মাঠে গড়াচ্ছে আইপিএল, রাতে মুখোমুখি মুম্বাই-বেঙ্গালুরু

প্রথম দিনেই মাঠে নামছে সবশেষ দুই আসরের চ্যাম্পিয়ন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। উদ্বোধনী ম্যাচে রোহিত শর্মার দলের প্রতিপক্ষ বিরাট কোহলির নেতৃত্বাধীন রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু।
rohit and kohli

ভারতে করোনাভাইরাসের ঊর্ধ্বগতির মাঝেই শুরু হচ্ছে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল)। বৈশ্বিক মহামারির কারণে গত আসরটি অনুষ্ঠিত হয়েছিল সংযুক্ত আরব আমিরাতে। এবার ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক এই টি-টোয়েন্টি প্রতিযোগিতাটির পুরোটাই হবে ভারতে।

প্রথম দিনেই মাঠে নামছে সবশেষ দুই আসরের চ্যাম্পিয়ন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। পাঁচবার শিরোপা জিতে ইতোমধ্যে আইপিএলের সফলতম দল হিসেবে নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করেছে তারা। উদ্বোধনী ম্যাচে রোহিত শর্মার দলের প্রতিপক্ষ বিরাট কোহলির নেতৃত্বাধীন রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু। চেন্নাইয়ের এমএ চিদাম্বরম স্টেডিয়ামে খেলা শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত আটটায়।

এবার হোম-অ্যাওয়ে ভিত্তিতে খেলা হবে না। ছয়টি নির্দিষ্ট ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত হবে সবগুলো ম্যাচ। সেগুলো হলো চেন্নাই, মুম্বাই, কলকাতা, বেঙ্গালুরু, আহমেদাবাদ ও দিল্লি। লিগ পর্বে মাঠে গড়াবে মোট ৫৬টি ম্যাচ। আহমেদাবাদ ও দিল্লিতে আটটি করে খেলা হবে। বাকি ভেন্যুগুলোতে হবে দশটি করে ম্যাচ।

লিগ পর্বে প্রতিটি দল চারটি ভেন্যুতে খেলবে। এমনভাবে সূচি বানানো হয়েছে যেন অংশগ্রহণকারী আটটি দলকে মাত্র তিনবার করে ভ্রমণ করতে হয়। কিন্তু কোনো দলই নিজেদের মাঠে খেলার সুযোগ পাবে না। সবাইকে খেলতে হবে নিরপেক্ষ ভেন্যুতে। এবারই প্রথম এমন নিয়ম দেখা যাবে আইপিএলে।

পুরো আসরে ১১টি দিনে থাকছে দুটি করে ম্যাচ। বাকি দিনগুলোতে হবে একটি করে লড়াই। বিকালের ম্যাচগুলো বাংলাদেশ সময় চারটায় এবং রাতের ম্যাচগুলো আটটায় মাঠে গড়াবে।

বাংলাদেশের দুজন ক্রিকেটার আছেন আইপিএলের ১৪তম আসরে। বাঁহাতি অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান কলকাতা নাইট রাইডার্স এবং বাঁহাতি পেসার মোস্তাফিজুর রহমান রাজস্থান রয়্যালসের জার্সিতে খেলবেন।

আইপিএলের জৈব সুরক্ষা বলয়ের মাঝেও হানা দিয়েছে করোনাভাইরাস। এখন পর্যন্ত বিভিন্ন ফ্র্যাঞ্চাইজির চার ক্রিকেটার আক্রান্ত হয়েছেন। পজিটিভ হয়েছেন স্টেডিয়ামের বেশ কিছু মাঠকর্মী আর ইভেন্ট ম্যানেজারও। সবমিলিয়ে সংখ্যাটা ত্রিশের বেশি। পরিস্থিতি যাতে নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে না যায় সেজন্য আপ্রাণ চেষ্টা করছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)।

ইতোমধ্যে নতুন কিছু ব্যবস্থাও গ্রহণ করা হয়েছে। জৈব সুরক্ষা বলয় সঠিকভাবে মানা হচ্ছে কিনা, তা নিশ্চিত করতে প্রতিটি দলের সঙ্গে থাকবেন আলাদা একজন কর্মকর্তা। মাস্ক ছাড়া খেলোয়াড়রা হোটেল থেকে বের হতে পারবেন না। মাঠ ছাড়ার সময়ও সবার মুখে মাস্ক থাকতে হবে। তাছাড়া, ক্রিকেটারদের জন্য বিমানবন্দরে আলাদা চেক-ইনের ব্যবস্থা রাখার অনুরোধও করেছে বিসিসিআই।

Comments

The Daily Star  | English
Shipping cost hike for Red Sea Crisis

Shipping cost keeps upward trend as Red Sea Crisis lingers

Shafiur Rahman, regional operations manager of G-Star in Bangladesh, needs to send 6,146 pieces of denim trousers weighing 4,404 kilogrammes from a Gazipur-based garment factory to Amsterdam of the Netherlands.

8h ago