রাজধানীজুড়ে শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদ

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় রাস্তা অবরোধ করেছেন বিভিন্ন কলেজ ও স্কুলের শিক্ষার্থীরা। রোববার বিমানবন্দর সড়কে বেপরোয়া একটি বাসের ধাক্কায় শহীদ রমিজ উদ্দিন কলেজের দুজন শিক্ষার্থী নিহত হওয়ার পর তৃতীয় দিনের মতো আজ বিক্ষোভ চলছে।
নিরাপদ সড়কের দাবিতে ফার্মগেটে শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ। ছবি: শেখ মেহেদী মোরশেদ

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় রাস্তা অবরোধ করেছেন বিভিন্ন কলেজ ও স্কুলের শিক্ষার্থীরা। রোববার বিমানবন্দর সড়কে বেপরোয়া একটি বাসের ধাক্কায় শহীদ রমিজ উদ্দিন কলেজের দুজন শিক্ষার্থী নিহত হওয়ার পর তৃতীয় দিনের মতো আজ বিক্ষোভ চলছে।

আজ সকাল ১১টার দিকে সরকারি বিজ্ঞান কলেজ ও তেজগাঁও সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের কয়েকশো ছাত্র ফার্মগেটে অবরোধ করেন। এতে ফার্মগেট মোড়ের সবগুলো রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এসময় তাদেরকে নৌপরিবহন মন্ত্রী শাহজাহান খানের পদত্যাগের দাবিতে স্লোগান দিতে দেখা যায়। এছাড়াও নিরাপদ সড়কের দাবিতে ৯ দফা দাবির কথাও বলেছেন অবরোধকারী শিক্ষার্থীরা।

সেখানে দায়িত্বরত ডিএমপি’র উপ-কমিশনার বিপ্লব কুমার সরকার দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ছাত্রদের শান্ত করে তারা রাস্তা থেকে সরানোর চেষ্টা করছেন।

অবরোধে অংশ নেওয়া সরকারি বিজ্ঞান কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র মামুন হোসেন বলেন, ‘আমরা বিচার চাই। আমাদের বন্ধু মারা গেল দেখেও আমরা কিছুই করব না সেটা হতে পারে না।’ নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সপ্তম শ্রেণির আরেক ছাত্র বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের মৃত্যু নিয়ে নৌপরিবহন মন্ত্রী যে প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন তা অমানবিক। তাকে অবশ্যই পদত্যাগ করতে হবে।’

সকাল ১০টা থেকে কমার্স কলেজসহ আশপাশের বেশ কিছু স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা মিরপুর-১ নম্বর গোল চত্বরের রাস্তায় অবস্থান নেয়। সাড়ে ১০টা থেকে তারা সড়কে যান চলাচল বন্ধ করে দেয়। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে আরও শিক্ষার্থী তাদের সঙ্গে যোগ দিতে দেখা গেছে। মিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দাদন ফকির দ্য ডেইলি স্টারকে জানান, শিক্ষার্থীরা প্রায় এক ঘণ্টা সেখানে অবরোধ চালায়।

পৌনে ১২টার দিকে ধানমন্ডির সায়েন্স ল্যাবরেটরি এলাকায় সিটি কলেজ, আইডিয়াল কলেজসহ বেশ কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কয়েকশো শিক্ষার্থী মিরপুর রোড অবরোধ করেন। সেখানে হিমাচল পরিবহনের একটি বাসে আগুন দেওয়া হয়েছে। ধানমন্ডি জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার ঘটনার কথা জানিয়ে বলেন, ছাত্রদের তারা রাস্তা থেকে সরানোর চেষ্টা করছেন।

মিরপুরে সনি সিনেমা হল মোড়ে শিক্ষার্থীরা প্রায় আধা ঘণ্টা রাস্তা অবরোধ করে রাখেন বলে জানিয়েছেন মিরপুর জোনের পুলিশ উপ-কমিশনার মাসুদ আহমেদ।

মিরপুর রোডে শেরে বাংলা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলোনি উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও দুপুর ১টা থেকে শেরে বাংলা নগর এলাকায় অবরোধ শুরু করে।

অন্যদিকে মতিঝিলে শাপলা চত্বরে অবস্থান নিয়েছে নটরডেম কলেজের ছাত্ররা। সেখানেও যান চলাচল বন্ধ থাকার খবর পাওয়া গেছে।

শিক্ষার্থীরা রাস্তা অবরোধ করায় রাজধানীর কাজি নজরুল ইসলাম এভিনিউয়ে যাত্রীদের হেঁটেই গন্তব্যের উদ্দেশে যেতে দেখা যায়। ছবি: অঞ্জন চক্রবর্ত্তী

গত রোববার বিমানবন্দর সড়কে র‍্যাডিসন হোটেলের সামনে জাবালে নূর কোম্পানির একটি বাস অপেক্ষমাণ যাত্রীদের ওপর উঠে গেলে দিয়া খানম মিম ও আব্দুল করিম রাজীব নামের দুজন কলেজ শিক্ষার্থী নিহত হন। এই ঘটনার পর পরই পদচারী ও উত্তেজিত ছাত্ররা রাস্তায় বাস ভাঙচুর শুরু করে। গতকালও সারা দিনই বিমানবন্দর সড়কে বিক্ষোভ দেখিয়েছে ছাত্ররা।

Comments

The Daily Star  | English