ঢাকামুখী শতাধিক বাস সিরাজগঞ্জে আটকে দিয়েছে পুলিশ

সিরাজগঞ্জে বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম পাড়ে মহাসড়কে ঢাকামুখী শতাধিক যাত্রীবোঝাই বাস আটকে দিয়েছে পুলিশ। করোনা সংক্রমণ রুখতে চলমান বিধিনিষেধের মধ্যে ঈদের ছুটি কাটিয়ে কর্মস্থলে ফিরতে গিয়ে এসব বাসের যাত্রীরা এখন রয়েছেন বিপাকে।

সিরাজগঞ্জে বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম পাড়ে মহাসড়কে ঢাকামুখী শতাধিক যাত্রীবোঝাই বাস আটকে দিয়েছে পুলিশ। করোনা সংক্রমণ রুখতে চলমান বিধিনিষেধের মধ্যে ঈদের ছুটি কাটিয়ে কর্মস্থলে ফিরতে গিয়ে এসব বাসের যাত্রীরা বিপাকে পড়েছেন।

মহামারিতে দূরপাল্লার বাস বন্ধ থাকার পরও ঈদের আগে অনেক বাস যাত্রী নিয়ে উত্তরের বিভিন্ন জেলায় গিয়েছিল। পুলিশ বলেছে, উত্তরবঙ্গ থেকে ঢাকাগামী এসব বাস আটকে দেওয়া হয়েছে। আজ সকাল থেকেই সিরাজগঞ্জে বঙ্গবন্ধু সেতুর সংযোগ সড়কের কড্ডা এবং হাটিকুমরুল এলাকায় বাস আটকাতে শুরু করে পুলিশ। পরে বাসগুলোকে উল্টোপথে ফিরিয়ে দেওয়া হয়।

বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মোসাদ্দেক হোসেন দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, বঙ্গবন্ধু সেতু দিয়ে কোনো যাত্রীবাহী বাস পার হতে দেওয়া হবে না। সকাল থেকে পুলিশ যাত্রীবাহী বাসগুলোকে বিভিন্ন পয়েন্টে আটকে দেয়।

বঙ্গবন্ধু সেতুতে যাত্রীবাহী বাস চলাচল বন্ধ করতে সংযোগ সড়কে হাইওয়ে পুলিশ কাজ করছে বলে জানান তিনি।

হাটিকুমরুল হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. শাজাহান দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, সকাল থেকে বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কের হাটিকুমরুল ও কডডা এলাকায় ঢাকাগামী প্রায় শতাধিক যাত্রীবাহী বাস আটকে দেওয়া হয়েছে। দুপুর থেকে অভিযান জোরদার করা হয়েছে।

বাস চলাচল বন্ধ করা হলেও ছোট ও হাল্কা যানবাহন চলাচল বন্ধ করা হয়নি ফলে অনেকেই বিকল্প উপায়ে ঢাকা ও এর আশপাশের জেলায় কর্মস্থলে ফিরবার চেষ্টা করছেন।

ঢাকার একটি গার্মেন্টস কারখানার কর্মকর্তা ফারুক হোসেন দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, দুই দিনের ছুটি নিয়ে পরিবারসহ পাবনায় এসে এখন ফিরতি যানবাহন পাওয়া যাচ্ছে না।

সোমবারের মধ্যে কর্মস্থলে পৌঁছানোর কথা থাকলেও রোববার সারাদিন চেষ্টা করেও ঢাকা ফিরতে পারেননি তিনি।

আরও পড়ুন:

২৩ মে পর্যন্ত বিধি-নিষেধ বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন, চলবে না দূরপাল্লার বাস-ট্রেন-লঞ্চ

Comments