সানিকে বর্ণবাদী গালি ও ঢিল ছুঁড়ে মারার অভিযোগ সাব্বিরের বিরুদ্ধে

বিকেএসপিতে এই ঘটনায় পাঁচ মিনিট খেলা বন্ধও ছিল। এই ব্যাপারে ক্রিকেট কমিটি অব ঢাকা মেট্রোপলিস (সিসিডিএম)’র কাছে লিখিত অভিযোগও করা হয়েছে।
Sabbir Rahman
ফাইল ছবি: ফিরোজ আহমেদ

শেখ জামাল ধানমন্ডির ক্রিকেটার ইলিয়াস সানিকে বর্ণবাদী গালি ও ঢিল ছুঁড়ে মারার ঘটনা ঘটিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে সাব্বির রহমানের বিরুদ্ধে। বিকেএসপিতে এই ঘটনায় পাঁচ মিনিট খেলা বন্ধও ছিল। এই ব্যাপারে ক্রিকেট কমিটি অব ঢাকা মেট্রোপলিস (সিসিডিএম)’র কাছে লিখিত অভিযোগও করা হয়েছে।

বুধবার সকালে বিকেএসপির তিন নম্বর মাঠে ম্যাচ চলছিল শেখ জামাল ধানমন্ডি ও ওল্ড ডিওএইচএসের।  দুপুরে খেলা ছিল লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের। শেখ জামালের ম্যাচ চলাকালীন রূপগঞ্জের দল মাঠে যাওয়ার সময় বাউন্ডারি লাইনের কাছে থাকা ইলিয়াসকে বর্ণবাদী গালিগালাজ করেন ও ইট ছুঁড়ে মারেন সাব্বির।

দ্য ডেইলি স্টারকে ক্রিকেটার ইলিয়াস বলেন, ‘আজ বিকেএসপিতে আমাদের খেলা ছিল সকালে। আমি ডিপে ফিন্ডিং করছিলাম। তখন রূপগঞ্জের বাসটা এসে থামে। সাব্বির নেমেই আমাকে চরম বর্ণবাদী গালি দিতে থাকে। আমি তবু উপেক্ষা করেছিলাম। কিন্তু সে পরে আমাকে ঢিল ছুঁড়ে মারে। তখন আমি আম্পায়ার ও ম্যাচ রেফারিকে জানাই। দুই-তিন মিনিট খেলা বন্ধ ছিল।’

ইলিয়াস জানান, ঘটনার সূত্রপাত হয়েছিল আগের ম্যাচে। তখনও সাব্বির তাকে অকথ্য ভাষায় গালি দিয়েছিলেন বলে অভিযোগ করেন তিনি, ‘রূপগঞ্জের বিপক্ষে আগের ম্যাচে আমি ব্যাট করতে যাওয়ার সময় সাব্বির আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেছিল।’

ইলিয়াস সানি। ফাইল ছবি
ঢিল ছুঁড়ে মারার ঘটনার পরই সিসিডিএমের কাছে চিঠি দিয়েছে শেখ জামাল। সিসিডিএম সদস্য সচিব আলি হোসেন দ্য ডেইলি স্টারকে এমন একটি চিঠির কথা নিশ্চিত করেছেন, ‘আমাদের কাছে একটা চিঠি এসেছে। ম্যাচ রেফারির রিপোর্টও আমরা পাব। সব মিলিয়ে আমরা তদন্ত করে ব্যবস্থা নিব।’

এই ব্যাপারে সাব্বির নিজেকে নির্দোষ দাবি করে দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘আমরা তখন মাঠে যাচ্ছিলাম। পেছন থেকে কেউ উনাকে কাইল্লা কাইল্লা বলে। সবাই উনাকে কাইল্লা বলে ডাকে। আমি বলিনি। উনি ভাবছে আমি বলেছি। আর ঢিল ছুঁড়ে মারার তো প্রশ্নই আসে না। ঢিল ছুঁড়ে মারা কি সহজ? আমি কেন এটা করতে যাব। উনি আমার সিনিয়র।’

আগের ম্যাচের গালিগালাজের কথাও তিনি অস্বীকার করেন, ‘উনি তখন ব্যাট করছিল। আমি বলছিলাম, মারেন না কেন। ডি/এল মেথডে দ্রুত রান করতে হবে। এর বেশি কিছু না। গালি দেইনি। আম্পায়ার তো ছিলেন।’

সানির দাবি, সেদিন সাব্বিরের গালি শুনে অবাক হয়েছিলেন তিনি। তবে ধৈর্য্য ধরে উপেক্ষা করেছিলেন। এদিন বাড়াবাড়ি রকমের আচরণ করায় নালিশ জানাতে বাধ্য হয়েছেন। 

Comments

The Daily Star  | English

The ones who stayed for some extra cash

Workers who came to the capital or stayed back to earn some extra cash during the Eid-ul-Azha thronged Gabtoli and nearby areas for buses

3h ago