কিছু মানুষ সর্বদা আমাকে নীচু করতে পছন্দ করে: সাকিব

ফ্লোরিডায় এক দর্শকের দিকে সাকিব আল হাসানের তেড়ে যাওয়ার ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর তা নিয়ে তোলপাড় হয়েছে ভক্তদের মধ্যে। সেলফি আর অটোগ্রাফের আবদারে ‘ক্লান্ত’ সাকিবকে বারবার বিরক্ত করাতেই এমন ঘটনার সূত্রপাত। তবু সেলিব্রেটি হিসেবে তার আচরণ নিয়ে হচ্ছে সমালোচনা। এর জবাবে এবার মুখ খুলেছেন সাকিব। ভিডিওতে তাকে ভুলভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে উল্লেখ করে সাকিবের অভিযোগ কেউ কেউ সব সময় তাকে ছোট করতে ব্যস্ত থাকেন।
shakib al hasan

ফ্লোরিডায় এক দর্শকের দিকে সাকিব আল হাসানের তেড়ে যাওয়ার ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর তা নিয়ে তোলপাড় হয়েছে ভক্তদের মধ্যে। সেলফি আর অটোগ্রাফের আবদারে ‘ক্লান্ত’ সাকিবকে বারবার বিরক্ত করাতেই এমন ঘটনার সূত্রপাত। তবু সেলিব্রেটি হিসেবে তার আচরণ নিয়ে হচ্ছে সমালোচনা। এর জবাবে এবার মুখ খুলেছেন সাকিব। ভিডিওতে তাকে ভুলভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে উল্লেখ করে সাকিবের অভিযোগ কেউ কেউ সব সময় তাকে ছোট করতে ব্যস্ত থাকেন।

মঙ্গলবার সকাল থেকে ভাইরাল হওয়া ৫৮ সেকেন্ডের এক ভিডিওতে দেখা যায়, টিম হোটেলে হাফ প্যান্ট ও বাংলাদেশের জার্সি পড়া এক দর্শক দুহাত পকেটে দিয়ে সাকিবকে কিছু একটা বলছিলেন। সাকিব ঘুরে তার দিকে যান, তখন হাত দিয়ে আগ্রাসী ইঙ্গিত করেন। খানিক পর ফিরে গিয়ে আবার এগিয়ে আসেন সাকিব। তখন অন্য দর্শকরা তাকে থামানোর চেষ্টা করেন।

আরও পড়ুন- ভক্ত 'বিরক্ত করাতেই' মেজাজ হারান সাকিব

এই সময় উপস্থিত প্রত্যক্ষদর্শীদের কাছ থেকে জানা যায়, ওই ভক্ত সেলফি আর অটোগ্রাফের জন্য বারবার সাকিবকে বিরক্ত করছিলেন। সাকিব না বলায় নিয়ে তিনি বাজে ভাষা ব্যবহার করেন। আর তখনই রেগে যান দুই ফরম্যাটের বাংলাদেশ অধিনায়ক।

ওই ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর তৈরি হয় ভুলবোঝাবুঝি। আসতে থাকে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। এসব দেখেই ফেসবুকে নিজের ভেরিফাইড পেজে নিজের অবস্থান ব্যাখ্যা করে বেশ লম্বা  স্ট্যাটাস দিয়েছেন সাকিব। সাকিব অভিযোগ করেছেন ভিডিওতে তাকে ভুলভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে,  ‘সম্প্রতি আমাকে নিয়ে একটি ভিডিও আপলোড করা হয়েছে, যেখানে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজ জয়ের পর লবিতে আমাকে ও আমার তথাকথিত “ফ্যান”–এর সঙ্গে তর্ক–বিতর্ক করতে দেখা যায়। এই ভিডিও ক্লিপটি সম্পূর্ণ ভুলভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে, যা প্রকৃত ঘটনা প্রকাশ করে না। পরপর ম্যাচ থাকায় আমি এবং আমার সহকর্মী বেশ ক্লান্ত ছিলাম। আমরা আমাদের রুমে ফিরে যাচ্ছিলাম। আমরা আমাদের নিজস্ব সরঞ্জাম এবং ব্যাগ বহন করছিলাম তাই আমাদের হাত পূর্ণ ছিল, তাই কোনোভাবেই অটোগ্রাফ দেওয়ার অবস্থায় ছিল না। আমরা সর্বদাই আমাদের ভক্তদের সঙ্গে সময় কাটাতে পছন্দ করি এবং তাদের সঙ্গে ছবি তুলে, অটোগ্রাফ দিয়ে মুহূর্তগুলো ভাগ করে নেওয়ার চেষ্টা করি। কিন্তু ভক্তদেরও বুঝতে হবে আমরাও মানুষ।’

 

কেউ কেউ তাকে সব সময় ছোট করে উপস্থাপন করতে চান বলেও অনুযোগের সুর সাকিবের কণ্ঠে, ‘আমি জানি কিছু মানুষ, যারা হয়তো আমাকে ফলো করে অথবা করে না, কিন্তু সর্বদা ছোট ছোট বিষয়ে আমাকে নীচু করতে পছন্দ করে। তাদের উদ্দেশ্যে বলতে চাই আমাদের থেকে ভালো কিছু প্রত্যাশা করতে হলে এই নীচু মানসিকতার পরিবর্তন প্রয়োজন। প্রত্যেকটা ম্যাচে আমরা এমনিতেই অনেক বেশি চাপে থাকি, নতুন কোনো চাপ প্রয়োগ না করার জন্য বিশেষ অনুরোধ করা হলো। আর এই মানসিকতার বাইরে যারা আছেন, আমি সর্বদা তাঁদের পাশে আছি।’

খেলোয়াড়রা নানান চাপের মধ্যেও ভক্তদের অবদান মেটান। অনেক সময় ক্লান্তির কারণে আবদার ফিরিয়েও দিতে হয়। খেলোয়াড়দের এই পরিস্থিতি বোঝতে ভক্তদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন সাকিব,  ‘আপনাদের কাছে বিনীত অনুরোধ থাকবে যে আমাদের মধ্যে কেউ যদি আপনাদের অনুরোধ রাখতে না পারি তবে তা ব্যক্তিগতভাবে নেবেন না কারণ আমরা যে পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছি তা হয়তো আপনি যা দেখছেন তা থেকে ভিন্ন হতে পারে। হুটহাট আমাদের পরিস্থিতি বিবেচনা না করে কিংবা আমরা কেমন মুডে আছি তা বোঝার চেষ্টা ছাড়াই কোনো সিদ্ধান্ত বা মতামত দিতে ব্যস্ত হয়ে পড়বেন না।’

 

Comments

The Daily Star  | English

President, PM greet countrymen on eve of Buddha Purnima

Buddha Purnima, the largest religious festival of the Buddhist community, will be observed tomorrow across the country

21m ago