কয়লা গায়েবের ঘটনায় ১৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা

দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি থেকে উত্তোলিত ১ লাখ ৪৫ হাজার টন কয়লা গায়েব হয়ে যাওয়ার ঘটনায় বড়পুকুরিয়া কোল মাইনিং কোম্পানির (বিসিএমসিএল) ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ বর্তমান ও সাবেক মিলিয়ে মোট ১৯ জন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।
barapukuria coal mine
বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি। ছবি: কঙ্কণ কর্মকার

দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি থেকে উত্তোলিত ১ লাখ ৪৫ হাজার টন কয়লা গায়েব হয়ে যাওয়ার ঘটনায় বড়পুকুরিয়া কোল মাইনিং কোম্পানির (বিসিএমসিএল) ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ বর্তমান ও সাবেক মিলিয়ে মোট ১৯ জন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

মঙ্গলবার দিবাগত মধ্যরাতের দিকে বিসিএমসিএল এর ব্যবস্থাপক (প্রশাসন) আনিসুর রহমান পার্বতীপুর থানায় মামলাটি দায়ের করেন। থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ফখরুল ইসলাম মামলার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

মামলায় যাদের আসামি করা হয়েছে তারা হলেন, মহাব্যবস্থাপক (মাইন অপারেশন) আবু তাহের মো. নুরুজ্জামাম চৌধুরী; উপ-মহাব্যবস্থাপক খালেদুল ইসলাম; ব্যবস্থাপনা পরিচালক হাবিব উদ্দিন আহমদ; মহাব্যবস্থাপক (জেনারেল সার্ভিস) মাসুদুর রহমান হাওলাদার; ব্যবস্থাপক (প্রোডাকশন ম্যানেজমেন্ট) অশোক কুমার হাওলাদার; ব্যবস্থাপক (মেইনটেনেন্স এন্ড অপারেশন) আরিফুর রহমান; ব্যবস্থাপক (ডিজাইন, কন্সট্রাকশন এন্ড মেইনটেনেন্স) জাহিদুল ইসলাম; উপ-ব্যবস্থাপক (সেফটি ম্যানেজমেন্ট) আকরামুল হক; উপ-ব্যবস্থাপক (কোল হ্যান্ডলিং এন্ড ম্যানেজমেন্ট) খলিলুর রহমান; উপ-ব্যবস্থাপক (মেইনটেনেন্স এন্ড অপারেশন) মোরশেদুজ্জামান; উপ-ব্যবস্থাপক (প্রোডাকশন ম্যানেজমেন্ট) হাবিবুর রহমান; উপ-ব্যবস্থাপক (মাইন ডেভেলপমেন্ট) জাহিদুর রহমান;  উপ-ব্যবস্থাপক (ভেন্টিলেশন ম্যানেজমেন্ট) সত্যেন নাথ বর্মণ; ব্যবস্থাপক (নিরাপত্তা) সৈয়দ ইমাম হাসান; উপ-মহাব্যবস্থাপক (মাইন প্ল্যানিং অপারেশন) জোবায়ের আলী; সাবেক মহাব্যবস্থাপক (ফাইন্যান্স) আব্দুল মান্নান পাটোয়ারি ও গোপাল চন্দ্র সাহা; সাবেক মহাব্যবস্থাপক (এক্সপ্লোরেশন), কোম্পানি সেক্রেটারি আবুল কাশেম প্রধানিয়া ও মোশারফ হোসেন।

মামলার নথিতে বলা হয়, এই ১৯ জনের যোগসাজশে খনির ১ লাখ ৪৫ হাজার টন কয়লা তছরুপ হয়েছে।

বিসিএমসিএল-এর নিয়ন্ত্রণকারী পেট্রোবাংলা কয়লা কাণ্ডে ইতিমধ্যে চার জনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। দুর্নীতি দমন কমিশনের পাঁচ সদস্যের একটি দল এই ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে। সোমবার কয়লাখনি পরিদর্শন করে তারা দুর্নীতির আলামত পেয়েছে বলে জানিয়েছে।

নথিপত্রের হিসাব অনুযায়ী এই মুহূর্তে কয়লা খনির ইয়ার্ডে ১ লাখ ৪৮ হাজার টন কয়লা মজুদ থাকার কথা ছিল। কিন্তু দুদক দল, পেট্রোবাংলা ও বিপিডিবির কর্মকর্তা মাত্র তিন হাজার টনের মতো কয়লা পেয়েছেন। কয়লা সংকটে ইতিমধ্যে ৫২৫ মেগাওয়াট ক্ষমতার বড়পুকুরিয়া বিদ্যুৎকেন্দ্রে অনির্দিষ্টকালের জন্য উৎপাদন বন্ধ হয়ে গেছে।

Comments

The Daily Star  | English

Iranian Red Crescent says bodies recovered from Raisi helicopter crash site

President Raisi, the foreign minister and all the passengers in the helicopter were killed in the crash, senior Iranian official told Reuters

4h ago