়।

অনুষ্ঠানের শুরুতে জাপানে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত শাহাবুদ্দিন আহমদের নেতৃত্বে দূতাবাসের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অংশগ্রহণে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়। এসময় দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

এরপর দূতাবাস প্রাঙ্গণে জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে রাষ্ট্রদূত শাহাবুদ্দিন আহমেদ আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন।

পতাকা উত্তোলন শেষে জাতির পিতা, তার পরিবারের শাহাদাতবরণকারী সদস্য ও স্বাধীনতা যুদ্ধে জীবন উৎসর্গকারী বীর মুক্তিযোদ্ধাদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত এবং বাংলাদেশের সমৃদ্ধি কামনা করা হয়।

এরপর দূতাবাস মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধু অডিটোরিয়ামে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস-২০২১ উপলক্ষে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি,  প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করে শোনানো হয়।

এ সময় রাষ্ট্রদূত শাহাবুদ্দিন আহমদ বলেন, ‘আজ ১৭ মার্চ, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০০তম জন্মবার্ষিকী। দিনটি আমাদের জন্য আনন্দের ও গর্বের। কারণ, বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে বাংলাদেশ নামক রাষ্ট্রের সৃষ্টি হতো না, আমরা পেতাম না স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্র। বঙ্গবন্ধু শিশুদের ভালোবাসতেন, তাই আনন্দঘন এই দিনকে সরকার জাতীয় শিশু দিবস হিসেবেও পালন করছে। এই শুভ দিনে আমি সব শিশু-কিশোরকে জানাই আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।’

রাষ্ট্রদূত শাহাবুদ্দিন আহমদ গভীর শ্রদ্ধায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্মরণ করেন এবং বঙ্গবন্ধুর কর্মময় জীবন সম্পর্কে বিশদ আলোচনা করেন।

তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু ছিলেন বাংলাদেশের স্বাধীনতার স্বপ্নদ্রষ্টা ও মুক্তির দূত। বঙ্গবন্ধু শুধু একক ব্যক্তিসত্তা নন, তিনি এক অনন্য প্রতিষ্ঠান। বঙ্গবন্ধু হলেন সার্বজনীন। তার আকাশের মতো বিশাল হৃদয়জুড়ে ছিল মানুষের প্রতি মায়া, মমতা ও ভালোবাসা।’

অনলাইন আলোচনায় আমন্ত্রিত জাপানি নাগরিক ও প্রবাসী বাংলাদেশিরা অংশগ্রহণ করেন। তারা জাতির জনকের স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভিশন-২০৪১ বাস্তবায়ন করে দেশকে উন্নত ও সমৃদ্ধিশালী করার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

এ ছাড়া, প্রবাসী বাংলাদেশিদের পরিবেশন করা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের ভিডিওচিত্র এবং জাতির জনকের জীবন ও কর্মের ওপর বিশেষ প্রামাণ্যচিত্র ‘আমাদের বঙ্গবন্ধু’ প্রদর্শন করা হয়।

এ বছর মুজিববর্ষ উপলক্ষে টোকিও দূতাবাস স্বাস্থ্যবিধি মেনে অনলাইনে কুইজ ও শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছিল। আজ প্রতিযোগিতার ১৭ জন অংশগ্রহণকারীকে বিজয়ী নির্বাচিত করা হয়েছে। করোনা পরিস্থিতির কারণে বিজয়ীদের সনদ ও পুরস্কার ডাকযোগে পাঠানো হবে বলে জানিয়েছে দূতাবাস কর্তৃপক্ষ।

অনুষ্ঠানে পরিবেশন করা হয়ে সম্মিলিত কণ্ঠে মুজিববর্ষের ওপর নির্মিত সূচনা সঙ্গীত ‘তুমি বাংলার ধ্রুবতারা...’।

[email protected]

আরও পড়ুন:

Comments

The Daily Star  | English

Missing AL MP’s body found in Kolkata

The body of Awami League MP Anwarul Azim Anar, who went missing in India last week, was recovered from a flat in Koltaka this morning

5m ago