পিএসএল আয়োজিত হবে আবুধাবিতে

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে দেশটির ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)।
ছবি: টুইটার

পাকিস্তান সুপার লিগের (পিএসএল) বাকি অংশ আগামী জুনে আয়োজিত হবে আবুধাবিতে। বৃহস্পতিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে দেশটির ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)।

২৪ ঘণ্টা আগেও পিএসএলের আয়োজনকে ঘিরে ছিল ঘোর শঙ্কা। কারণ, সংযুক্ত আরব আমিরাত সরকারের কাছ থেকে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে ছাড় পাচ্ছিল না পিসিবি। ফলে ছয় ফ্র্যাঞ্চাইজি ও অফিশিয়ালদের পাকিস্তান থেকে যাত্রা করার সূচি পিছিয়ে দিতে বলা হয়েছিল। আর যেহেতু আগামী ১ জুন থেকে পিএসএল ফের মাঠে গড়ানোর কথা রয়েছে, তাই সময় স্বল্পতায় আসরটি আরেক দফা স্থগিতের সম্ভাবনাও জোরালো হয়েছিল। তবে রাত পোহাতেই কেটে গেছে সব অনিশ্চয়তা।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে পিসিবি জানিয়েছে, যেসব বিষয়ে অনুমোদন ও ছাড় পাওয়া নিয়ে ঝামেলা লেগেছিল, সেগুলো তারা পেয়ে গেছে আরব আমিরাত সরকারের কাছ থেকে। তাই অনলাইন প্ল্যাটফর্মে বৈঠক করে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোকে পিএসএল আয়োজনের অগ্রগতি সম্পর্কে জানাবে তারা। পাশাপাশি সবকিছু চূড়ান্ত করতে খুঁটিনাটি বিষয় নিয়েও হবে আলোচনা। তবে এটা প্রায় নিশ্চিত যে, পিএসএলের সূচিতে বদল আসবে।

করোনাভাইরাসের কারণে ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে আরব আমিরাতে প্রবেশের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। তবে নিয়মটি শিথিল করতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সঙ্গে ঐকমত্যে পৌঁছেছে পিএসএল আয়োজকরা। এই দেশ দুটি থেকে আসরটি সম্প্রচারের সঙ্গে জড়িত যেসব স্টাফ আবুধাবিতে যাবেন, তাদের নিতে হবে ভাড়া করা বিমানে। তাদেরকে খেলোয়াড়দের থেকে আলাদা হোটেলে কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে ১০ দিন।

ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর খেলোয়াড় ও কর্মকর্তাদের কোয়ারেন্টিনে থাকার মেয়াদ অবশ্য সাত দিন। তিনটি আলাদা হোটেলের প্রতিটিতে থাকতে পারবে দুটি করে দল।

বৈশ্বিক মহামারির প্রাদুর্ভাবে বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কা থেকেও আরব আমিরাতে ভ্রমণের ব্যাপারে বিধিনিষেধ আছে। তাই তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ শেষে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার পিএসএলে অংশগ্রহণকারী ক্রিকেটাররা প্রথম যাবেন পাকিস্তানে। এরপর দেশটির লাহোর ও করাচি থেকে দুটি আলাদা ভাড়া করা বিমানে তাদের নিয়ে যাওয়া হবে আবুধাবিতে।

পিসিবির প্রধান নির্বাহী ওয়াসিম খান বলেছেন, ‘এই অগ্রগতিতে আমরা আনন্দিত যে, পিএসএলের অসমাপ্ত অংশ আবুধাবিতে আয়োজনের পথে যেসব বাধা ছিল, সেগুলো আমরা পেরিয়ে গিয়েছি এবং সবকিছু এখন প্রস্তুত। চূড়ান্ত বাধাগুলো দূর করতে সহযোগিতা ও পৃষ্ঠপোষকতা করার জন্য সংযুক্ত আরব আমিরাত সরকার, জাতীয় জরুরি সংকট ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ, আমিরাত ক্রিকেট বোর্ড ও আবুধাবি স্পোর্টস কাউন্সিলের কাছে আমরা কৃতজ্ঞ। কারণ, আমরা এই বিরাট প্রতিযোগিতাটি সম্পন্ন করার জন্য দৃঢ় অবস্থানে পৌঁছেছি।’

তিনি যোগ করেছেন, ‘পিসিবি এখন দলগুলোর মালিকদের সঙ্গে আলোচনা করে আসরসংক্রান্ত সবকিছু চূড়ান্ত করতে দ্রুতগতিতে কাজ করবে এবং সেসবের খুঁটিনাটি সময়মতো জানিয়ে দেওয়া হবে।’

গত ফেব্রুয়ারিতে করাচিতে পিএসএল শুরু হলেও জৈব-সুরক্ষা বলয়ে করোনা হানা দিলে আসরটি স্থগিত করা হয়। ৩৪টি ম্যাচের মধ্যে ১৪টি অনুষ্ঠিত হয়েছিল। জুনে করাচিতেই পিএসএলের বাকিটা আয়োজনের পরিকল্পনা ছিল পিসিবির। কিন্তু শহরটিতে করোনাভাইরাসের ঊর্ধ্বমুখী সংক্রমণের কারণে বেছে নেওয়া হয়েছে আবুধাবিকে।

Comments

The Daily Star  | English
Will the Buet protesters’ campaign see success?

Ban on student politics: Will Buet protesters’ campaign see success?

One cannot help but note the irony of a united campaign protesting against student politics when it is obvious that student politics is very much alive on the Buet campus

8h ago