‘ভারত থেকে পালিয়ে আসা যুবক’ কোভিড পজিটিভ, বাড়ি লকডাউন

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলায় করোনায় আক্রান্ত ২৯ বছর বয়সী এক যুবকের বাড়ি লকডাউন করেছে উপজেলা প্রশাসন। আজ বুধবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) শাহ নুসরাত জাহান দ্য ডেইলি স্টারকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলায় করোনায় আক্রান্ত ২৯ বছর বয়সী এক যুবকের বাড়ি লকডাউন করেছে উপজেলা প্রশাসন। আজ বুধবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) শাহ নুসরাত জাহান দ্য ডেইলি স্টারকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘গতকাল দুপুরে স্থানীয় বাসিন্দাদের মাধ্যমে আমরা জানতে পারি, তারাব পৌর এলাকার এক যুবক ভারতে থেকে পালিয়ে এসেছেন। সোমবার রাতে তিনি তারাব এলাকায় আসেন। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া দিয়ে এসেছেন কিন্তু বন্দর হয়ে আসেননি, অবৈধ পথে এসেছেন। তার কাছে পাসপোর্ট নেই। আমার ওই যুবকের পরিবারের সবার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য ল্যাবে পাঠিয়েছিলাম। আজ সকালে রিপোর্ট এসেছে— শুধু ওই যুবক করোনায় আক্রান্ত।’

‘যে কারণে বাড়িটি লকডাউন করা হয়েছে। ভারতফেরত যুবককে রুম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। বাকিদেরও আইসোলেশনে থাকতে বলা হয়েছে। গ্রাম পুলিশের দুই সদস্যকে বাড়ির সামনে দায়িত্ব পালন করবেন। তাদের উপজেলা প্রশাসনের ফোন নম্বর দেওয়া হয়েছে। কোনো কিছু প্রয়োজন হলে জানাতে বলা হয়েছে, জানালে আমরা বাড়িতে পৌঁছে দেবো। আমরা ইতোমধ্যে আইসিডিডিআর,বির সঙ্গে যোগাযোগ করেছি। একটি টিম এসে আক্রান্ত যুবকের নমুনা সংগ্রহ করবে। রিপোর্ট এলে নিশ্চিত হওয়া যাবে আক্রান্ত যুবকের শরীরে করোনার ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট কি না’— বলেন তিনি।

নুসরাত জাহান আরও বলেন, ‘আক্রান্ত যুবক শারীরিকভাবে সুস্থ আছেন। তার কোনো উপসর্গ দেখা দেয়নি। তারপরও টেলিমেডিসিন সেবা দেওয়া হচ্ছে। তিনি কেন ভারতে গিয়েছিলেন সেটা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। দূরত্ব বজায় রেখে আমরা তার কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করেছি, তিনি সুস্থ হলে জিজ্ঞাসাবাদ করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

আক্রান্ত যুবকের পরিবারের সদস্যদের বরাত দিয়ে তারাব পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. মাহবুবুর রহমান ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘ওই যুবক তিন বছর ধরে ভারতের চেন্নাইয়ে একটি পোশাক কারখানায় কাজ করেন। দালালদের মাধ্যমে আসা-যাওয়া করতেন। ভারতের করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ রূপ নিলে অবৈধ পথে সীমান্ত পার হয়ে তিনি দেশে আসেন।’

Comments

The Daily Star  | English

Dhaka footpaths, a money-spinner for extortionists

On the footpath next to the General Post Office in the capital, Sohel Howlader sells children’s clothes from a small table.

3h ago