বাংলাদেশ থেকে অবৈধভাবে ভারতে প্রবেশকালে চীনা নাগরিক আটক

পশ্চিমবঙ্গের মালদা জেলায় এক চীনা নাগরিককে আটক করেছে ভারতের সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)। হ্যান জুনওয়ে নামের ওই চীনা নাগরিক বাংলাদেশ থেকে অবৈধভাবে ভারতীয় ভূখণ্ডে প্রবেশের চেষ্টা করছিলেন।
প্রতীকী ছবি | স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

পশ্চিমবঙ্গের মালদা জেলায় এক চীনা নাগরিককে আটক করেছে ভারতের সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)। হ্যান জুনওয়ে নামের ওই চীনা নাগরিক বাংলাদেশ থেকে অবৈধভাবে ভারতীয় ভূখণ্ডে প্রবেশের চেষ্টা করছিলেন।

টাইমস অব ইন্ডিয়া জানায়, সম্প্রতি সান জিয়াং নামে এক চীনা নাগরিককে এটিএস লখনৌ অবৈধভাবে ভারতীয় সিম কার্ড চীনে সরবরাহ করাসহ বেশ কয়েকটি অভিযোগে গ্রেপ্তার করে। জিজ্ঞাসাবাদে তিনি ব্যবসার পার্টনার হিসেবে হ্যান জুনওয়ের নাম উল্লেখ করেছিলেন। তিনি এটিএস লখনৌর ওই তদন্তের মামলায় অভিযুক্ত ছিলেন।

গত বৃহস্পতিবার মালদা জেলার বর্ডার আউট পোস্ট মালিক সুলতানপুরে আটক হওয়ার পর প্রথমে তিনি কর্মকর্তাদের জানান, গুরুগ্রামে ‘স্টার স্প্রিং’ নামে তার একটি হোটেল আছে। সেখানে কয়েকজন চীনা কর্মচারী রয়েছে।

তবে, জিজ্ঞাসাবাদের পর হ্যান জুনওয়ের পরিচয় নিশ্চিত করে বিএসএফ।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে, এটিএস মামলার কারণে চীন থেকে ভারতে প্রবেশের জন্য ভিসার আবেদন করতে পারছিলেন না জুনওয়ে। তাই তিনি অবৈধভাবে ভারতে প্রবেশের জন্য একটি বাংলাদেশি বিজনেস ভিসা জোগাড় করেন।

এর আগে চারবার ভারতে ভ্রমণ করেছেন হ্যান জুনওয়ে। এর মধ্যে ২০১০ সালে হায়দ্রাবাদ ও ২০১৯ সালের পর তিন বার দিল্লি-গুরুগ্রামে গেছেন তিনি।

বিএসএফ তার কাছ থেকে একটি অ্যাপল ল্যাপটপ, দুটি আইফোন, একটি বাংলাদেশি সিম, একটি ভারতীয় সিম, দুটি চাইনিজ সিম, দুটি পেন ড্রাইভ, তিনটি ব্যাটারি, দুটি ছোট টর্চ, পাঁচটি মানি ট্রানজেকশন মেশিন, দুটি এটিএম/মাস্টারকার্ড এবং কিছু যুক্তরাষ্ট্র, বাংলাদেশি ও ভারতীয় মুদ্রা উদ্ধার করে।

উদ্ধারকৃত জিনিসপত্রসহ তাকে কুলিয়াচকের গুলবগঞ্জের থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

শুক্রবার বিএসএফের এক কর্মকর্তা জানান, ওই চক্রটি আর্থিক জালিয়াতির জন্য সিমগুলো ব্যবহার করে থাকে। হ্যান জুনওয়ে ও তার সহযোগীরা অন্তর্বাসের ভেতর লুকিয়ে সিমগুলো চীনে পাঠান। চীনা নাগরিকদের একটি চক্র এ পর্যন্ত এক হাজার ৩০০ ভারতীয় সিম কার্ড অবৈধভাবে ভারত থেকে চীনে নিয়ে গেছেন। এই সিম কার্ডগুলো অ্যাকাউন্ট হ্যাক ও বিভিন্ন ধরনের আর্থিক জালিয়াতির জন্য ব্যবহৃত হয়।

Comments

The Daily Star  | English

Consumers brace for price shocks

Consumers are bracing for multiple price shocks ahead of Ramadan that usually marks a period of high household spending.

9m ago