ফরিদপুরে আ. লীগের ২ পক্ষের সংঘর্ষে ৭ পুলিশসহ আহত অন্তত ২৩

ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। ময়েনদিয়া ও পরমেশ্বদী গ্রামে এ সংঘর্ষে সাত পুলিশসহ অন্তত ২৩ জন আহত হয়েছেন।
স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। ময়েনদিয়া ও পরমেশ্বদী গ্রামে এ  সংঘর্ষে সাত পুলিশসহ অন্তত ২৩ জন আহত হয়েছেন।

আজ বুধবার সকাল ৬টার দিকে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। সংঘর্ষে উভয়পক্ষের ২৫ থেকে ৩০টি ঘরবাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বোয়ালমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ নুরুল আলম সাংবাদিকদের বলেন, 'সংঘর্ষের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।'

ঘটনাস্থল থেকে কয়েকজনকে আটক করা হলেও, বিকেল ৫টা পর্যন্ত কোন পক্ষই সংঘর্ষের ঘটনায় থানায় লিখিত কোনো অভিযোগ করেনি বলে জানান ওসি।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, পরমেশ্বদী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক ও ময়েনদিয়া গ্রামের বাসিন্দা মান্নান মাতুব্বরের সঙ্গে একই ইউনিয়নের পরমেশ্বদী গ্রামের বাসিন্দা ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি মাসুদ শেখের মধ্যে এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। এ বিরোধকে কেন্দ্র করে বুধবার ভোর ৬টার দিকে দুই পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পরে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।  

এ সংঘর্ষের ঘটনায় সাত পুলিশ সদস্যসহ অন্তত ২৩ আহত হয়েছেন জানিয়ে বোয়ালমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক কে এম মাহমুদুল রহমান দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'সাত পুলিশ সদস্যকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়। ২৩ জনের মধ্যে চার জন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি আছেন। বাকিদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।'

মান্নান মাতুব্বরের ছোট ভাই ছিদ্দিক মাতুব্বর দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'মাসুদ শেখের লোকজন বিভিন্ন সময় আমাদের দলের লোকজনের ওপর হামলা করে। বুধবার ভোরে তার লোকজন আমার দলের আদা বিশ্বাস, বক্কার বিশ্বাসসহ কয়েকজনের বাড়িতে ভাঙচুর চালায়। খবর পেয়ে আমার লোকজন ঘটনাস্থলে গেলে সংঘর্ষ বেঁধে যায়।'

মাসুদ শেখ দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'আমার দলের লোকজন ময়েনদিয়া বাজারে বাজার করতে গেলে মান্নান মাতুব্বর লোকজন নিয়ে তাদের মারধর করে। আমার লোকজনকে বিভিন্ন ভয়ভীতি দেখিয়ে জোর করে তার দলে নিতে চায়। গত সোমবার আমার চাচা ময়েনদিয়া বাজারে গেলে তাকে আক্রমণের চেষ্টা করলে তিনি দ্রুত মোটরসাইকেলে করে স্থান ত্যাগ করেন। এ ঘটনায় বোয়ালমারী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দেওয়া আছে।'

'বুধবার সকালে মান্নান মাতুব্বরের লোকজন আমার গ্রুপের লোকদের উপর অতর্কিতে আক্রমণ করে ও বাড়িঘর ভাঙচুর করে,' বলেন তিনি।

Comments

The Daily Star  | English

'Will not spare anyone if attacked'

Quader vows response if any Bangladeshi harmed by Myanmar firing tensions

40m ago