আর্জেন্টিনার হারের দুঃখে তরুণের নদীতে ঝাঁপ!

উপমহাদেশে ব্রাজিল আর্জেন্টিনা মানেই অন্যরকম আবেগ, অন্যরকম ভালোবাসা। প্রিয় দলের জয়ে সমর্থকেরা যেমন উল্লসিত হন, তেমনি অনাকাঙ্ক্ষিত হারে মুষড়ে পড়েন অনেকেই। হতাশা থেকে অনেকে অনেক রকম দুর্ঘটনাও ঘটিয়ে বসেন। তেমনই এক বিষাদময় দুর্ঘটনার খবর পাওয়া গেছে। ক্রোয়েশিয়ার কাছে প্রিয় দল আর্জেন্টিনার পরাজয় সহ্য করতে না পেরে ভারতের কেরালা রাজ্যের এক তরুণ নদীতে ঝাঁপ দিয়েছেন বলে জানিয়েছে স্থানীয় সংবাদমাধ্যম। এরপর থেকে তার হদিশও মিলছে না।

উপমহাদেশে ব্রাজিল আর্জেন্টিনা মানেই অন্যরকম আবেগ, অন্যরকম ভালোবাসা। প্রিয় দলের জয়ে সমর্থকেরা যেমন উল্লসিত হন, তেমনি অনাকাঙ্ক্ষিত হারে মুষড়ে পড়েন অনেকেই। হতাশা থেকে অনেকে অনেক রকম দুর্ঘটনাও ঘটিয়ে বসেন। তেমনই এক বিষাদময় দুর্ঘটনার খবর পাওয়া গেছে।  ক্রোয়েশিয়ার কাছে প্রিয় দল আর্জেন্টিনার পরাজয় সহ্য করতে না পেরে ভারতের কেরালা রাজ্যের এক তরুণ নদীতে ঝাঁপ দিয়েছেন বলে জানিয়েছে স্থানীয় সংবাদমাধ্যম। এরপর থেকে তার হদিশও মিলছে না।

দিনু অ্যালেক্স নামের সেই তরুণ আর্জেন্টিনার অন্ধ ভক্ত। কেরালা ভারতের সবচেয়ে ফুটবল পাগল রাজ্যগুলোর মধ্যে একটি। লাতিন দলগুলো, বিশেষ করে আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিলের প্রচুর ভক্ত সমর্থক আছেন কেরালায়। প্রিয় দলের এমন হতাশাজনক হারে সবাই মুষড়ে পরলেও দিনু অ্যালেক্স সেই হতাশার মাত্রা কাটিয়ে উঠতে পারেননি। স্থানীয় পুলিশের ধারণা, নিকটবর্তী এক নদীতে ঝাঁপিয়ে পড়ে আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়েছেন ওই তরুণ। ফায়ার সার্ভিস ইউনিট এখনও তাঁকে উদ্ধার করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

নদীতে ঝাঁপ দেয়ার আগে একটি সুইসাইড নোটও রেখে গেছেন অ্যালেক্স, যেটি দেখার পর পুলিশের ধারণা, আর্জেন্টিনার পরাজয় সহ্য করতে না পেরেই এমন দুঃখজনক ঘটনা ঘটিয়েছে সে। নোটে মালায়ালাম ভাষায় লেখা ছিল, ‘যা যা দেখার ছিল সব দেখে ফেলেছি আমি। আর দেখার মতো কীই বা বাকি আছে? আমি অতল গহ্বরে হারিয়ে যাচ্ছি।’

দিনুর পরিবারের সদস্যরাও জানিয়েছে, সে আর্জেন্টিনা দলের খুব বড় ভক্ত। তার বাবা জানিয়েছে, বন্ধুদের কাছে ট্রলের শিকার হতে হবে, এমন আশঙ্কার কথাও তার কাছে জানিয়েছিল দিনু। তার মোবাইল ঘেঁটেও মেসির ছবি পেয়েছে পুলিশ।

 

Comments

The Daily Star  | English

Broadband internet restored in selected areas

Broadband internet connections were restored on a limited scale yesterday after 5 days of complete countrywide blackout amid the violence over quota protest

4h ago