সংখ্যায় সংখ্যায় জার্মানি-দক্ষিণ কোরিয়া ম্যাচ

গ্রুপ ‘এফ’ এর ম্যাচ মানেই যেন নাটকীয়তায় ভরপুর। সব নাটকের শেষ অঙ্ক মঞ্চস্থ হবে আজ। শিরোপা ধরে রাখার মিশনে আসা জার্মানির উপর আজ থাকবে জয়ের চাপ। তার আগে দেখে নেয়া যাক জার্মানি-দক্ষিণ কোরিয়া ম্যাচের উল্লেখযোগ্য পরিসংখ্যানগুলো।
জার্মানি-দক্ষিণ কোরিয়া ম্যাচ

গ্রুপ ‘এফ’ এর ম্যাচ মানেই যেন নাটকীয়তায় ভরপুর। সব নাটকের শেষ অঙ্ক মঞ্চস্থ হবে আজ। শিরোপা ধরে রাখার মিশনে আসা জার্মানির উপর আজ থাকবে জয়ের চাপ। তার আগে দেখে নেয়া যাক জার্মানি-দক্ষিণ কোরিয়া ম্যাচের উল্লেখযোগ্য পরিসংখ্যানগুলো।

হেড টু হেড:

১) এখনও পর্যন্ত তিনবার মুখোমুখি হয়েছে দুই দল, তার মধ্যে দুবারই বিশ্বকাপে। দুটি ম্যাচেই জয়ী দলের নাম জার্মানি। ১৯৯৪ বিশ্বকাপে জিতেছিল ৩-২ গোলে, আর ২০০২ বিশ্বকাপে ১-০ গোলে।

২) বিশ্বকাপের বাইরে বাকি যে ম্যাচটি হয়েছে, সেটিতে আবার জিতেছে দক্ষিণ কোরিয়া। ২০০৪ সালে হওয়া এক প্রীতি ম্যাচে জার্মানদের হারিয়েছিল তারা।

জার্মানি:

১) বিশ্বকাপে কখনোই গ্রুপ পর্ব থেকে বাদ পড়েনি জার্মানি।

২) বিশ্বকাপে এশিয়ান প্রতিপক্ষের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের সবকয়টিতেই জয় পেয়েছে জার্মানি। শুধু জিতেছে বললে কম বলা হয়, রীতিমতো বিধ্বস্ত করে জিতেছে। এই ৫ ম্যাচে জার্মানি গোল করেছে ১৯ টি। এশিয়ান প্রতিপক্ষের বিপক্ষে শেষ তিন ম্যাচে কোন গোল খায়নি চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নেরা।

৩) আগের ম্যাচে শুরুতে গোল খেয়েও সুইডেনকে ২-১ গোলে হারিয়েছে জার্মানি। ১৯৯৮ বিশ্বকাপের পর এই প্রথম আগে গোল খেয়েও ম্যাচ জিতে ফিরেছে জার্মানি। ১৯৯৮ বিশ্বকাপে মেক্সিকোর কাছে আগে গোল খেয়েও ২-১ গোলেই জিতেছিল তারা।

৪) শেষ ১৭ টি প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচের মধ্যে ১৫ টিতেই জিতেছে জার্মানি। বাকি দুই ম্যাচের একটিতে হেরেছে, আর একটি হয়েছে ড্র। একমাত্র হারটি ২০১৬ ইউরোতে ফ্রান্সের বিপক্ষে।

৫) বিশ্বকাপে নিজের শেষ ৫ ম্যাচে ৫ গোলের সাথে সরাসরিভাবে সম্পৃক্ত ছিলেন টনি ক্রুস (৩ গোল, ২ অ্যাসিস্ট)।

৬) এই বিশ্বকাপে দুই ম্যাচে মোট ২২ টি ক্রস দিয়েছেন জশুয়া কিমিখ। দুটি করে ম্যাচ শেষে আর কোন খেলোয়াড় এতগুলো ক্রস করতে পারেননি।

 

দক্ষিণ কোরিয়া:

১) মেক্সিকোর বিপক্ষে হারা ম্যাচে একাই গোলমুখে ৮ টি শট নিয়েছেন হিউং মিন সন। অথচ সুইডেনের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে পুরো কোরিয়া দল মিলেই গোলমুখে শট নিয়েছিল মাত্র ৫ টি।

২) এবারের আসরে দুই ম্যাচেই প্রতিপক্ষকে একটি করে পেনাল্টি উপহার দিয়েছে কোরিয়ানরা। অথচ বিশ্বকাপে নিজেদের শেষ ২৯ ম্যাচেই মাত্র একটি পেনাল্টি হজম করেছিল তারা।

৩) বিশ্বকাপে নিজেদের শেষ চার ম্যাচেই হেরেছে কোরিয়ানরা। এর আগে ১৯৮৬ ও ১৯৯০ বিশ্বকাপ মিলিয়েও টানা চার ম্যাচে হেরেছিল দলটি।

Comments

The Daily Star  | English
people without power after cyclone Remal

Cyclone Remal: 93 percent power restored, says ministry

The Ministry of Power, Energy and Mineral Resources today said around 93 percent power supply out of the affected areas across the country by Cyclone Remal was restored till this evening

7m ago