সাগরে ৩ নম্বর সংকেত

গভীর সঞ্চারণশীল মেঘমালা, ভারী বর্ষণের সম্ভাবনা

উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও এর আশে পাশের উপকূলীয় এলাকায় একটি লঘুচাপ অবস্থান করছে। এর প্রভাবে বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় গভীর সঞ্চারণশীল মেঘমালা সৃষ্টি হচ্ছে। আগামী ৪৮ ঘণ্টা দেশের দক্ষিণাঞ্চলে হালকা থেকে মাঝারি এবং কোথাও কোথাও ভারী বর্ষণ হতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।
Signal
ছবি: সংগৃহীত

উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও এর আশে পাশের উপকূলীয় এলাকায় একটি লঘুচাপ অবস্থান করছে। এর প্রভাবে বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় গভীর সঞ্চারণশীল মেঘমালা সৃষ্টি হচ্ছে। আগামী ৪৮ ঘণ্টা দেশের দক্ষিণাঞ্চলে হালকা থেকে মাঝারি এবং কোথাও কোথাও ভারী বর্ষণ হতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

আজ শনিবার দুপুরে আবহাওয়াবিদ মো. বজলুর রশিদ দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘লঘুচাপের প্রভাবে স্থলভাগে তেমন বাতাস হবে না। তবে সাগরে ঢেউ থাকবে। ফলে ছোট ছোট ট্রলার-নৌকা ডুবে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে। যে কারণে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরগুলোতে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলোকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি এসে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের এখানে মৌসুমি নিম্নচাপ হলে দেখা যায় টানা বৃষ্টি হচ্ছে। এই লঘুচাপটি নিম্নচাপে রূপান্তরিত হলেও আমাদের এখানে তেমন প্রভাব পড়বে না। আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে মূলত উড়িষ্যা ও পশ্চিমবঙ্গের কিছু অংশ দিয়ে এটি স্থলভাগে উঠে পড়বে। আগামী ৪৮ ঘণ্টা ভারতে বৃষ্টি হবে। আমাদের দক্ষিণাঞ্চলের কোথাও কোথাও ভারী বর্ষণ হতে পারে। এ ছাড়া, রংপুর, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের অনেক জায়গায় এবং ঢাকা, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় হালকা থেকে মাঝারী ধরনের বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।’

আবহাওয়াবিদরা মনে করছেন, জুন মাসে দেশে স্বাভাবিক বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। এ মাসেই বঙ্গোপসাগরে দুটি লঘুচাপের সৃষ্টি হতে পারে। যার একটি নিম্নচাপ বা গভীর নিম্নচাপে রূপ নিতে পারে। উত্তর ও মধ্যাঞ্চল পর্যন্ত দুই থেকে তিন দিন মাঝারী বা তীব্র বজ্রঝড় হতে পারে। দেশের অন্যান্য জায়গায় এই ঝড় তিন থেকে চার দিন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। সেই সঙ্গে কোথাও কোথাও ভারী থেকে অতিভারী বর্ষণ হতে পারে। ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে দেশের উত্তরাঞ্চল, উত্তর-পূর্বাঞ্চল এবং দক্ষিণপূর্বাঞ্চের কিছু জায়গায় স্বল্প মেয়াদি আকস্মিক বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হতে পারে।

মে মাসে সারা দেশে স্বাভাবিকের চেয়ে ২৬ দশমিক ছয় শতাংশ কম বৃষ্টিপাত হয়েছে। তবে রাজশাহী ও রংপুর বিভাগে স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি ও খুলনা বিভাগে স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত হয়েছে।

Comments

The Daily Star  | English

Flash flood, waterlogging dampen Eid joy in Sylhet

In the last 24 hours till this morning, it rained 365mm in Sunamganj town, 285mm in Sylhet city, 252mm in Gowainghat's Jaflong, and 252mm in Laurer Garh in Tahirpur

1h ago