শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌপথে মানুষের স্বস্তি

মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া ও মাদারীপুরের বাংলাবাজার নৌপথে এক মাস ১৯ দিন পর লঞ্চ চলাচল শুরু হয়েছে।
মানুষের সচেতনতার অভাবে স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষিত। ছবি: স্টার

মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া ও মাদারীপুরের বাংলাবাজার নৌপথে এক মাস ১৯ দিন পর লঞ্চ চলাচল শুরু হয়েছে।

অপেক্ষা করতে হচ্ছে না, গাড়ি সরাসরি যেতে পারছে ফেরিতে। লঞ্চ চলছে, তাই ফেরিতে হুড়োহুড়ি করে ওঠার প্রতিযোগিতাও নেই। পরিবহণ সংকট কেটে পাওয়া যাচ্ছে বাস।

ছোট-বড় মিলিয়ে চলছে ১৭টি ফেরি। শিমুলিয়াঘাট থেকে ঢাকার পথে চলছে ১৩০টি বাস। এতে করে গন্তব্যে পৌঁছাতে সময় কম লাগছে এবং ভোগান্তিও কমে এসেছে।

তবে, মানুষের সচেতনতার অভাবে স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষিত।

আজ সোমবার সকাল থেকে শিমুলিয়াঘাট পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকায় স্বস্তি ফিরেছে যাত্রীদের মাঝে।

সরেজমিন দেখা যায়, টার্মিনালে নোঙরের সময় যাত্রীরা গায়ে গা ঘেঁষে লঞ্চের সামনে এসে পড়েন। তাদের এ ব্যাপারে নিষেধ করলেও শুনছেন না। আবার অনেকে মাস্ক পড়েননি। সামাজিক দূরত্ব মেনে অবস্থানের জন্য বলা হলেও তাদের এ ব্যাপারে আগ্রহ নেই।

নৌ নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা বিভাগের সহকারী পরিচালক এবং সহকারী বন্দর ও পরিবহন কর্মকর্তা (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মো. শাহাদাত হোসেন বলেন, ‘এক মাস ১৯ দিন পর শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌপথে ৮৭টি লঞ্চের মধ্যে ৮১টি লঞ্চ চলাচল করছে। আজ সকাল সাড়ে ৬টা থেকে এগুলো চলাচল শুরু করেছে এবং রাত ৮টা পর্যন্ত চলবে। মাদারীপুরের বাংলাবাজার ঘাট থেকে ঢাকামুখী মানুষের উপস্থিতি বেশি। তুলনামূলক কম আছে দক্ষিণবঙ্গগামী মানুষ।’

তিনি আরও বলেন, ‘লঞ্চগুলো ধারণ ক্ষমতার অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলাচল করছে। একেকটি লঞ্চের ধারণ ক্ষমতা ১৫০ থেকে ২০০ জন পর্যন্ত। সেখানে ৭৫ থেকে ১০০ জন নেওয়া হচ্ছে। স্বাভাবিক সময়ে এ নৌপথের ভাড়া ৩৫ টাকা। কিন্তু এখন সরকারি নিয়ম অনুযায়ী করোনার কারণে ৫৫ টাকা রাখা হচ্ছে।’

‘স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে লঞ্চ টার্মিনালে মাইকিং করা হচ্ছে, সবাইকে শারীরিক দূরত্ব মেনে চলার জন্য অনুরোধ করা হচ্ছে,’ বলে যোগ করেন তিনি।

তিনি জানান, স্পিডবোটের নিবন্ধন প্রক্রিয়ার জন্য তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে। যার কারণে বর্তমানে চলাচল বন্ধ রয়েছে।

বিআইডব্লিউটিসির শিমুলিয়াঘাটের ব্যবস্থাপক সাফায়েত আহমেদ জানান, ভোর থেকে ১৭টি ফেরি চলাচল করছে। যানবাহনের কোনো চাপ নেই, অপেক্ষা ছাড়াই গাড়ি ফেরিতে উঠছে।

মাওয়া ট্রাফিক পুলিশ ইন্সপেক্টর জানান, ভোর থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত ২৫টি বাস শিমুলিয়াঘাট থেকে ফেরিতে বাংলাবাজার গেছে। দক্ষিণবঙ্গ থেকে ঢাকাগামী বেশ কিছু বাসও ফেরিতে পার হয়েছে। শিমুলিয়াঘাটে পারের অপেক্ষায় কোনো যানবাহন নেই।’

তিনি জানান, স্বাভাবিক সময়ে শিমুলিয়াঘাট থেকে ঢাকাগামী ২২০টির মতো বাস চলাচল করে থাকে। গতকালের নির্দেশনা মেনে ১৩০টি বাস চলাচল করছে। মোট সিটের অর্ধেক যাত্রী বহন করা হচ্ছে। স্বাভাবিক সময়ে এ ঘাট থেকে ঢাকার ভাড়া ৭০ টাকা। কিন্তু নির্দেশনা অনুযায়ী ১২০ টাকা রাখা হচ্ছে। এর বেশি ভাড়া আদায়ের অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।

Comments

The Daily Star  | English

44 lives lost to Bailey Road blaze

33 died at DMCH, 10 at the burn institute, and one at Central Police Hospital

8h ago