বাংলাদেশ থেকে কেউ ইসরায়েলে গেলে শাস্তি পেতে হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

বাংলাদেশ থেকে কেউ ইসরায়েলে গেলে তাকে শাস্তি পেতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।
রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় ফিলিস্তিনিদের ওষুধ-সামগ্রী উপহার হস্তান্তর অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন। ছবি: সংগৃহীত

বাংলাদেশ থেকে কেউ ইসরায়েলে গেলে তাকে শাস্তি পেতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।

আজ বুধবার রাজধানীর রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় আয়োজিত ফিলিস্তিনিদের ওষুধ-সামগ্রী উপহার হস্তান্তর অনুষ্ঠান তিনি এ মন্তব্য করেন।

ঢাকায় নিযুক্ত ফিলিস্তিনের রাষ্ট্রদূত ইউসুফ এস ওয়াই রামাদান এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা ইসরায়েলকে স্বীকৃতি দেই না। বাংলাদেশ থেকে কেউ ইসরায়েলে গেলে তাকে শাস্তি পেতে হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘ফিলিস্তিন আমাদের পুরনো বন্ধু। বাংলাদেশের জন্মের শুরু থেকেই আমরা ফিলিস্তিনকে সমর্থন করে যাচ্ছি। আমাদের জাতির পিতা সেই সময় নির্বর্তিত ফিলিস্তিনিদের প্রতি সমর্থন জানিয়েছিলেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘ফিলিস্তিনিদের প্রতি বাংলাদেশের অবস্থান খুবই স্পষ্ট। কয়েকটি গণমাধ্যমে এ নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি করছে যা খুবই দুর্ভাগ্যজনক। কারণ, আমরা নতুন ই-পাসপোর্ট দেওয়া শুরু করেছি। প্রশাসনিক কারণে সেখান থেকে “ইসরায়েল বাটিত” শব্দ দুটি ফেলে দেওয়া হয়েছে।’

‘পাসপোর্ট একটি পরিচয় মাত্র। পররাষ্ট্রনীতির সঙ্গে এর কোনো সম্পর্ক নেই। বঙ্গবন্ধুর সময়ে যে পররাষ্ট্রনীতি ছিল এখনও তা রয়েছে। আমরা ইসরায়েলকে স্বীকৃতি দিইনি। ১৯৭২ সালেই বাংলাদেশের কাছ থেকে ইসরায়েল স্বীকৃতি চেয়েছিল। কিন্তু, বাংলাদেশ সরকার স্বীকৃতি দেয়নি। এখনো আমরা ইসরায়েলকে স্বীকৃতি দিইনি,’ যোগ করেন তিনি।

আরও পড়ুন:

বাংলাদেশের পাসপোর্ট আগে আন্তর্জাতিক মানের ছিল না?

বাংলাদেশ এখনও ইসরায়েলকে স্বীকৃতি দেয় না: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

বাংলাদেশের কোনো সিদ্ধান্তের বিষয়ে কোনো দেশের রাষ্ট্রদূতের বক্তব্য অপ্রাসঙ্গিক: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ইসরায়েলি গণমাধ্যমে বাংলাদেশের নতুন পাসপোর্ট প্রসঙ্গ

Comments

The Daily Star  | English

Viqarunnisa restricts teachers from providing tuition

The teachers of Viqarunnisa Noon School and College in the capital cannot provide private coaching or tuition from now on

1h ago