খুলনায় ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত ৩৩.৮১ শতাংশ, মৃত্যু ৬

খুলনার পৃথক তিনটি হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় ছয় জন মারা গেছেন। আজ বৃহস্পতিবার জেলা সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার (রোগনিয়ন্ত্রণ) ডা. শেখ সাদিয়া মনোয়ারা ঊষা এ তথ্য দ্য ডেইলি স্টারকে নিশ্চিত করেছেন।
Khulna Map
স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

খুলনার পৃথক তিনটি হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় ছয় জন মারা গেছেন। আজ বৃহস্পতিবার জেলা সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার (রোগনিয়ন্ত্রণ) ডা. শেখ সাদিয়া মনোয়ারা ঊষা এ তথ্য দ্য ডেইলি স্টারকে নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, ছয় জনের মধ্যে তিন জনের মৃত্যু হয়েছে গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে, দুই জনের খুলনা জেনারেল হাসপাতালে ও একজনের খুলনা মেডিকেল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালের আওতাভুক্ত করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে।

খুমেকের করোনা হাসপাতালের ফোকাল পারসন ডা. সুহাস রঞ্জন হালদার ডেইলি স্টারকে জানান, ১৩০ শয্যার ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালে আজ সকাল ৮টা পর্যন্ত ১৪৮ জন রোগী ভর্তি রয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ভর্তি হয়েছেন ৩২ জন এবং সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৪০ জন।

গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের স্বত্বাধিকারী গাজী মিজানুর রহমান ডেইলি স্টারকে জানান, হাসপাতালটির করোনা ইউনিটে বর্তমানে ৯৭ জন রোগী ভর্তি রয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ৩০ জন এবং সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১১ জন।

খুলনা জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. কাজী আবু রাশেদ ডেইলি স্টারকে জানান, হাসপাতালে বর্তমানে ভর্তি রয়েছেন ৬৫ জন। ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে নতুন করে ১৮ জন ভর্তি হয়েছেন এবং সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন একজন।

খুমেক উপাধ্যক্ষ ডা. মেহেদী নেওয়াজ জানান, এই ২৪ ঘণ্টায় খুমেকের পিসিআর মেশিনে ৫৬৩ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১৯১ জনের করোনা শনাক্ত এসেছে। যার মধ্যে খুলনার ৪৮৮ জনের নমুনা পরীক্ষায় নতুন করে ১৬৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়। সেখানে পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ৩৩ দশমিক ৮১ শতাংশ। এ ছাড়া, বাগেরহাটের ১০ জন, যশোরের ছয় জন, সাতক্ষীরার চার জন, নড়াইলের চার জন, ঝিনাইদহের একজন ও পিরোজপুরের একজনেরও করোনা শনাক্ত হয়েছে।

Comments