বাংলাদেশ

সাতক্ষীরায় লকডাউন বাড়ল ২৪ জুন পর্যন্ত

করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে না আসায় সাতক্ষীরা জেলায় চলমান লকডাউন তৃতীয় দফায় আরও এক সপ্তাহ বাড়ানো হয়েছে। ফলে, আগামী ২৪ জুন রাত ১২টা পর্যন্ত এ জেলায় লকডাউন বহাল থাকবে।
স্টার ফাইল ছবি

করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে না আসায় সাতক্ষীরা জেলায় চলমান লকডাউন তৃতীয় দফায় আরও এক সপ্তাহ বাড়ানো হয়েছে। ফলে, আগামী ২৪ জুন রাত ১২টা পর্যন্ত এ জেলায় লকডাউন বহাল থাকবে।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এস. এম মোস্তফা কামাল দ্য ডেইলি স্টারকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি জানান, করোনা পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়ায় তৃতীয় দফায় আরও এক সপ্তাহ ১৮-২৪ জুন পর্যন্ত লকডাউন বাড়ানো হয়েছে। এছাড়া, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক (হাসপাতাল ও ক্লিনিকসমূহ) মো. ফরিদ হোসেন মিঞা স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতাল ঘোষণা করা হয়েছে। আজ সকাল থেকে ওই নির্দেশ কার্যকর করা হয়েছে। 

আজকের সভায় বলা হয়, সাতক্ষীরা করোনা পরিস্থিতি ক্রমাগত খারাপের দিকে যাওয়ায় গত ৩ জুন জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভায় ৫ জুন থেকে ১১ জুন পর্যন্ত এক সপ্তাহের লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছিল। তারপর থেকে জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও স্বাস্থ্য প্রশাসন লকডাউন সফল করার জন্য নানা ধরণের ব্যবস্থা নেয়। মানুষকে সচেতন করতে লিফলেট বিলি ও মাইকিংয়ের মাধ্যমে প্রচার অভিযান চালানো হয়। সাতক্ষীরা শহরসহ উপজেলা সদরে রাস্তায় রাস্তায় পুলিশ ব্যারিকেড দেয়। তারপরও মানুষ সচেতন না হওয়ায় করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হয়নি। বরং খারাপের দিকে যাচ্ছে। বাধ্য হয়ে করোনা প্রতিরোধ কমিটি সভায় তৃতীয় দফায় ২৪ জুন রাত ১২টা পর্যন্ত লোকডাউন বাড়ানো হলো।

সাতক্ষীরায় বুধবার সকাল আটটা থেকে বৃহস্পতিবার রাত আটটা পর্যন্ত ১৮৬ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৮৮ জনের করোনা শনাক্ত হয়। শনাক্তের হার শতকরা ৪৭ দশমিক ৩১ শতাংশ। এর আগের ২৪ ঘণ্টায় ১৮৮ জনের নমুনা পরীক্ষায় ১০০ জন শনাক্ত হয়। শনাক্তের হার ৫৩ দশমিক ১৯ শতাংশ। গত ১৩ জুন ৮১ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৫২ জনের করোনা শনাক্ত হয়। শনাক্তের হার ছিল ৬৪ দশমিক ১৯ শতাংশ। যা ছিল জেলার সর্বোচ্চ করোনা শনাক্তের হার।

আরও পড়ুন:

 

Comments

The Daily Star  | English

Lull in Gaza fighting despite blasts in south

Israel struck Gaza on Monday and witnesses reported blasts in the besieged territory's south, but fighting had largely subsided on the second day of an army-declared "pause" to facilitate aid flows

5h ago