ফ্রান্স কোচের সামনে ইতিহাসের হাতছানি

ফ্রেঞ্চ ফুটবল ইতিহাসে তার নাম সবসময়ই লেখা থাকবে স্বর্ণালী অক্ষরে। দেশকে বিশ্বকাপ জেতানো প্রথম অধিনায়ক হিসেবে আজীবনই ফ্রেঞ্চ ফুটবলে মর্যাদার আসনে থাকবেন দিদিয়ের দেশম। কিন্তু দেশমের সামনে আজ আরও বড় রেকর্ডের হাতছানি। দেশের ফুটবলের গণ্ডি ছাড়িয়ে বিশ্ব ফুটবলের ইতিহাসেই নিজের নাম অমর করে রাখার সুবর্ণ সুযোগ তার সামনে।
Didier Deschamps
দল ঘোষণা করেছেন কোচ দিদিয়ের দেশম। ছবি: এএফপি

ফ্রেঞ্চ ফুটবল ইতিহাসে তার নাম সবসময়ই লেখা থাকবে স্বর্ণালী অক্ষরে। দেশকে বিশ্বকাপ জেতানো প্রথম অধিনায়ক হিসেবে আজীবনই ফ্রেঞ্চ ফুটবলে মর্যাদার আসনে থাকবেন দিদিয়ের দেশম। কিন্তু দেশমের সামনে আজ আরও বড় রেকর্ডের হাতছানি। দেশের ফুটবলের গণ্ডি ছাড়িয়ে বিশ্ব ফুটবলের ইতিহাসেই নিজের নাম অমর করে রাখার সুবর্ণ সুযোগ তার সামনে।

তা কী সেই রেকর্ড? খেলোয়াড় এবং কোচ, এই দুই ভূমিকাতেই বিশ্বকাপ জয়ের স্বাদ পেয়েছেন, এমন সৌভাগ্যবানের সংখ্যা এখনও পর্যন্ত মাত্র দুজন। আজ ফ্রান্স ফাইনাল জিততে পারলে সংখ্যাটা তিনে গিয়ে ঠেকবে, আর তৃতীয় সেই সৌভাগ্যবান হবেন ফরাসি কোচ দিদিয়ের দেশম।

আগের দুজনের নাম বিশ্বকাপ ইতিহাসেই লেখা হয়ে আছে অমরভাবে। এলিট এই ক্লাবের সূচনা হয়েছিল ব্রাজিলীয় কিংবদন্তি মারিও জাগালোর হাত ধরে। ব্রাজিলের প্রথম দুটি বিশ্বকাপজয়ী দলেরই সদস্য ছিলেন জাগালো। ১৯৫৮ বিশ্বকাপের ফাইনালে সুইডেনকে হারিয়ে প্রথম শিরোপা জয়ের পথে দলের হয়ে চতুর্থ গোলটি করেছিলেন জাগালো। চার বছর পরের ফাইনালে গোল না পেলেও প্রথম একাদশেই ছিলেন তিনি।

আরও পড়ুন ঃ ‘৪৫ লাখ খেলোয়াড় নিয়ে মাঠে নামবে ক্রোয়েশিয়া’

এরপর কোচ হিসেবে শিরোপা জয়ের স্বাদ পান ১৯৭০ বিশ্বকাপে। ১৯৫৮ তে যে পেলের সতীর্থ ছিলেন, সেই পেলের কোচ হিসেবেই ফাইনালে ইতালিকে ৪-১ গোলে হারিয়ে ব্রাজিলকে জেতান তৃতীয় শিরোপা। এরপর ১৯৯৪ বিশ্বকাপে যেবার ইতালিকেই হারিয়ে নিজেদের চতুর্থ শিরোপা জেতে ব্রাজিল, সেবার ব্রাজিলের সহকারী কোচ ছিলেন জাগালো। নাহলে কোচ এবং খেলোয়াড় দুই ভূমিকাতেই দুটি করে শিরোপা জেতা একমাত্র ব্যক্তি হয়ে যেতেন জাগালো।

এলিট এই ক্লাবের নিঃসঙ্গ জাগালোকে সঙ্গ দিতে যোগ দেন জার্মান কিংবদন্তি ফ্রাঞ্জ বেকেনবাওয়ার। ১৯৭৪ বিশ্বকাপে বেকেনবাওয়ারের অধিনায়কত্বেই ইয়োহান ক্রুইফের নেদারল্যান্ডসকে হারিয়ে নিজেদের দ্বিতীয় শিরোপা জেতে পশ্চিম জার্মানি। এরপর ১৯৯০ বিশ্বকাপে ডিয়েগো ম্যারাডোনার আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে যেবার তৃতীয় শিরোপা জেতে জার্মানি, সেবার দলটির কোচের দায়িত্বে ছিলেন ‘কাইজার’ নামে পরিচিত এই ফুটবল কিংবদন্তী।

তবে একটা জায়গায় বেকেনবাওয়ার এখনও একমাত্র। অধিনায়ক ও কোচ হিসেবে বিশ্বকাপ জেতা একমাত্র খেলোয়াড় তিনিই। আজ জিততে পারলে এই ক্লাবেও ঢুকে যাবেন দেশম।

খেলোয়াড় ও কোচ হিসেবে বিশ্বকাপ জেতার সবচেয়ে কাছাকাছি যেতে পেরেছিলেন কেবল আর একজনই, রুডি ভলার। ১৯৯০ আসরে শিরোপা জেতা জার্মান দলের সদস্য ভলার দলটির কোচ হিসেবে গিয়েছিলেন ২০০২ বিশ্বকাপে। ফাইনালেও উঠেছিলেন, কিন্তু রোনালদোর ব্রাজিলের কাছে পরাজয় বরণ করায় আর দুই ভূমিকাতে শিরোপা জেতা হয়নি তার।

আরও পড়ুন ঃ বরখাস্ত হয়েছেন সাম্পাওলি?​

Comments