নতুন চুক্তি নিয়ে ‘বিদ্রোহের হুমকি’ শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটারদের

বর্তমানে ওয়ানডে সিরিজ খেলতে বাংলাদেশ সফরে আছে শ্রীলঙ্কা দল। নতুন বার্ষিক চুক্তিতে এই দলের কেউও এখন সই করেননি। এই সফরে তারা খেলছেন সফরভিত্তিক চুক্তিতে ।
sri lanka cricket
ফাইল ছবি: এএফপি

পারফরম্যান্সভিত্তিক চুক্তিতে নতুন পয়েন্ট পদ্ধতি পরিষ্কার না করলে অবসরের হুমকি দিয়েছেন কয়েকজন শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটার। শ্রীলঙ্কার দ্য সানডে টাইমস পত্রিকা এমন খবরই দিয়েছে।

বর্তমানে ওয়ানডে সিরিজ খেলতে বাংলাদেশ সফরে আছে শ্রীলঙ্কা দল। নতুন বার্ষিক চুক্তিতে এই দলের কেউও এখন সই করেননি। এই সফরে তারা খেলছেন সফরভিত্তিক চুক্তিতে ।

গত মাসে চুক্তির নিয়ম বদল করতেই তৈরি হয় শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে ক্রিকেটারদের মনোমালিন্য। নতুন চুক্তির নিয়মে সবশেষ দুই বছরে আন্তর্জাতিক ও ঘরোয়া ক্রিকেটে পারফরম্যান্স, সার্বিক ফিটনেস, শৃঙ্খলা, দলে অবদান, পেশাদারিত্ব, নেতৃত্ব এরকম কয়েকটি ক্রাইটেরিয়া যুক্ত করা হয়েছে।

এসবের ভিত্তিতে পয়েন্ট ও খেলোয়াড়দের গ্রেড নির্ধারণ করা হয়েছে। যার ফলে অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস, দীনেশ চান্দিমাল, দিমুথ করুনারত্নে, সুরাঙ্গা লাকমালদের মতো সিনিয়র ক্রিকেটারদের আয় কমে গেছে।

ক্রিকেটাররা তাই জানিয়েছেন, কীভাবে এই পয়েন্ট সিস্টেম কাজ করছে তা বিস্তারিত তাদের জানাতে হবে। না জানালে এমনকি অবসরও নিয়ে ফেলবেন তারা।

তবে শ্রীলঙ্কান ক্রীড়া মন্ত্রীর নিয়োগপ্রাপ্ত পাঁচ সদস্যের ব্যবস্থাপনা কমিটি ক্রিকেটারদের কথা আমলে না নিয়ে নতুন চুক্তি বাস্তবায়নেই বদ্ধ পরিকর। এই কমিটির সদস্য অ্যাশলি ডি সিলভা জানিয়েছেন, চুক্তিতে সই করার জন্য চলতি মাসের শেষ পর্যন্ত ক্রিকেটারদের সময় বেধে দেওয়া হয়েছে।

খেলোয়াড়দের প্রতিনিধি আইনজীবী নিশান সিডনি প্রেমাথিরত্নে লঙ্কান সানডে টাইমসকে জানান, চুক্তিতে সই করতে আপত্তি নেই তার মক্কেলদের। তবে তার আগে পরিষ্কার করতে হবে পয়েন্ট সিস্টেম, ‘খেলোয়াড়দের প্রত্যেকের পয়েন্ট সিস্টেম কীভাবে কাজ করছে তা জানার অধিকার আছে। খেলোয়াড়রা মনে করেন এই পদ্ধতি তখনই কাজ করবে যখন সব পক্ষের মধ্যে সব কিছুর ব্যাপারে পরিষ্কার ধারণা থাকবে।’

তবে শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট বোর্ড জানিয়েছে, তাদের চালু করা পদ্ধতি একান্তই গোপনীয়। তা প্রকাশ করা যাবে না। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বোর্ডের এক কর্মকর্তা দ্য সানডে টাইমসকে দেন কড়া বার্তা, ‘শুধু সিনিয়র বা ব্যক্তিগত পছন্দ- অপছন্দের জায়গা থেকে আমরা চুক্তি করব না। খেলোয়াড়দের সব মিলিয়ে পারফরম্যান্স কেমন সেটাই কেবল দেখা হবে।’

কোন ক্রিকেটার কোন সংস্করণ খেলবেন কিংবা কোন সংস্করণে বিবেচিত হবেন তাও আমলে নেওয়া হয়েছে চুক্তিতে।  আগের চুক্তিতে বার্ষিক ১ লাখ ৩০ হাজার ডলার পারিশ্রমিক ছিল ম্যাথুসের। নতুন চুক্তিতে তিনি কেবল টেস্টের জন্য বিবেচিত হওয়ায় তার পারিশ্রমিক কমেছে ৫০ হাজার ডলার। ৩০ হাজার ডলার পারশ্রমিক কমছে দিমুথ করুনারত্নেরও।

তরুণ ক্রিকেটারদের মধ্যে পাথুম নিশানকা, ওয়েইন্দু হাসারাঙ্গা, লাসিথ এম্বুলদেনিয়াদের গ্রেডে উন্নতি হচ্ছে।

নতুন চুক্তিতে এ-১ গ্রেডে আছেন কেবল দুজন। কিপার ব্যাটসম্যান নিরোশান ডিকভেলা ও অলরাউন্ডার ধনঞ্জয়া ডি সিলভার পারিশ্রমিক ধরা হয়েছে ১ লাখ ডলার।

এই পারিশ্রমিকের বাইরেও দল ভাল করলে আকর্ষণীয় বোনাস থাকছে। তবে বোনাস কেবল মিলবে র‍্যাঙ্কিংয়ের উপরের দলগুলোকে হারাতে পারলেই।

ফিটনেস নিয়ে কড়াকড়ি

কারো পারফরম্যান্স ভাল কিন্তু ফিটনেসে ঘাটতি আছে তাহলেও ভুগতে হবে বিস্তর। ওপেনিং ব্যাটসম্যান আভিস্কা ফার্নেন্দো যেমন ফিটনেস পরীক্ষায় পাশ না করায় বাংলাদেশ সফরের দলে ঠাঁই পাননি। ৮ মিনিট ৩৫ সেকেন্ডের মধ্যে তাকে ২ কিলোমিটার দৌড়াতে বলা হয়েছিল। তিনি সময় নেন এক মিনিট বেশি। ইংল্যান্ড সফরে জায়গা পেতে হলে ফিটনেসে উন্নতির বিকল্প নেই ২৩ পেরুনো বাঁহাতি ব্যাটসম্যানের। 

পাইপলাইনে বরাদ্দ বাড়ছে

জাতীয় দলের খেলোয়াড়দের চুক্তিতে পারফরম্যান্সের কড়াকড়ি আনলেও ঘরোয়া ক্রিকেটাররা লাভবান হতে যাচ্ছেন। শ্রীলঙ্কান বোর্ড সিদ্ধান্ত নিয়েছে ঘরোয়া ক্রিকেটারদের আর্থিক নিরাপত্তা আরও নিশ্চিত করা হবে। আগে যে ক্রিকেটার এক মৌসুমে ৪ হাজার ডলার পেতেন, তিনি এখন সাড়ে ১২ হাজার ডলার পর্যন্ত পেতে পারেন।

Comments

The Daily Star  | English

Coastal villagers shifted to LPG from Sundarbans firewood

'The gas cylinder has made my life easy. The smoke and the tension of collecting firewood have gone away'

1h ago