জেসুস না ফিরমিনো, কে খেলছেন বেলজিয়ামের বিপক্ষে?

বিশ্বকাপের আগে নেইমার-কৌতিনহো-গ্যাব্রিয়েল জেসুস নিয়ে অনেক আলোচনা হয়েছে। বাছাইপর্বে তিনজনই আলো ছড়িয়েছিলেন। কিন্তু বিশ্বকাপে এসে নেইমার ও কৌতিনহো গোল পেলেও চার ম্যাচ খেলে এখনও গোলের খাতা খুলতে পারেননি মূল স্ট্রাইকার গ্যাব্রিয়েল জেসুস। ব্রাজিল ভক্তদের মনে তাই প্রশ্ন, জেসুস না ফিরমিনো, কার খেলা উচিত একাদশে?

বিশ্বকাপের আগে নেইমার-কৌতিনহো-গ্যাব্রিয়েল জেসুস নিয়ে অনেক আলোচনা হয়েছে। বাছাইপর্বে তিনজনই আলো ছড়িয়েছিলেন। কিন্তু বিশ্বকাপে এসে নেইমার ও কৌতিনহো গোল পেলেও চার ম্যাচ খেলে এখনও গোলের খাতা খুলতে পারেননি মূল স্ট্রাইকার গ্যাব্রিয়েল জেসুস। ব্রাজিল ভক্তদের মনে তাই প্রশ্ন, জেসুস না ফিরমিনো, কার খেলা উচিত একাদশে?

পরিসংখ্যান বলছে, বিশ্বকাপে কোন ব্রাজিলিয়ান নম্বর নাইনের সবচেয়ে বাজে শুরু এটিই। এর আগে ১৯৬৬ বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্ব থেকে যেবার বিদায় নিয়েছিল ব্রাজিল, সেবার দলের চার গোলের মধ্যে একটিও করতে পারেননি স্ট্রাইকার আলসিন্দো। এমনকি গত বিশ্বকাপে যে ফ্রেডকে নিয়ে এত সমালোচনা হলো, সেই ফ্রেডও ক্যামেরুনের বিপক্ষে করেছিলেন দুই গোল।

জেসুসের দুর্দশা বোঝাতে একটি তথ্যই যথেষ্ট। চার ম্যাচে গোলপোস্ট উদ্দেশ্য করে মোট ৮ টি শট নিয়েছেন জেসুস, এর মধ্যে অন টার্গেট শট ছিল মাত্র একটি!

কিন্তু তিতে দায়িত্ব নেয়ার পর জেসুস এমন বাজে ফর্মে পড়েননি কখনোই। তিতেও শুরু থেকেই আস্থা রেখে এসেছেন ২১ বছর বয়সী এই স্ট্রাইকারের উপর। ২০১৬ সালে তিতে দায়িত্ব নেয়ার পর থেকে ব্রাজিলের জার্সি গায়ে জেসুসের চেয়ে বেশি গোল করেছেন কেবল নেইমার। বাছাইপর্বে লিওনেল মেসি ও অ্যালেক্সিস সানচেজের সমান সাত গোল করেছিলেন, সামনে ছিলেন কেবল এডিনসন কাভানি। ব্রাজিলের হয়ে যে ২১ টি ম্যাচ খেলেছেন, প্রতিটিতে গড়ে ৭৯ মিনিট ধরে মাঠে ছিলেন তিনি।

তবে পরিসংখ্যান বলছে, গোল না পেলেও দলের খেলায় কিন্তু ঠিকই অবদান রেখে চলেছেন ম্যানচেস্টার সিটির এই স্ট্রাইকার। এই বিশ্বকাপে খেলছেন এমন স্ট্রাইকারদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ইন্টারসেপশন করেছেন এই জেসুস। প্রতিপক্ষের পা থেকে সবচেয়ে বেশিবার বল কেড়ে নেয়া স্ট্রাইকারও জেসুসই। ফিফার পরিসংখ্যান বলছে, সার্বিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে ব্রাজিলের খেলোয়াড়দের মধ্যে মাঠে সবচেয়ে বেশি দৌড়েছেন জেসুস। অর্থাৎ তিনি খেলছেন ঠিকই, শুধু গোলের দেখাটাই পাচ্ছেন না।

অপরদিকে মেক্সিকোর বিপক্ষে বদলি হিসেবে নেমে গোল করে একাদশে জায়গা পাওয়ার দাবিটা আরও জোরালো করেছেন লিভারপুলের হয়ে দুর্দান্ত মৌসুম কাটিয়ে আসা রবার্তো ফিরমিনো। এখন পর্যন্ত যে ৫৯ মিনিট খেলেছেন, তাতে গোল করার পাশাপাশি চারটি গোলের সুযোগও তৈরি করেছেন ফিরমিনো। যেখানে ৩৬৫ মিনিট খেলে জেসুস সুযোগ তৈরি করেছেন মাত্র নয়টি।

বেলজিয়ামের বিপক্ষে তাহলে কে থাকছেন শুরুর একাদশে? দারুণ ফর্মে থাকা ফিরমিনো, নাকি তিতের আস্থাভাজন হয়ে ওঠা জেসুস?

 

Comments